জাসিন্দার সমর্থন সর্বোচ্চ পর্যায়ে: জরিপ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ | ১২ বৈশাখ ১৪২৬

জাসিন্দার সমর্থন সর্বোচ্চ পর্যায়ে: জরিপ

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৪৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০১৯

জাসিন্দার সমর্থন সর্বোচ্চ পর্যায়ে: জরিপ

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরডার্নের সমর্থন এখন সর্বোচ্চ পর্যায়ে। যিনি গত মাসে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা সফলভাবে মোকাবিলা করায় দেশ ও বিদেশে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছেন।

আজ সোমবার দ্য ১ নিউজ পরিচালিত এক রাজনৈতিক গবেষণায় এমন ফলাফল দেখা গেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

জরিপে দেখা গেছে, ৫১ শতাংশ অংশগ্রহণকারী বলেছেন, জাসিন্দা তাদের পছন্দের প্রধানমন্ত্রী। ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত জরিপের সমর্থন থেকে যা ৭ শতাংশ বেশি।

রয়টার্স বলছে, গত ১৫ মার্চ মসজিদে নামাজিদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর এই প্রথম দেশটিতে রাজনৈতিক জরিপ পরিচালনা করা হলো। ক্রাইস্টচার্চের আল নুর ও লিনউড মসজিদে অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত এক সন্ত্রাসীর হামলায় অন্তত ৫১ জন মুসলিম নিহত হন।

অন্যদিকে, দেশটির বিরোধী নেতা সিমন ব্রিজের সমর্থন আগের চেয়েও কমেছে। আগের জরিপে তার সমর্থন কমেছিল ১ শতাংশ। আর সর্বশেষ জরিপে তার কমেছে ৫ শতাংশ।

এ ছাড়া দলীয় দিক থেকে আরডার্নের লেবার পার্টির সমর্থন ৩ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৪৮ শতাংশ। আর সিমনের ন্যাশনাল পার্টির সমর্থন কমে হয়েছে ৪০ শতাংশ। যা ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরের পর থেকে সর্বনিম্ন সমর্থন।

জরিপের ফলাফলের বিষয়ে জাসিন্দা ১ নিউজকে বলেছেন, ‘আমি যেটা মনে করি সেটা হলো- আমি আমার যোগ্যতার সবটুকু দিয়ে আমার দায়িত্ব পালন করেছি।’

প্রসঙ্গত, ৩৮ বছর বয়সী জাসিন্দা ২০১৭ সালে ক্ষমতায় আসেন। এর পর তাদের জোট সরকার অর্থনীতিসহ বেশ কিছু চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, গত ৬ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিলের মধ্যে ওই জরিপ পরিচালনা করা হয়। 

উল্লেখ্য, ব্রেনটন টারান্ট নামের ওই বন্দুকধারীর হামলার পর পরই তাকে সন্ত্রাসী হামলা হিসেবে অভিহিত করেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী। সেইসঙ্গে মাত্র এক মাসের মধ্যে দেশটিতে নতুন বন্দুক আইন কার্যকর করেন, যে আইনে সেমি-অটোমেটিক (স্বয়ংক্রিয়) অস্ত্র নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এ ছাড়া হতাহতদের পরিবারের সঙ্গে সহায়ভূতি প্রকাশ এবং সেখানে মুসলিম নারীদের হিজাব পরিধান, জাতীয়ভাবে শোক প্রকাশ ও আরো বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়ে দেশ তো বটেই, বিশ্ব মুসলিম ও অন্যান্য দেশের নেতাদের প্রশংসা পেয়েছেন জাসিন্দা আরডার্ন।

আরপি