মসজিদে নৃশংসতা নিয়ে যা বললেন বিশ্ব নেতারা

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯ | ৮ চৈত্র ১৪২৫

মসজিদে নৃশংসতা নিয়ে যা বললেন বিশ্ব নেতারা

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৫৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০১৯

মসজিদে নৃশংসতা নিয়ে যা বললেন বিশ্ব নেতারা

নিউল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। এতে সর্বশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী অন্তত ৪৯ জন নিহত এবং ৪৮ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। পুলিশ বলছে, এ ঘটনায় এক নারীসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে। নৃশংস এই ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা।

ভয়াবহ এই বর্বরতার পর পরই এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়া। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রী রেন্টো মার্সুদি এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘ইন্দোনেশিয়া সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে হতাহত ও তাদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হচ্ছে।’

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ মালয়েশিয়ার বৃহৎ রাজনৈতিক দলের নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম এই হামলার তীব্র নিন্দা এবং হতাহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘এই কালো ট্র্যাজেডির কারণে মানবতা ও বিশ্ব শান্তি হুমকির মধ্যে পড়েছে।’

ইতিহাসের বর্বরতম এই ঘটনার কড়া সমালোচনা করেছে তুরস্ক। দেশটির প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোয়ানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন টুইটারে লিখেছেন, এটি বর্ণবাদী ও ফ্যাসিবাদী হামলা।

তিনি বলেন, ‘ইসলামের প্রতি বৈরিতা ও মুসলমানদের প্রতি শত্রুতা কোন পর্যায়ে পৌঁছেছে- তা এই ঘটনা দেখিয়ে দিয়েছে।’

এরদোয়ানের মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা বহুবার দেখেছি, ইসলাম ও মুসলিমবিদ্বেষী বক্তব্য প্রচার করা হয়েছে, যার ফলে অনেকেই খুনি মতবাদে আকৃষ্ট হচ্ছে। এই ধরনের বক্তব্যের বিরুদ্ধে বিশ্ববাসীর সোচ্চার হতে হবে এবং ইসলামফোবিক ফ্যাসিবাদী সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে।’

অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ফিজিতে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত ওয়াহিদুল্লাহ ওয়েইসি টুইটারে বলেছেন, হামলায় তিন আফগান গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

জঘন্য এই ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আফগান বংশোদ্ভূত এবং নিহতের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মাদ ফয়সাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। এতে তিনি #পাকিস্তানএগেইনস্টটেরর হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেছেন।

এ ছাড়া পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশিও হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, ট্র্যাজিক এই হামলার পর তার দেশ নিউজিল্যান্ডের পাশে থাকবে।

এ ছাড়া নুল মসজিদে হামলাকারী ব্রেনটন টারান্ট যে অস্ট্রেলীয় সেটাও স্বীকার করেছেন তিনি।

নিউজিল্যান্ডে মার্কিন দূত স্কট ব্রাউন ভয়াবহ এই হামলার নিন্দা জানিয়েছেন।

এ ছাড়া বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক বিবৃতিতে নিউজিল্যান্ডে হামলার ঘটনায় গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

আরপি