আগাম ভোটে ফের ব্যর্থ বরিস, সংসদ মুলতবি

ঢাকা, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

আগাম ভোটে ফের ব্যর্থ বরিস, সংসদ মুলতবি

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

আগাম ভোটে ফের ব্যর্থ বরিস, সংসদ মুলতবি

ব্রেক্সিট ইস্যুতে দ্বিতীয় দফায় যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের আগাম নির্বাচনের প্রস্তাব নাকচ হয়ে গেছে। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সে স্থানীয় সময় সোমবার তার প্রস্তাবের পক্ষে-বিপক্ষে ভোটাভুটি হয়।

এতে ২৯৩ এমপি প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন। আর বিপক্ষে ভোট পড়ে ৪৬টি। কিন্তু আগাম নির্বাচনের জন্য দুই-তৃতীয়াংশ বা ৪৩৪ এমপির ভোট দরকার ছিল প্রধানমন্ত্রীর।

পার্লামেন্টে দীর্ঘ তর্ক-বিতর্ক আর কাগজপত্র ছুড়ে মারা নিয়ে হট্টগোলের পর প্রস্তাব ভোটাভুটিতে দেওয়া হয়। আগাম নির্বাচনের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন তার প্রস্তাবকে সমর্থন দেয়ার অনুরোধ জানান। কিন্তু বিরোধী দলগুলোর জোট ইউনাইটেড ফ্রন্ট মুহূর্তে সংসদে প্রধানমন্ত্রীকে আরেক দফা পরাজয়ের স্বাদ দেয়।

এরপরই পার্লামেন্ট ৫ সপ্তাহের (১৪ অক্টোবর পর্যন্ত) জন্য মুলতবি করেন হাউস অব কমন্সের স্পিকার জন বার্কো। তিনি অবশ্য গতকালই স্পিকার পদ থেকে ব্রেক্সিট কার্যকরের ৩১ অক্টোবর অথবা আগে যদি আগাম নির্বাচন হয়, সেদিন পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন।

ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ইতিহাসে এত দীর্ঘ সময়ের জন্য মুলতবির ঘটনা আগে ঘটেনি। এর ফলে কার্যত ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বিচ্ছিন্ন হওয়ার কোনো পথই তৈরি করতে পারলেন না বরিস জনসন।

এখন এমপিরা অপেক্ষা করবেন রানীর ভাষণের জন্য। তিনি মধ্য অক্টোবরে ভাষণ দিবেন। তার আগেই অবশ্য ব্রিটিশ রাজনীতিকদের এই ইস্যুতে নানা কসরত দেখা যাবে বলে বিশ্লেষকরা মন্তব্য করেছেন।

চুক্তি হোক বা না হোক ৩১ অক্টোবরই ইইউ যুক্তরাজ্য বিচ্ছিন্ন হবে- এমনটি চান প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। কিন্তু তার এই পদক্ষেপের বিরোধিতা করে এমপিরা ২০২০ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত ব্রেক্সিট বিলম্বের জন্য সময়ে চেয়ে সংসদে প্রস্তাব আনেন।

ফলে বরিস জনসনের সামনে একমাত্র পথ খোলা ছিল আগাম নির্বাচন। সেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে তিনি ব্রেক্সিট কার্যকর করতে পারতেন। এজন্যই গত ৪ সেপ্টেম্বর প্রথম দফা হাউস অব কমন্সে আগাম নির্বাচনের প্রস্তাব করেন। কিন্তু সেদিনও তার প্রস্তাবের পক্ষে যথেষ্ট সাড়া মেলেনি। সোমবারও একই অবস্থা হলো।

ওএস

 

ইউরোপ: আরও পড়ুন

আরও