রমযানের কাযা রোযার সংখ্যা মনে না থাকলে করণীয়

ঢাকা, ১ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

রমযানের কাযা রোযার সংখ্যা মনে না থাকলে করণীয়

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:৩৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

রমযানের কাযা রোযার সংখ্যা মনে না থাকলে করণীয়

প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। প্রথমেই জানিয়ে রাখছি যে, আমি একজন নারী। গত রমযানে অসুস্থতা ও প্রাকৃতিক কারণে আমি কিছু রোযা রাখতে পারিনি। রমযান মাসের পর একটি বা দুইটি আদায় করেছি। কিন্তু পরবর্তীতে দীর্ঘ বিরতির কারণে কয়টি রোযা কাযা হয়েছিল, আর কয়টি আদায় করা বাকী আছে তা সঠিকভাবে আর মনে করতে পারছি না। এখন আমার কী করণীয়?

উত্তর :
ওয়া আলাইকুমুস সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহ।

এক.
যিনি সফরের ওজর কিংবা রোগজনিত ওজর কিংবা হায়েয বা নিফাসজনিত ওজরের কারণে রমযানের কিছু রোযা রাখতে পারেননি তার উপর ওয়াজিব হল— সে রোযাগুলোর কাযা পালন করা। দলিল হচ্ছে আল্লাহ্‌র বাণী: “আর তোমাদের মধ্যে যে ব্যক্তি অসুস্থ থাকবে অথবা সফরে থাকবে সে অন্য দিনগুলোতে এ সংখ্যা পূর্ণ করবে।” – সূরা বাকারা, আয়াত নং : ১৮৪

আয়েশা (রাঃ) জিজ্ঞাসিত হয়েছিলেন: হায়েযের ক্ষেত্রে রোযা কাযা পালন করতে হয়; কিন্তু নামায কাযা পালন করতে হয় না কেন? জবাবে তিনি বলেন: “আমরা হায়েযগ্রস্ত হতাম; তখন আমাদেরকে রোযার কাযা পালন করার নির্দেশ দেয়া হত, কিন্তু নামাযের কাযা পালন করার নির্দেশ দেয়া হত না।” – সহীহ মুসলিম, হাদীস নং : ৩৩৫

দুই.
আপনি যদি কতদিনের রোযার কাযা পালন আপনার উপর বাকী রয়েছে তা ভুলে যান এবং আপনার সন্দেহ হয় যে, উদাহরণতঃ ছয়দিন কিংবা সাতদিন; তাহলে আপনার উপর কেবল ছয়দিনের রোযা কাযা পালন করাই আবশ্যক। কেননা, কম সংখ্যাটাই নিশ্চিত; বেশি সংখ্যাটা সন্দেহপূর্ণ। আর মূল বিধান হলো— দায়িত্বমুক্ত থাকা। তবে, যদি সতর্কতামূলক সাতদিন রোযা রাখেন তাহলে নিশ্চিতভাবে আপনার দায়িত্বমুক্ত হওয়ার জন্য এটাই উত্তম। কেননা যদি সপ্তম দিনটির রোযাও আপনার উপর ওয়াজিব থাকে তাহলে তো দায়িত্ব মুক্ত হলেন। আর যদি ওয়াজিব না হয়ে থাকে তাহলে সেটা নফল রোযা হিসেবে গণ্য হবে। আল্লাহ্‌ তাআলা কোন নেক আমলের প্রতিদান নষ্ট করেন না।

আর যদি আপনি কোন সংখ্যাই মনে করতে না পারেন তাহলে যতদিন রোযা রাখলে দায়িত্বমুক্ত হওয়া যাবে বলে আপনার প্রবল ধারণা হয়, ততদিন রোযা রাখবেন। আল্লাহ যথা সময়ে আবশ্যকীয় আমলগুলো আদায়ের তাওফীক দান করুন।

এমএফ/

আরও পড়ুন...
রোযা ও রমযান : ফাযায়েল ও জরুরি মাসায়েল
রমযান যাদের আল্লাহর সাথে মিলিয়ে দেয়
রমযানে কিভাবে হাসিল করব পূর্ণ রহমত, বরকত ও ফযিলত?
যাকাতের বছর পূর্ণ হলেও রমযানে আদায়ের জন্য বিলম্ব করা জায়েয কী?
সেহরি খাওয়া অবস্থায় আযান হয়ে গেলে যা করবেন
রমযানের রোযা কাযা থাকা অবস্থায় আশুরার রোযার কি হুকুম?


 

ফতোয়া/মাসায়েল: আরও পড়ুন

আরও