বদলি হজে কাকে পাঠানো যাবে?

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

বদলি হজে কাকে পাঠানো যাবে?

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৪২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৬, ২০১৯

বদলি হজে কাকে পাঠানো যাবে?

কোনো ব্যক্তির উপর হজ ফরয হওয়ার পর সে যদি বার্ধক্যজনিত শারীরিক অসামর্থ্যতা বা স্বাস্থ্যগত অক্ষমতার কারণে হজ সম্পাদনে অক্ষম হন কিংবা হজ আদায় করার আগেই মারা যান তবে উভয় অবস্থায় অন্যের মাধ্যমে হজ করানো জায়েয। শরীয়তের পরিভাষায় একে বদলি হজ বলা হয়। কেমন ব্যক্তিকে বদলি হজে পাঠানো যাবে তা নিম্নে প্রদত্ত হলো-

১। হানাফি মাজহাব অনুযায়ী যে ব্যক্তি এখনো নিজের হজ করেনি, সে-ও কারো পক্ষ থেকে বদলি হজ করতে পারবে, তবে মাকরুহ হবে।–আপকে মাসায়েল : ৪/৬৯

২। যে ব্যক্তি এখনো নিজের হজ করেনি, তাকে হজে পাঠানো মাকরুহে তানযিহী অর্থাৎ অনুত্তম। তার পরও যদি হজে যায়, তাহলে বদলি হজ আদায় হয়ে যাবে। অতএব, এমন মানুষকে পাঠানো উচিত, যে একবার হজ করেছে। চাই সে ধনী হোক বা দরিদ্র। এ বিষয়ে ধনী-দরিদ্রের পার্থক্য নেই। –আপকে মাসায়েল: ৪/৭৬; ফাতাওয়া দারুল উলুম: ৬/৫৭৩; কিতাবুল ফিকহ: ১/১৩২২

৩। কোনো নারীর পক্ষ থেকে বদলি হজ করাতে হলে অন্য নারী দিয়েই করাতে হবে এমন কোনো আবশ্যকতা নেই। বরং নারীর পক্ষ থেকে পুরুষও বদলি হজ করতে পারবে এবং পুরুষের পক্ষ থেকে নারীও হজ করতে পারবে।–আপকে মাসায়েল: ৪/৭৫

৪। নাবালেগ (অপ্রাপ্তবয়স্ক) বদলি হজ করতে পারবে না।–আপকে মাসায়েল: ৪/৭৭

৫। দাসও বদলি হজ করতে পারবে।–কিতাবুল ফিকহ: ১/১১৬৬

এমএফ/

 

ফতোয়া/মাসায়েল: আরও পড়ুন

আরও