আধুনিক ফ্যাশনই আপনার ক্ষতির কারণ

ঢাকা, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

আধুনিক ফ্যাশনই আপনার ক্ষতির কারণ

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৫৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০১৯

আধুনিক ফ্যাশনই আপনার ক্ষতির কারণ

অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় মানুষ এখন অনেক ফ্যাশন সচেতন। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে কারোরই চেষ্টার কমতি নেই। বিশেষ করে যারা স্কুল – কলেজের সবে উঠতি তরুণ-তরুণী, তাদের মধ্যে এই প্রবণতা সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। বাকিদের মধ্যে যে এই প্রবনতা থাকে না, এমনটা কিন্তু নয়।

কখনো কি ভেবে দেখেছেন এই ফ্যাশন আপনার ক্ষতি করছে কিনা? জেনে নিন এমন কিছু তথ্য যা হয়তো আপনার কাজে লেগে যেতে পারে।

টাইট জিন্স অনেকক্ষণ পড়ে থাকা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এতে পায়ের পেশীতে রক্ত সঞ্চালনে বাধাপ্রাপ্ত হয়। এছাড়া ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতা বজায় না রাখলে টাইট জিন্স থেকে মেয়েদের ইউরিন ইনফেকশন হওয়ারও সম্ভাবনা থাকে।

চোখকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে অনেকেই চোখে ফলস আইল্যাশ (কৃত্রিম চোখের পাপড়ি) ব্যবহার করেন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে বা প্রায়ই কৃত্রিম পাপড়ি ব্যবহারের  ফলে আসল চোখের পাপড়িই ঝরে পরে যেতে পারে!

ফ্যাশনের সাথে তাল মেলাতে, নিজেকে আরো আকর্ষণীয় দেখাতে মেয়েরা এবং ছেলেরাও চুলে পার্মানেন্ট কালার করিয়ে থাকেন। তবে আপনি জানেন কি, হেয়ার কালারে থাকা কিছু কেমিক্যাল এর সাথে ক্যানসারের যোগসূত্র খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। দীর্ঘদিন ধরে হেয়ার কালার ব্যবহারে ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

ট্যাটু করা ইদানিং তরুণ-তরুণীদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তবে এই ট্যাটু যদি সঠিকভাবে না করা হয় তবে অ্যালার্জি ও ইনফেকশন হতে পারে। এছাড়া ট্যাটুর কালি লিম্ফ নোডে পৌঁছে বিভিন্ন জটিলতা তৈরি করতে পারে। 

ওজন কমাতে গিয়ে ডায়েটের নামে কেউ কেউ খাওয়া-দাওয়াই ছেড়ে দেন। ডায়েট বলতে বোঝায় পরিমিত খাবারের সুষম বন্টন। কিন্তু খাবার না খেয়ে ওজন কমাতে যাওয়া বোকামি। এর ফলে শরীরে ভিটামিনের ঘাটতি দেখা দেয়, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় এবং সহজেই রোগাক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

ফ্যাশন সচেতনতা যেন স্বাস্থ্য সচেতনতার পথে বাধা না হয়ে দাঁড়ায় সে দিয়ে খেয়াল রাখা উচিত। কারণ ফ্যাশনের ধারায় তাল মেলাতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়া আমাদের কারোরই কাম্য নয়। কারণ সুস্থ দেহ আর সুন্দর স্বাস্থ্যই সুখের মুল মন্ত্র!

ইসি/

 

ফ্যাশন: আরও পড়ুন

আরও