ট্রাম্পের সমালোচক রাষ্ট্রদূতকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর ‘পূর্ণ সমর্থন’

ঢাকা, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

ট্রাম্পের সমালোচক রাষ্ট্রদূতকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর ‘পূর্ণ সমর্থন’

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৯, ২০১৯

ট্রাম্পের সমালোচক রাষ্ট্রদূতকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর ‘পূর্ণ সমর্থন’

ফাঁস হয়ে যাওয়া কূটনৈতিক বার্তার কারণে মার্কিন প্রেসিডেন্টের তীব্র সমালোচনার মুখেও ওয়াশিংটনে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতকে মঙ্গলবার ‘পূর্ণ সমর্থন’ দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে।

ফাঁস হয়ে যাওয়ায় এসব বার্তায় ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত কিম ডারোক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ‘অযোগ্য’ বলে অভিহিত করেছেন এবং তার প্রশাসন ‘তুলনাহীন ভাবে অকার্যকর’ বলে মন্তব্য করেন। এই ঘটনার পর ট্রাম্প ডারোককে ‘পাগলাটে রাষ্ট্রদূত’ হিসেবে অভিহিত পাল্টা সমালোচনা করেন।

থেরেসা মে’র মুখপাত্র জানান, গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীদের এক সভায় মে বলেছেন, ডারোক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর পূর্ণ সমর্থন নিয়েই তার দায়িত্ব পালন করে যাবেন।

আগে সোমবার ট্রাম্প বলেছিলেন, তিনি আর ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে কোনও প্রকার কাজ কারবার করবেন না। এতে ডারোককে যুক্তরাষ্ট্রে কূটনৈতিক ভাবে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করা না হওয়ায় এর প্রভাব কী হবে তা স্পষ্ট নয়।

মঙ্গলবার ট্রাম্প বিষয়টি নিয়ে একাধিক টুইট করেছেন। এগুলোতে তিনি ডারোককে, ‘অত্যন্ত আহাম্মক লোক’ ও ‘আত্মম্ভরি বোকা’ হিসেবে অভিহিত করেন।

রাষ্ট্রদূতের ইমেইল ফাঁস হয়ে যাওয়ার ঘটনা গ্রহণযোগ্য নয়, এটাও মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে পুনর্ব্যক্ত করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

রোববার ব্রিটিশ পত্রিকা মেইল অন সানডেতে ডারোকের ইমেইল ফাঁস হওয়ার ঘটনা প্রকাশ করা হয়। লন্ডনে পাঠানো এসব ইমেইলে ট্রাম্পের প্রশাসন ‘কূটনৈতিক ভাবে অবিচক্ষণ ও অদক্ষ’ বলে মন্তব্য করেন ডারোক।

এরপর ব্রিটেন জানায়, ডারোকের মন্তব্য তার ব্যক্তিগত বিষয় এবং এগুলো ট্রাম্পের প্রশাসন সম্পর্কে ব্রিটেনের মনোভাবের প্রতিফলন নয়। তবে রাষ্ট্রদূত হিসেবে ডারোকের কাজ হচ্ছে তিনি যা দেখছেন তাই অকপটভাবে তার সরকারকে জানানো এবং তিনি সেটাই করেছেন।

এমআর/এএসটি

 

ইউরোপ: আরও পড়ুন

আরও