সোশ্যাল মিডিয়ায় সালামের জবাব দেওয়া কি জরুরী?

ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০১৯ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

বিষয় :

সালাম

সালামের জবাব

সোশ্যাল মিডিয়ায় সালামের জবাব

সোশ্যাল মিডিয়ায় সালামের জবাব দেওয়া কি জরুরী?

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:২৮ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০৯, ২০১৯

সোশ্যাল মিডিয়ায় সালামের জবাব দেওয়া কি জরুরী?

প্রশ্ন : আসসালামু আলাইকুম। আমরা কোন মুসলমানের সঙ্গে কথা বললে সালাম দিয়েই কথা শুরু করি। এটা কি সকল মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম – যেমন : টিভি, রেডিও, ফেসবুক-মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ, ইমো ইত্যাদিতেও দেওয়া জরুরী? যেখানে সালামের উত্তরদাতা স্ব-শরীরে উপস্থিত থাকে না? মিডিয়ায় সালাম শুনলে জওয়াব কিভাবে দিব এবং তা পৌঁছাবেই বা কি করে? কেউ যদি মুখে না বলে লিখে সালাম দেয় যা মেসেঞ্জার বা সোশ্যাল মিডিয়াতে সাধারণত করা হয়ে থাকে, তা কি লিখেই জবাব দিতে হবে? অথবা জবাব দেওয়াটা কি ওয়াজিব বা আবশ্যকীয়?

যেখানে সালাম পেশকারী একজন, উত্তরদাতা অনেকজন – যেমন কোন মাহফিল বা সেমিনারে বক্তা সালাম দিলেন, সেখানে উত্তর কি সবাইকে দিতে হবে, নাকি একজন বা কয়েকজন দিলে হয়ে যাবে? এক্ষেত্রে উত্তর দেওায় নিয়ম কি?

উত্তর :
ওয়া আলাইকুমুস সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহ।
মিডিয়াতে কোন কিছু প্রচার বা পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে কিছু বলার পূর্বেও সালাম দেওয়া উচিত এবং এটা শিষ্টাচারের অন্তর্ভুক্ত। তবে সরাসরি সম্প্রচার না হলে শ্রোতাদের জন্য তার জবাব দেওয়া ওয়াজিব নয়। আর সরাসরি সম্প্রচার হলে সেক্ষেত্রে জবাব দেওয়া কর্তব্য। তবে তা সালামদাতাকে শুনিয়ে দেওয়া জরুরী নয়।

অনুরূপভাবে চিঠি বা সোশ্যাল মিডিয়ায় যেমন- ফেসবুক, মেসেঞ্জার, টুইটার, ইমো, হোয়াটসঅ্যাপ ইত্যাদিতে সালাম দিলে তার জবাবও দেওয়া ওয়াজিব। এই জবাব লিখিতভাবে সোশ্যাল মিডিয়াতেও হতে পারে অথবা সরাসরি মৌখিকভাবেও হতে পারে। এমন নয় যে, পত্রের জবাব কেবল পত্রের মাধ্যমেই অথবা সোশ্যাল মিডিয়ার জবাব কেবল সোশ্যাল মিডিয়াতেই দিতে হবে।- ফাতাওয়া মাহমূদিয়া ১৯/৮৪, ৮৫

সালাম প্রদানকারী একজন ও উত্তরদাতা একাধিক হলে একজন জবাব দিলেই সবার পক্ষ থেকে আদায় হয়ে যাবে।

উত্তর প্রদান করেছেন - মুফতি আবুল হুসাইন, প্রধান মুফতি ও মুহাদ্দিস, আল-জামেয়াতুল ইসলামিয়া আশরাফুল উলূম মাদরাসা, নড়াইল।

এমএফ/

আরও পড়ুন...
ব্যভিচারী পুরুষ পবিত্র নারীকে বিবাহ করতে পারবে কী?
সূরা মুখস্ত নেই, এমন ব্যক্তি কীভাবে নামায পড়বে?
নামাযে যে ভুলগুলো হলে সিজদায়ে সাহু করবেন
বিয়ের সামর্থ্য নেই, কীভাবে পাপমুক্ত থাকবো?
বারবার তওবার পরে গুনাহ হতে থাকলে করণীয়
ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত সুদ কি দান করা যাবে?