পুরুষের ফ্যাশন হোক স্বাচ্ছন্দ্যময়

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পুরুষের ফ্যাশন হোক স্বাচ্ছন্দ্যময়

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:১৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৯, ২০১৯

পুরুষের ফ্যাশন হোক স্বাচ্ছন্দ্যময়

নারী- পুরুষের সৌন্দর্যের সংজ্ঞা এখন বেঁধে দিয়েছে বাজার। বাজারে চলতি ট্রেন্ড ঠিক করে দেয় কেমন দেখাবে আপনাকে। তবে পুরুষের সৌন্দর্য ও ফ্যাশন নির্ভর করে নিজের ওপরই।

ফ্যাশনের ক্ষেত্রে ২টি বিষয়ে লক্ষ্য রাখা প্রয়োজন। একটি ব্যক্তিগত স্বাচ্ছন্দ্য, অন্যটি পরিবেশগত স্বাচ্ছন্দ্য। আপনার ফ্যাশন এমন হওয়া উচিত যা আপনার আশপাশের মানুষের চোখে বিরক্তির সৃষ্টি না করে।

রবীন্দ্রসঙ্গীতের অনুষ্ঠানে যেমন ডিজে পার্টির পোশাক পরে যেতে পারবেন না। তেমন বিয়ের পোশাক পরে অফিসেও যাওয়া যাবে না।

পেশা, শিক্ষা ও মানে ফ্যাশন ভাগ হবে। ব্যবসায়ী হলে একরকম পোশাক। কর্পোরেট কর্মকর্তা তখন একরকম আবার যখন সে কবি সাহিত্যিক তখন আরেকরকম।

পুরুষের ফ্যাশন কেমন হতে পারে সেসম্পর্কে ধারণা পেতে জেনে নিন নিচের বিষয়গুলো।

আপনাকে যে পোশাকে বা লুকে মানাচ্ছে সেটিই আপনার ফ্যাশন। বাজার চলতি ট্রেন্ডে গা ভাসাবেন না। ট্রেন্ড বদল করে যদি আপনাকে মানায় তাহলেই সেই ফ্যাশন আপনার।

ফ্যাশনের ধরাবাঁধা কোনো নিয়ম নেই। ফ্যাশন শুধু পোশাকে নয়, ফ্যাশন রয়েছে ব্যক্তিত্বেও। আপনি সুন্দর পরিপাটি করে পোশাক পড়ে আজেবাজে কথা বলছেন, গালিগালাজ করছেন, সেক্ষেত্রে ফ্যাশন ওখানেই শেষ। আপনার ব্যক্তিত্বই আপনাকে করে তুলবে সুন্দর পুরুষ।

পরিপাটি থাকাটা ফ্যাশনের আওতায় পড়ে না। সুন্দর করে চুল আঁচড়ানো, নিজের ত্বকের যত্ন নেওয়া, শেভ করা এগুলো ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতার বিষয়। সুস্থ থাকতে এগুলো করতেই হবে।

পুরুষের সৌন্দর্য পুরুষালি আচরণে। পুরুষ হয়ে সিগারেট, মদ খাওয়া ও নারীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার কিন্তু পুরুষালি আচরণ নয়। পুরুষের সৌন্দর্য মানে একজন পুরুষের সুস্থ শরীর, ইতিবাচক আচরণ এবং তার ব্যক্তিত্ব।

নিজেই বিবেচনা করে দেখুন কেমন হতে পারে আপনার ফ্যাশন ও সৌন্দর্য।

অন্যের কাছে নিজের ব্যক্তিত ধরে রাখার জন্য এড়িয়ে চলুন এই বিষয়গুলোঃ

অনেক ঢোলা শার্ট বা স্যুট:
ফর্মাল লুকে ছেলেদের সব চাইতে বেশি আকর্ষণীয় দেখায়। কিন্তু আপনি যদি অনেক ঢোলা ধরণের ফর্মাল শার্ট পরে ফর্মাল লুকে আসতে চান তবে তা একেবারেই আকর্ষণীয় হবে না। অনেক ঢোলা শার্ট বা স্যুট মেয়েদের কাছে একেবারেই অপছন্দের। তাই নিজের জন্য সঠিক আকারের শার্ট বা স্যুট খুঁজুন।

পাতলা কাপড়ের পোশাক:
অনেকে মনে করতে পারেন পাতলা কাপড়ে তৈরি পোশাক পরে নিজেদের শরীরের এবং ভেতরের আন্ডারগার্মেন্টসের খানিকটা আবছা অবয়ব দেখতে বেশ লাগে। কিন্তু জেনে রাখুন মেয়েদের কাছে এই জিনিসটি সব চাইতে বেশি অপছন্দের। পাতলা কাপড়, যার ভেতর দিয়ে আপনার আন্ডারগার্মেন্টস দেখা যায় এই ধরণের পোশাক পরবেন না।

পোশাকের সাথে মেলে না এমন মোজা:
ওপরে ফিটফাট থাকার পাশাপাশি পরিপাটি থাকতে হবে ভেতরেও। অনেকেই আছেন জুতো এবং প্যান্টের ভেতর দিয়ে মোজা দেখা যাবে না চিন্তা করে উদ্ভট এবং অদ্ভুত রঙের মোজা পরে বসে থাকেন যা পোশাকের সাথে একেবারেই বেমানান। এই ভুল কাজটিও মেয়েদের পছন্দ নয় একেবারেই।

ম্যাচিং করে কাপড় পরা
মেয়েরা ম্যাচিং করে কাপড় পরতে অনেক বেশি পছন্দ করে থাকেন, কিন্তু ছেলেদের কাপড় ম্যাচিং করে পরার বিষয়টা মেয়েদের কাছে একেবারেই অপছন্দের। আপনি যদি সাদা শার্ট পরে তার সাথে সাদা প্যান্ট পরে নিজেকে অনেক স্মার্ট ভাবতে থাকেন তবে আপনি ভুল করছেন।

চকচকে কাপড়:
ছেলেদের ফ্যাশনের আরেকটি ভুল যা মেয়েদের কাছে একেবারেই অপছন্দের তা হলো চকচকে কিংবা ঝলমলে কাপড়ের পোশাক অথবা ঝলমলে ডিজাইন করা পোশাক। এই ধরণের পোশাক থেকে ১০০ হাত দূরে থাকাই ভালো ছেলেদের জন্য।

ঘামের গন্ধযুক্ত এবং কুঁচকে থাকা কাপড়:
মেয়েরা স্টাইলিশ লুকের ছেলে অনেক বেশি পছন্দ করেন। আর স্টাইলিশ থাকতে আপনাকে অনেক দামী পোশাক পরতে হবে না। আপনি যে পোশাকই পরুন না কেনো তা অবশ্যই পরিষ্কার এবং পরিপাটি করে ইস্ত্রি করা থাকা প্রয়োজন। নতুবা আপনি যতো দামী পোশাকই পরুন না কেন আপনাকে আনস্মার্টই দেখাবে।

অতিরিক্ত টাইট পোশাক:
অতিরিক্ত ঢিলে পোশাক যেমন অপছন্দ মেয়েদের তেমনই অপছন্দ অতিরিক্ত টাইট পোশাক। আপনি যদি নিজের বাইসেপ দেখানোর জন্য অনেক টাইট পোশাক পরেন তবে সেটিও আপনাকে আকর্ষণীয় করে তুলতে পারবে না একেবারেই।

নিচু করে প্যান্ট পরা:
ছেলেদের ইদানীংয়ের ফ্যাশনে প্যান্ট নিচু করে পরার স্টাইল চলে আসছে। সমস্যা হলো ছেলেরা ভাবেন এই জিনিসটিতে তাদের অনেক স্মার্ট দেখায় কিন্তু মূল ব্যাপারটি এর ঠিক উল্টো। প্যান্ট নিচু করে পরে আণ্ডারওয়্যার দেখানো মোটেও মেয়েদের কাছে আকর্ষণীয় কিছু নয়।

ইসি/

 

 

ফ্যাশন: আরও পড়ুন

আরও