থার্মোমিটারে রিয়াল ও পিএসজিকে মাপা!

ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮ | ২ ভাদ্র ১৪২৫

থার্মোমিটারে রিয়াল ও পিএসজিকে মাপা!

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৫০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩১, ২০১৮

print
থার্মোমিটারে রিয়াল ও পিএসজিকে মাপা!

দুই দলের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ দ্বৈরথের প্রথম লেগেরই আরও দুই সপ্তাহ বাকি। প্রথম লেগ ১৪ ফেব্রুয়ারি। ফিরতি লেগ ৬ মার্চ। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ ও পিএসজির মধ্যকার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোল’র দ্বৈরথের কড়াই এরই মধ্যে আগুন-তপ্ত। পরিস্থিতিই রিয়ালকে বাধ্য করেছে সমস্ত মনোযোগ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এই দ্বৈরথের দিকে। রিয়ালের একমাত্র আশার সলতে হয়ে জ্বলছে এই চ্যাম্পিয়ন্স লিগই। অন্য দিকে পিএসজি ফ্রান্সের ঘরোয়া ফুটবলের সব প্রতিযোগিতাতেই শিরোপার বড় দাবিদার। তারপরও ফরাসি ক্লাবটির সমস্ত পরিকল্পনা যেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়ালের বিপক্ষে দ্বৈরথ নিয়েই।

সময় যত ঘনিয়ে আসছে, শেষ ষোল’র দ্বৈরথ নিয়ে দুই শিবিরেই টেনশন-উত্তেজনা বাড়ছে। রিয়াল-পিএসজির উত্তেজনা দেখে উত্তপ্ত গণামাধ্যমও! রিয়াল-পিএসজির দ্বৈরথের উত্তেজনায় এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোল’র বাকি ৭টি দ্বৈরথ যেন চাপা পড়ে গেছে। সব আলোচনা-উত্তাপ্ত দুই দৈত্যের লড়াই নিয়েই।

ব্যাপারটা স্বাভাবিকই। কারণ, ড্র ভাগ্যে আর কোনো দলই শেষ ষোলতেই এমন কঠিন পরীক্ষার মুখোমুখি নয়। বার্সেলোনা, বায়ার্ন মিউনিখ, জুভেন্টাস, ম্যানচেস্টার সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, প্রতিটি দলই তুলনামূলকভাবে সহজ প্রতিপক্ষ পেয়েছে। ড্র ভাগ্য জ্বলন্ত কড়াইয়ে ছেড়ে দিয়েছে কেবল রিয়াল ও পিএসজিকে।

বছর কয়েক আগে হলেও হয়তো রিয়াল-পিএসজির দ্বৈরথ নিয়ে তেমন কিছু ছিল না। কিন্তু গত কয়েক বছরে আমূলে পাল্টে গেছে পিএসজি। ২০১১ সালে কাতারি স্পোর্টস ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি মালিকানা কিনে নেওয়ার পর একের পর এক তারকা খেলোয়াড় কিনে নব দৈত্য রূপে দৃশ্যমান পিএসজি।

কাতারি ধনকুবের নাসের আল খেলাইফির পিএসজি এখন কতটা কঠিন প্রতিপক্ষ, গত মৌসুমে তা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে বার্সেলোনা। এই মৌসুমে টের পেয়েছে জার্মান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ।

গত মৌসুমে এই শেষ ষোল রাউন্ডেই বার্সেলোনার মুখোমুখি হয়েছিল পিএসজি। নিজেদের ঘরের মাঠের প্রথম লেগে ৪-০ গোলে জিতে পিএসজি রীতিমতো কাঁপিয়ে দিয়েছিল বার্সেলোনাকে। ন্যু-ক্যাম্পের ফিরতি লেগে নেইমার জাদুতে প্রত্যাবর্তনের অবিশ্বাস্য এক গল্প লিখেই কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখে বার্সেলোনা। ন্যু-ক্যাম্পে বার্সার ৬-১ গোলের জয়ে সবচেয়ে বড় নায়ক ছিলেন যিনি, সেই নেইমার এখন পিএসজিতে।

শুধু নেইমারকেই নয়, দলের শক্তিবৃদ্ধিতে এই মৌসুমে ফরাসি বিস্ময় তরুণ কিলিয়ান এমবাপে এবং বার্সেলোনার সাবেক ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দানি আলভেসকেও দলে ভিড়িয়েছে পিএসজি। নেইমার-এমবাপে-দানি আলভেসের সমন্বয়ে পিএসজি কতটা শক্তিশালী, এরই বুঝে গেছে বায়ার্ন। জার্মান চ্যাম্পিয়নদের পেছনে ফেলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ ষোলতে পিএসজি।

গত মৌসুমে বার্সাকে বাগে পেয়েও হারাতে পারেনি। নেইমার-এমবাপেদের কাঁধে চেপে এবার ঠিকই রিয়ালকে হারানোর স্বপ্নে বিভোর পিএসজি শিবির। কোচ উনাই আমরি তো এরই মধ্যে বলেই দিয়েছেন, ‘গত মৌসুমের তুলনায় আমরা এবার অনেক বেশি প্রস্তুত। অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী।’

এই পিএসজির এই নতুন চেহারা দেখেই দুই দলকে পাল্টায় তুলে মাপার চেষ্টা করছে গণমাধ্যম। আসন্ন দ্বৈরথে কে এগিয়ে, রিয়াল নাকি পিএসজি, সেই গবেষণাই এখন চলছে। মজার ব্যাপার হলো, গণমাধ্যমের সেই গবেষণায় এই মুহূর্তে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রেকর্ড ১২ বারের শিরোপা জয়ী রিয়ালের চেয়ে কখনো শিরোপা না জেতা পিএসজিই এগিয়ে!

গণমাধ্যম, দুটো বিষয় নিয়ে দুই দলকে মাপার চেষ্টা করেছে। এক. দুই দলের সম্ভাব্য একাদশ। দুই, সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স। খেলোয়াড়দের নামের ওজনে রিয়ালই হয়তো কিছুটা এগিয়ে। দুই দলের সম্ভাব্য একাদশের দিকে দৃষ্টি দিলেই বিষয়টি পরিস্কার হয়ে যাবে। কেইলর নাভাস, নাচো, সার্জিও রামোস, ভারানে, মার্সেলো, কাসেমিরো, টন ক্রুস, লুকা মড্রিচ, ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, করিম বেনজেমা ও গ্যারেথ-এই হচ্ছে রিয়ালের সম্ভাব্য সেরা একাদশ।

বিপরীতে পিএসজির সম্ভাব্য সেরা একাদশ হচ্ছে-আরেওলা, দানি আলভেস, থিয়াগো সিলভা, মারকুইনহোস, কুরজাওয়া, থিয়াগো মোত্তা, মার্কো ভেরাত্তি, রাবিওত, কিলিয়ান এরমবাপে, এডিনসন কাভানি ও নেইমার।

একাদশের এই নামগুলোই বলছে কাগজে-কলমে রিয়ালই এগিয়ে। তবে পিএসজিও খুব পিছিয়ে নেই। তবে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বিবেচনায় পিএসজির ধারের কাছেও নয় জিনেদিন জিদানের রিয়াল।

ব্যর্থতার কানাগলি দিয়ে হাঁটা রিয়াল এরই মধ্যে লিগ ও কোপা ডেল রের শিরোপা দৌড় থেকে ছিটকে পড়েছে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগই এখন তাদের একমাত্র আশা, ভরসা। অন্যদিকে লিগ, লিগ কাপ, কোপ ডি লিগ-ফ্রান্সের সব ঘরোয়া টুর্নামেন্টেই শিরোপা দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে পিএসজি। নেইমার-এমবাপে ছোঁয়ায় বদলে যাওয়া পিএসজি চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও খেলছে দুর্দান্ত।

ফুটবলবোদ্ধাদের মতে, আসন্ন দ্বৈরথে মূল লড়াইটা হবে পিএসজির আক্রমণভাগের সঙ্গে রিয়ালের আক্রমণভাগের। সেখানেও সেখানেও রিয়াল নামে ভারি। পারফরম্যান্সে পিএসজি। রিয়ালের বিবিসি ত্রয়ী দুঃসময়ের ভেতর দিয়ে যাচ্ছেন। রোনালদো, বেল, বেনজেমা, কেউই সেভাবে গোলের বান ফোটাতে পারছেন না। তিনজনে মিলে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় গোল করেছেন মাত্র ৩৫টি! অন্যদিকে গোল-বন্যায় ভাসা পিএসজির আক্রমণভাগের তিন সৈনিক নেইমার, কাভানি ও এমবাপে মিলে গোল করেছেন ৬৮টি!

সব মিলে গণমাধ্যমের থার্মোমিটারে নেইমারদের পিএসজিই উপরে। তবে দ্বেরথটা যেহেতু চ্যাম্পিয়ন্স লিগে, তাই রিয়ালকেও পিছিয়ে রাখতে পারছে না। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ হলেই যে রিয়াল হয়ে উঠে অন্য দল।

কেআর

 
.


আলোচিত সংবাদ