রমযানের রোযা কাযা থাকা অবস্থায় আশুরার রোযার কি হুকুম?

ঢাকা, ১৬ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

রমযানের রোযা কাযা থাকা অবস্থায় আশুরার রোযার কি হুকুম?

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:১৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৮

রমযানের রোযা কাযা থাকা অবস্থায় আশুরার রোযার কি হুকুম?

রমযানের রোযা কাযা হয়ে থাকলে তা অনাদায়ি থাকা অবস্থায় নফল রোযা রাখা হানাফি আলেমগণের নিকট জায়েয হবে। কেননা রমযানের কাযা সম্পন্ন করা তাৎক্ষণিকভাবে ওয়াজিব নয়। বিলম্বে আদায় করারও অবকাশ আছে।

শাফেয়ি ও মালেকি মাযহাবের আলেমগণের নিকটও জায়েয তবে মাকরূহ হবে। কারণ এতে ওয়াজিব আদায় বিলম্বিত হয়।

আল্লামা দুসূকি রহ. বলেন, মান্নত, কাযা ও কাফ্ফারা জাতীয় ওয়াজিব রোযা অনাদায়ি রেখে নফল রোযা পালন করা মাকরূহ। সে নফল রোযাটি গাইরে মুআক্কাদাহ হোক কিংবা মুআক্কাদাহ যেমন আশুরা ও জিলহজের নয় তারিখের রোযা ইত্যাদি।

হাম্বলি ইমামগণের মতে রমযানের কাযা আদায় করার পূর্বে নফল রোযা পালন করা হারাম। এমতাবস্থায় কেউ নফল রোযা রাখলে সহিহ হবে না এমনকি পরবর্তীতে কাযা আদায় করার মত পর্যাপ্ত সময় থাকলেও। বরং আগে ফরয আদায় করতে হবে। -আল মওসুআতুল ফিকহিয়্যাহ, খন্ড ২৮, সওমুত তাতাব্বু’

সুতরাং প্রতিটি মুসলমানের কর্তব্য হচ্ছে, রমযানের পরপরই বিলম্ব না করে কাযা সম্পন্ন করে নেওয়া। যাতে কোনোরূপ সমস্যা ছাড়াই আরাফা ও আশুরার রোযা পালনের সুযোগ পাওয়া যায়। কেউ যদি আরাফা ও আশুরার রোযায় কাযা আদায়ের নিয়ত করে -এবং এ নিয়ত রাত্র হতেই করে- তাহলে সেটি তার জন্য যথেষ্ট হবে। অর্থাৎ তার কাযা আদায় হয়ে যাবে। আল্লাহর করুণা অনেক বিশাল।

এমএফ/

আরও পড়ুন...
আশুরার রোযা কেমন গুনাহের জন্য কাফফারা হবে?
আশুরার রোযা কবে, কয়টি রাখবেন?
কারবালার ঘটনাকে কিভাবে মূল্যায়ন করবেন?
কারবালা নিয়ে ভিত্তিহীন কিছু কথা
আশুরায় কী পালন করবেন?
মুহাররম মাস : ফযিলত, আমল ও বিদআত
সুন্নাহর আলোকে মুহাররম মাসের আমল
হাদিসে বর্ণিত আশুরার ইতিহাস
হুসাইন (রা.)-এর শাহাদাতের প্রকৃত ইতিহাস

 

ফতোয়া/মাসায়েল: আরও পড়ুন

আরও