বাজারে আসছে ‘পাহাড়ি’ কমলালেবু

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

বাজারে আসছে ‘পাহাড়ি’ কমলালেবু

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি ৮:১৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০১৮

বাজারে আসছে ‘পাহাড়ি’ কমলালেবু

রাঙ্গামাটির ফলের সুখ্যাতি অনেক আগে থেকেই। জেলার নানিয়ারচর, বাঘাইছড়ির সাজেক, লংগদু বরকল জুরাছড়ি বিলাইছড়িসহ প্রায় দশ উপজেলাতেই কম বেশি ফল উৎপাদন হয়।

রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ির সাজেক নানিয়ারচর ছাড়াও সদর উপজেলা এবং বিলাইছড়িতে কমলার ব্যাপক চাষ হচ্ছে। দিন দিন এই ফলের উৎপাদন বেড়েই চলছে।

স্থানীয় চাষিরা জানান, এলাকাভেদে বিভিন্ন প্রজাতির ফলের খ্যাতি অর্জন করছে বিভিন্ন উপজেলা। যেমন নানিয়ারচর বিখ্যাত আনারসে। সম্প্রতি একটি নতুন ফল এই খ্যাতিকে আরও সমৃদ্ধ করে চলেছে, তা হলো কমলা।

জেলা কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, রাঙ্গামাটির মাটি বিভিন্ন ফল চাষের উপযোগী, তাই নতুন নতুন প্রচুর ফল বাগান সৃজন করছে চাষিরা।

নভেম্বরে কমলা পরিপক্ক হয় বলে জানিয়েছে কৃষি বিভাগ। তাই রাঙ্গামাটি বাজার এখন কমলায় ভরপুর।

রাঙ্গামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক পবন কুমার চাকমা বলেন, ‘প্রতিদনই কম বেশি কমলা বাজারে আসে। তবে বুধবার ও শনিবার হাট বার হওয়ার কারণে এ দুদিন প্রচুর কমলা বাজারে আসে। চাষিদের কাছ থেকে কমলা কিনে বিক্রয় করেন ব্যবসায়ীরা।

স্থানীয় ব্যবসায়ী কামরুল হোসেন বলেন, আমি বিভিন্ন চাষির কাছ থেকে পাইকারি দরে কমলা কিনে খুচরা বাজারে বিক্রয় করি। প্রতি জোড়ায় ২/৩ টাকা লাভে বিক্রয় করি। এতে মোটামুটি লাভ হয়।

কামরুলের দোকানে প্রকার ভেদে সর্বোচ্চ ৪০ টাকা ও সর্বনিম্ন  ১৫ টাকা জোড়া দামের কমলা পাওয়া যায়।

আরেক ব্যবসায়ী সেলিম জানান, অন্য বছরের তুলনায় এবার কমলার উৎপাদন ভাল হয়েছে, মৌসুমের শুরুতেই প্রচুর কমলা বাজারে আসছে। বাজারে শুধু তিনি নন, তার মতো আরও অনেক ব্যবসায়ী আছেন যারা বাগান থেকে কমলা কিনে স্থানীয় বাজারে ও জেলার বাইরে বিক্রি করেন।

পিআর/এএসটি