মেয়েদের ধারাবাহিকতাতেই বেশি খুশি কোচ ছোটন

ঢাকা, সোমবার, ২০ আগস্ট ২০১৮ | ৫ ভাদ্র ১৪২৫

মেয়েদের ধারাবাহিকতাতেই বেশি খুশি কোচ ছোটন

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১১:৪০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৯, ২০১৮

মেয়েদের ধারাবাহিকতাতেই বেশি খুশি কোচ ছোটন

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলের দ্বিতীয় আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। ভুটানে অনুষ্ঠিত আসরে প্রথম নিজেদের ম্যাচে মেয়েদের দাপুটে এই জয়ে উল্লাসে ভাসছে গোটা দেশ। বাংলাদেশের বয়স ভিত্তিক ফুটবলারদের এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যবধানে জয়।

এর আগে ২০১৪ সালে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ আঞ্চলিক ফুটবলে ভুটানকে ১৬-০ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। বয়স ভিত্তিক ফুটবলে মেয়েদের দাপট চলছে বেশ ক’বছর ধরেই।

বর্তমান অনূর্ধ্ব-১৫ দলটি শেষ আট মাসে দু’টি আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতে খেলতে গেল ভুটনে। গেল ডিসেম্বরে প্রথমবারের মতো আয়োজিত অনূর্ধ্ব-১৫ সাফে শিরোপা জয়ের পর এ বছর হংকংয়ে একটি আমন্ত্রণমূলক টুর্নামেন্টে শিরোপার স্বাদ পায় বাংলাদেশ। ওই দুই টুর্নামেন্ট আর এবারে সাফের প্রথম ম্যাচ মিলিয়ে শেষ ৮ ম্যাচে ৫১ গোল লাল-সবুজের দেশের।

বাংলাদেশের মেয়েদের এই ধারাবাহিকতায় সবচেয়ে বেশি খুশি বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে হারানোর পর বৃহস্পতিবার রাতে ভুটান থেকে পারিবর্তন ডটকমকে ছোটন বলেন, ‘১৪ গোল মেয়েরা করবে এতোটা প্রত্যাশা না থাকলেও মেয়েদের নিয়ে আত্মবিশ্বাস ছিল আমার। এর মূলে হচ্ছে কঠোর ট্রেনিং।'

তিনি বলেন, 'ডিসেম্বরে সাফে ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর (সাফ অনূর্ধ্ব-১৫) টানা অনুশীলন করে গেছে মেয়েরা। হংকং একটা আন্তর্জাতিক আসরেও শিরোপা জিতেছে। তাই মেয়েদের মধ্যে কোনো ভয়-ভীতি নেই।’

এরপর ছোটন জানান, বড় জয়ের চেয়ে মেয়েদের ধারাবাহিক পারফম্যান্সই বেশি তৃপ্তি দিচ্ছে তাকে। তিনি বলেন, ‘সবচেয়ে বড় পাওয়া ৮টা ম্যাচ ওরা একই ধাঁচের খেলা খেলেছে। ফুটবলে যা খুবই কঠিন। একটা দলের পারফর্মেন্স আপ অ্যান্ড ডাউন হয়। কিন্তু এই মেয়েরা টানা আট ম্যাচ খেলেছে দাপটের সঙ্গে। সাফে এরপর হংকংয়ে।’

বাংলাদেশ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচ খেলবে আগামী ১৩ আগস্ট নেপালের বিপক্ষে।

টিএআর/আরজি/পিএ