বর্ষার থাবা থেকে যত্নে রাখুন হাত

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯ | ৫ আষাঢ় ১৪২৬

বর্ষার থাবা থেকে যত্নে রাখুন হাত

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৪৬ পূর্বাহ্ণ, জুন ১০, ২০১৯

বর্ষার থাবা থেকে যত্নে রাখুন হাত

বর্ষায় শুধু ত্বক, চুল আর পায়ের যত্ন নিলেই হবে না। সমানভাবে হাতেরও যত্ন বিশেষ জরুরি। একটানা বৃষ্টির পানিতে হাত ভেজা। আবার একবার ভেজা একবার শুকানো। এতে হাতে ত্বকের উপর অনেক খারাপ ভাবে প্রভাব পরে। যা আমরা হুট করে আমরা বুঝতে পারি না। কিন্তু পরে এর প্রাভাব ঠিকই টের পাই। আর যেহেতু হাত দিয়ে আমাদের সব কাজ করতে হয় তাই হাতের অতিরিক্ত যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। তাই আসুন এই বর্ষায় হাতের যত্ন কিভাবে নিতে হবে জেনে নেই।

হাতে ময়েশ্চরাইজার লাগাতে ভুলবেন না। এসির মধ্যে থাকলে কিছুক্ষণ পরপর ক্রিম লাগান, এতে হাতের চামড়া নরম থাকবে।

রান্নাঘরে কাজের সময় গ্লাভস পরুন। তবে গ্লাভস পরার আগে হাতে ক্রিম বা তেল মেখে নেবেন।

কাজকর্ম সেরে হাতে লেবুর রস ও চিনি মিশিয়ে ঘষে নিন, এতে সব নোংরা ও কালো ছোপ উঠে যাবে। হাতের চামড়া নরম ও উজ্জ্বল হবে

জীবানু মারতে কয়েক ফোঁটা লবঙ্গ তেল, অবসর সময়ে কিছুক্ষণের জন্য ম্যাসাজ করলেই নিশ্চিন্ত।

এক-দু চামচ মধু, সম পরিমাণ কেওলিন পাউডার, শশার রস মিশিয়ে মাখুন।

ডিমের কুসুম ও ফিটকিরি ভালো করে ফেটিয়ে নখে লাগালে নখ উজ্জ্বল হবে।

ডিমের সাদা অংশ ও কেওলিন পাউডারের পেস্ট লাগালে হাতের ত্বক টানটান থাকে।

এক চামচ অলিভ ওয়েল, দু চামচ ময়দা, দু চামচ দুধ মিলিয়ে লাগালে হাতের চামড়ায় ঔজ্জ্বল্য আসে।

দুধের সর ও হলুদ মিশিয়ে লাগালে হাতে ফাঙ্গাসের সংক্রমণ আটকানো যায়।

এক চামচ কর্পূরের সঙ্গে তিলের তেল মিশিয়ে লাগালে বর্ষায় হাতে খসখসে ভাব কমবে।

বর্ষায় হাত চুলকায়, তাই ক্লোভ ওয়েলের সঙ্গে চন্দন মিশিয়ে লাগালে হাত আর চুলকাবে না।

লাউ বাটা, গ্লিসারিন ও আটাভুসি মিশিয়ে লাগালে হাত নরম ও সতেজ থাকে।

জলপাই তেলের সঙ্গে, শাঁখের গুড়ো মিশিয়ে লাগালে হাতের মরা কোষ উঠে যাবে। হাত হবে তরতাজা।

অনেকেই নানান ব্যস্ততায় বিউটি পার্লারে যাওয়ার সময় পান না। তবে পার্লারে যাওয়ার সময় না পেলেও হাতের যত্ন নিতে কিন্তু ভুলবেন না। ছোট্ট কিছু জিনিস মাথায় রাখলে বাড়িতে বসেও আপনি হাতের যত্ন নিতে পারবেন।

রিমুভার দিয়ে পুরনো নেলপালিশ তুলে ফেলুন। নেল কাটার দিয়ে নখ কাটুন। এরপর নেল ফাইল দিয়ে হালকা করে ঘষে নিন, এতে একটা শেপ আসবে। গামলায় উষ্ণ পানি নিয়ে সামান্য বডি ওয়াশ ফেলুন। এরপর ওই পানিতে মিনিট দশেক হাত ডুবিয়ে রাখুন। গরম পানিতে হাত ঘষে ঘষে ধুয়ে ফেলুন, নখের ওপরে নেল সফ্টনার দিয়ে, নেল প্রেশারের সাহায্যের নখের কোনা পরিষ্কার করতে হবে। যাতে নখের ওপর হাফ চাঁদের মতো অংশ পরিষ্কার হয়। নখের নিচে ও কোণে জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার করতে হবে। কিউটিকল কাটার দিয়ে নখের পাশে কিউটিকলগুলো কেটে ফেলতে হবে। একটু গরম অলিভ ওয়েল বা ভালো হ্যান্ড ক্রিম দিয়ে মাসাজ করুন, তারপর ধুয়ে নিন। নেলপালিশ লাগানোর আগে নেল বেস কোড লাগিয়ে নেলপলিশ লাগাবেন।

ইসি/