পপকর্নের যত গুণ!

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৫

পপকর্নের যত গুণ!

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ০৭, ২০১৮

print
পপকর্নের যত গুণ!

পপকর্নের ঘ্রাণটা শুঁকেছেন? কেমন একটা নেশা ধরিয়ে দেয়। ঘ্রাণটা একবার নাকে গেলেই মনে হয় এক টুকরো খেয়ে দেখি। আপনি যেখানেই যান না কেন। রাস্তা-ঘাটে বাসে পপকর্নের দেখা পাবেনই। সিনেমা হলে বসে বা কোথাও বেড়াতে গিয়ে অনেক সময় পপকর্ন খেতে ইচ্ছে করে আমাদের। এই খাবারটি মুখরোচক এবং এর একটি ছোট্ট উদ্দেশ্য সময় অতিবাহিত করা। ধরুন পার্কে প্রিয়জনের অপেক্ষায় বসে আছেন। সে আসছে না। আপনি চট করে এক প্যাকেট পপকর্ন কিনে খেতে শুরু করলেন। সময়টা কেটে গেল। কিন্তু পুষ্টি গবেষকরা এবার বলছে ভিন্ন কথা। তারা বলছে, পপকর্ন শুধুমাত্র টাইম পাস করার খাবার নয়। এর অনেক পুষ্টিগুণ আছে।

বাসায় নির্ভেজাল অর্গানিক কর্ন বা ভুট্টা থেকে তৈরি পপকর্ন কিন্তু বাইরের পপকর্নের চেয়েও বেশি স্বাস্থ্যকর। তবে কোনো ফ্লেভার ব্যবহার না করে পপকর্ন খাওয়া উচিত। চলুন জেনে নেই পপকর্ন আমাদের জন্য কতটা স্বাস্থ্যকর।

কোলেস্টেরল কমায়: পপকর্নে আঁশ থাকে, যা রক্তের কোলেস্টেরল কমায়। পপকর্ন হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের মতো কার্ডিওভাস্কুলার রোগের ঝুঁকি কমায়।

হজমে সহায়তা করে: পপকর্ন একটি পরিপূর্ণ খাদ্যশস্য। আর যেহেতু এতে আঁশের পরিমাণ বেশি, তাই এটি হজমে সহায়তা করে। এটি বাওয়েল মুভমেন্টে সহায়তা করে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

রক্তের সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণ করে: প্রচুর পরিমাণে আঁশ থাকার কারণে এটি রক্তের সুগার ও ইনসুলিন লেভেল নিয়ন্ত্রণ করে। এতে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে। তাই অর্গানিক পপকর্ন নিয়মিত খেলে ডায়াবেটিস থেকে মুক্ত থাকবেন আপনি।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে: পপকর্নে খুব শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট পলিফেলোনিক কম্পাউন্ড থাকে। ফলে এটি ক্যান্সার প্রতিহত করতে সাহায্য করে। এতে থাকা ফেরুলিক এসিড টিউমার প্রতিহত করে।

বয়সের ছাপ দূর করে: বয়স বেড়ে যাওয়ার কারণে চামড়া কুঁচকে যাওয়া, অন্ধত্ব, মাংসপেশির দুর্বলতা ও চুল পড়ে যাওয়া রোধ করে পপকর্ন। অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকার কারণে পপকর্ন আপনাকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে।

ওজন কমানো: পটেটো চিপসের তুলনায় ৫ গুণ কম ক্যালোরি থাকে পপকর্নে। এতে থাকা আঁশ আপনার ক্ষুধা কমায়। পপকর্নে খুব কম স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে। তাই ওজন কমাতে পপকর্ন খেতে পারেন।

হাড় মজবুত করে: পপকর্নে ফসফরাস থাকে যা হাড় মজবুত রাখে। এতে অনেক ম্যাঙ্গানিজ থাকে, যা হাড় গড়ে তুলতে ও সুস্থ রাখতে ভূমিকা রাখে। এই খনিজ ওস্টিওপরোসিস, আথ্রাইটিস ও ওস্টিওআথ্রাইটিসের মতো হাড়ের রোগ-প্রতিরোধ করে।

পরিপূর্ণ খাদ্যশস্য: পপকর্ন একমাত্র স্ন্যাক, যা ১০০ ভাগ অপ্রক্রিয়াজাত খাদ্যশস্য। পরিমাণ মতো পপকর্ন খেলে দিনের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্যশস্য খাওয়ার ৭০ ভাগ পূর্ণ হতে পারে। তাই নিয়মিত পপকর্ন খেতে পারেন আপনি।

পর্যাপ্ত আয়রন: পপকর্নে পর্যাপ্ত আয়রন আছে, যা নারী ও পুরুষের দেহের জন্য জরুরি। তাই ফ্রেশ ও অর্গানিক পপকর্ন খান নিয়মিত।

কমফোর্ট ফুড: পপকর্নে ভিটামিন বি, ভিটামিন বি থ্রি, বি সিক্স থাকে। ভিটামিন বি থ্রি যা নিয়াসিন নামে পরিচিত। এটি মানুষের হতাশা দূর করে বলে গবেষণায় জানা গেছে। তাই পপকর্নকে ‘কমফোর্ট ফুড’ও বলা হয়।

ইসি/বিএইচ/

 
.



আলোচিত সংবাদ