লাইলাতুল কদর কবে হবে?

ঢাকা, ১০ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

বিষয় :

লাইলাতুল কদর

শবে কদর

২৭শে রাত

শেষ দশকের বেজোড় রাত

লাইলাতুল কদর কবে হবে?

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৪০ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০১৯

লাইলাতুল কদর কবে হবে?

আমাদের দেশে সাধারণত মানুষ শুধু রমযানের ২৭ তারিখ রাত জেগে ইবাদত বন্দেগী করে এবং এ রাতকেই লাইলাতুল কদর ধারণা করে। কিন্তু এ ধারণা, সুন্নতের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। কারণ, আয়েশা (রা.) হতে বর্ণিত হাদীসে এসেছে, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন,

“তোমরা রমযানের শেষ দশকের বেজোড় রাত্রিগুলোতে লাইলাতুল ক্বদর অনুসন্ধান করো।” (বুখারী)

একইভাবে আবু হুরায়রা (রা.) হতে বর্ণিত হাদীসে এসেছে, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, “স্বপ্নে আমাকে লাইলাতুল ক্বদ্‌র দেখানো হল। কিন্তু আমার এক স্ত্রী আমাকে ঘুম থেকে জাগিয়ে দেয়ায় আমি তা ভুলে গিয়েছি। অতএব, তোমরা তা রমযানের শেষ দশকে অনুসন্ধান করো।” (বুখারী)

তবে শেষ সাত দিনের বেজোড় রাতগুলোতে লাইলাতুল কদর হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। যেমন, নিম্নোক্ত হাদীসটি:

“ইবনে উমর (রা.) হতে বর্ণিত যে, কয়েকজন সাহাবী রমযানের শেষ সাত রাত্রিতে স্বপ্ন মারফত লাইলাতুল কদর হতে দেখেছেন। সাহাবীদের এ স্বপ্নের কথা জানতে পেরে নবী (সা.) বলেন: “আমি দেখছি তোমাদের স্বপ্নগুলো মিলে যাচ্ছে শেষ সাত রাত্রিতে। অতএব কেউ চাইলে শেষ সাত রাত্রিতে লাইলাতুল কদর অনুসন্ধান করতে পারে।” (সহীহ বুখারী ও মুসলিম)

এ মর্মে আরও হাদীস রয়েছে। কোন কোন সালাফে-সালেহীন ২৭তম রাত লাইলাতুল কদর হওয়ার অধিক সম্ভাবনাময় বলে উল্লেখ করেছেন। সাহাবীগণের মধ্যে ইবনে আব্বাস (রা.), মুআবিয়া (রা.), উবাই ইবনে কা’ব (রা.) এর মতামত থেকে এটাই বুঝা যায়।

কিন্তু নবীজি (সা.) থেকে এভাবে নির্দিষ্ট করে লাইলাতুল কদর হওয়ার কোন হাদীস নেই। তাই উপরোক্ত সাহবীদের কথার উপর ভিত্তি করে বড় জোর সাতাশে রাতে লাইলাতুল কদর হওয়াকে অধিক সম্ভাবনাময় বলা যেতে পারে। নিশ্চিতভাবে বলা সম্ভব নয়।

সঠিক কথা হল, লাইলাতুল কদর কখনো ২১, কখনো ২৩, কখনো ২৫, কখনো ২৭ আবার কখনো ২৯ রাতে হতে পারে।

সুতরাং শুধু ২৭ তারিখ নয় বরং কোন ব্যক্তি যদি রমযানের শেষ দশকের উপরোক্ত পাঁচটি রাত জাগ্রত হয়ে ইবাদত-বন্দেগী করে তবে নিশ্চিতভাবে লাইলাতুল কদর পাবে। কিন্তু শুধু সাতাশে রাত জাগলে লাইলাতুল কদর পাবে তার কোন নিশ্চয়তা নেই। বরং অন্যান্য রাত বাদ দিয়ে শুধু সাতাশ রাত উদযাপন করা বিদআতের অন্তর্ভূক্ত। বিশেষ করে আমাদের দেশে যেভাবে শুধু সাতাশ তারিখ নির্দিষ্ট করে নেয়া হয়েছে সেটা বিদআত ছাড়া অন্য কিছু নয়। তাই বিদআত বর্জন করে সুন্নতী পন্থায় আমল করা আমাদের জন্য অপরিহার্য।

এমএফ/ 

আরও পড়ুন...
ইতিকাফের তাৎপর্য ও জরুরী মাসায়েল
রমযানের শেষ দশক এবং হাজার মাসেরও শ্রেষ্ঠ একটি রাত
রমযানের গুরুত্বপূর্ণ চার শিক্ষা
অনন্য ফযীলতের রমাদান মাস
রমযান যাদের আল্লাহর সাথে মিলিয়ে দেয়
রোযা ও রমযান : ফাযায়েল ও জরুরি মাসায়েল
হাদিস থেকে রমযানুল মোবারকের বিশটি স্পেশাল আমল
ইতিকাফ সৌভাগ্যের সোপান
রমযানের রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের হাদিসটি শুদ্ধ নয়

 

ফতোয়া/মাসায়েল: আরও পড়ুন

আরও