ঘুম থেকে উঠে যে কাজ করা উচিত নয়

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ | ৮ কার্তিক ১৪২৫

ঘুম থেকে উঠে যে কাজ করা উচিত নয়

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:২০ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২১, ২০১৮

ঘুম থেকে উঠে যে কাজ করা উচিত নয়

ভোরে ঘুম ভেঙে গেছে। তারপরও মনে হয়, আরেকটু যদি ঘুমানো যেত। এরপর কিছুক্ষণ চলে গড়াগড়ি। কিন্তু, রাজ্যের সব কাজ পড়ে থাকার কথা মনে উঠতেই পড়িমড়ি করে বিছানা ছাড়া। জেনে রাখা ভালো ঘুম থেকে উঠে কিছু কা একদমই করা ঠিক নয়। কারণ, এর প্রভাব আমাদের পুরো দিনটার উপরই পড়ে। দেরি না করে চলুন জেনে নেই সেই সব অভ্যাস সম্পর্কে, যেগুলো সকালে উঠে করা মোটেও ঠিক নয়—

১. তাড়াহুড়ো নয়: সকাল শুরু করুন ধীরেসুস্থে। শরীর ও মনকে জেগে ওঠার সময় দিন। ঘুম ভাঙলেই উঠে বসুন এবং বিছানা ছাড়ুন। এতে ঘুমের সময় সুপ্ত থাকা শক্তির ভারসাম্য ঠিক থাকে।

২. পেশী শিথিল করুন: ঘুম থেকে ওঠার সময় আমাদের দেহের পেশীগুলো, বিশেষ করে মেরুদণ্ড শক্ত হয়ে থাকে। পেশীকে শিথিল ও সম্প্রসারণ করে দিন শুরু করলে বাকিটা সময় শরীর সতেজ থাকে। ঘুম ভাঙার পর তাই ধীরেসুস্থে নড়াচড়া করুন, হাত-পা ও দেহের অন্যান্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গের সন্ধিস্থলগুলো নাড়ান। তিন চারবার এমনটা করে কয়েকটা গভীর নিশ্বাস নিন।

৩. সকাল বেলাটা বিছানায় কাটাবেন না: সকালটা বিছানায় গড়াগড়ি করতে পছন্দ করেন অনেকেই। ঘুম থেকে উঠলে একটু ব্যায়ামের অভ্যাস কিন্তু খারাপ না। এতে শরীরও খুব ভালো থাকে। পাশাপাশি, দ্রুত ফ্যাটও কমে।

৪. নিকোটিন বা ক্যাফেইনের উষ্ণতা বাদ: অনেকেই দিনের শুরু করেন সিগারেট বা চা-কফি দিয়ে। এতে দিনের শুরুতেই কয়েক ঘণ্টার জন্য দেহের পুষ্টি গুণাগুণ থেমে থাকে। দিন শুরু করার সেরা উপায় হলো ফল বা সবজির রস পান, ধুমপান বা কফি পান নয়। খালি পেটে নিকোটিন বা ক্যাফেইন শরীরে ভীষণ ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।

৫. চা পানে দিনের শুরু নয়: শরীরের ভালো বিপাক ক্রিয়ার গোপন রহস্য হলো— চা পানের মধ্য দিয়ে দিনের শুরু না করা। অনেকেই ঘুম থেকে জেগেই চায়ের কাপ হাতে না নিলে শান্তি পান না। কিন্তু, দুধ-চিনিসহ বা ছাড়া চা-কফির বদলে লেবুর শরবত বা পানির মতো ক্ষারীয় কিছু দিয়ে দিন শুরু করুন। প্রয়োজনে কিছুক্ষণ পর সাদা, সবুজ বা কালো চা পান করুন দুধ-চিনি ছাড়াই।

৬. অন্ধকারে সকালটা কাটাবেন না: আমাদের শরীর আলোর সঙ্গে তাল মিলিয়েই ঘোরে। আলোর উপর শরীরে মেলাটোনিন হরমোন নিঃসরণ নির্ভর করে। এই হরমোনই শরীরকে বলে, কখন ঘুমানোর সময় এবং কখন জেগে উঠার। আলো বেশি থাকে বলেই কিন্তু গরম কালে জেগে উঠা সহজ হয়। সকালটা তাই উজ্জ্বল আলোতে কাটান। শরীরেরও পুরোপুরি জেগে উঠার কাজটা সহজ হবে।

৭. টেকনোলজি এড়িয়ে চলুন: সকালে উঠেই ফেসবুকে ঢোকা কিংবা ই-মেইল চেক অনেকের অব্যাস। এভাবেই প্রযুক্তি আমাদের স্বাভাবিক জীবনকে বাধাগ্রস্থ করছে। তাই যতটা পারা যায়, স্মার্টফোন, ল্যাপটপ কিংবা ট্যাব থেকে বিরত থাকুন।

৮. নাশতা বাদ নয়: সকালের নাশতা সময়মতো না করার সঙ্গে দেহের অতিরিক্ত ওজন, ডায়াবেটিস, দুর্বল বিপাকক্রিয়া ও হজমশক্তি ভালো না হওয়ার সম্পর্ক রয়েছে। আর সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত না হলে এর প্রভাব পড়ে মনেও। যদি সকালে নাশতা না করেন, তাহলে দিনভর সমস্ত খাবারই ভুল বাছাই করবেন। তাই রাজার হালে না খেলেও কিছু অন্তত সময়মতো খেয়ে নিন।

ইসি/আইএম