চকলেটের মোড়ক দিয়ে তৈরি পোশাক!

ঢাকা, ৮ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

চকলেটের মোড়ক দিয়ে তৈরি পোশাক!

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০১৯

চকলেটের মোড়ক দিয়ে তৈরি পোশাক!

চকলেট খুব পছন্দের খাবার? যখন যেখানে চকলেট পান কিনেই মোড়ক খুলে খাওয়া শুরু করে দেন, তাই না? আচ্ছা চকলেট তো খেয়েই ফেলেন। কিন্তু মোড়কটার কি করেন? মনে করতে পারবেন, যত চকলেট খেয়েছেন কোথায় কীভাবে চকলেটের মোড়কটা ফেলেছেন? যতটা আগ্রহ নিয়ে আমরা চকলেট খেয়ে থাকি এর প্যাকেট বা মোড়ক ঠিক ততটাই অবজ্ঞাভরে ছুড়ে ফেলি। কিন্তু এই তুচ্ছ জিনিটাকেও যে কাজে লাগানো যায় সে কথাই প্রমাণ করলেন যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়ার এক নারী।

এমিলি সিলহেমার নামের এই নারী চকলেটের মোড়ক জমিয়ে তৈরি করেছেন চমৎকার একটি জামা। তবে এই মোড়কগুলো সংগ্রহ করতে তার অনেক সময়ও লেগেছে।

এমিলি যখন কলেজে পড়তেন তখন থেকেই চকলেটের মোড়ক সংগ্রহ শুরু করেন। বিশ্ববিদ্যালের গণ্ডি পেরিয়ে এখন তিনি বিবাহিত। মাঝের সময়টা প্রায় ৬ বছরের। আর এই দীর্ঘ সময় ধরে তিনি একটি একটি করে নানা রংয়ের প্রায় ১০ হাজার স্টারবার্স্ট চকলেটের প্যাকেট জমিয়ে জামাটি তৈরি করেছেন।

কিন্তু এতো কিছু থাকতে চকলেটের ফেলে দেওয়া মোড়ক দিয়ে জামা তৈরির মতো অদ্ভুত ধারণা তার মাথায় কীভাবে এলো? এবিসি নিউজের করা এক প্রশ্নের জবাবে এমিলি জানান, ‘আমার স্বামী ম্যালাচি। সে স্টারবার্স্ট চকলেট খুব পছন্দ করে। কলেজে পড়ার সময়ে প্রথম পরিচয়ের দিন ম্যালাচি আমাকে এক প্যাকেট স্টারবার্স্ট চকলেট উপহার দেয়। এরপর থেকে যখনই আমরা দেখা করতাম ম্যালাচি আমার জন্য চকলেট নিয়ে আসতো। কিছুদিন পর চকলেটের সুন্দর পানি নিরোধক মোড়কগুলো থেকে জামা তৈরির পরিকল্পনা করি। এরপর থেকে আমার স্বামী প্রতি সপ্তাহে আমার জন্য ব্যাগভর্তি চকলেটের প্যাকেট নিয়ে আসতো। এভাবে স্বামী, বন্ধু ও কাছের আত্মীয়দের কাছ থেকে মোড়ক সংগ্রহ করেছি।’

তবে প্যাকেট সংগ্রহ থেকে জামা তৈরি পর্যন্ত নানা বিড়ম্ববনার কথাও তিনি স্বীকার করেছেন। কারণ চকলেটের মোড়কগুলো সাধারণ সুতার মতো নরম নয়। ফলে মোড়কগুলোকে ইলাস্টিকের সুতা দিয়ে সেলাই করতে হয়েছে। তাছাড়া প্যাকেটের রং মিলানো ছিল অত্যন্ত ধৈর্যের কাজ। কারণ দীর্ঘ এই সময়ের মধ্যে স্টারবার্স্ট কোম্পানি তার চকলেটের প্যাকেটের রং অনেকবার পরিবর্তন করেছে। তখন তাকে অত্যন্ত পরিশ্রম করে একই রংয়ের মোড়কগুলো সংগ্রহ করতে হয়েছে।

ইতিমধ্যে এমিলির তৈরি জামাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভালো সাড়া ফেলেছে। অনেকেই এরকম তুচ্ছ জিনিস ফেলে না দিয়ে তা দিয়ে ভিন্ন কিছু তৈরির ব্যাপারে উৎসাহিত হয়েছেন।

সূত্র: abcnews.go.com

ইসি/

 

ফ্যাশন: আরও পড়ুন

আরও