সৌদিতে নির্যাতনে নিহত নাজমার লাশ দেশে নিতে চায় স্বজনরা

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

সৌদিতে নির্যাতনে নিহত নাজমার লাশ দেশে নিতে চায় স্বজনরা

সৌদি আরব প্রতিনিধি ৬:৩২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৯

সৌদিতে নির্যাতনে নিহত নাজমার লাশ দেশে নিতে চায় স্বজনরা

পারিবারিক স্বচ্ছলতার কারণে সৌদি আরবে এসে অমানবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা গেছেন মানিকগঞ্জের নাজমা বেগম। মৃত্যুর এক মাস পার হলেও তার লাশ দেশে নিতে পারছে না পরিবারের সদস্যরা।

এ অবস্থায় লাশটি দেশে নিয়ে প্রিয়জনের মুখটি শেষবারের মতো দেখার সুযোগ করে দিতে সৌদি-বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত ও সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন নাজমার স্বজনরা।

জানা যায়, আর্থিক সচ্ছলতা ফেরাতে স্থানীয় দালাল সিদ্দিকের মাধ্যমে প্রায় দুই লাখ টাকা দিয়ে ১০ মাস আগে সৌদি আরব পাড়ি জমান মানিকগঞ্জের নাজমা বেগম।

কোম্পানি ভিসার নামে প্রায় দুই লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে দেশটিতে বাসা বাড়ির কাজ দেয় দালাল সিদ্দিক। এরপর থেকেই দিনের পর দিন নাজমার ওপর চালানো হয় শারীরিক নির্যাতন। টেলিফোনে স্বজনদের কাছে বার বার বাঁচার আকুতি জানালেও শেষরক্ষা হয়নি এ বাংলাদেশি নারীর।

গত ২ সেপ্টেম্বর দেশটিতে গৃহকর্তার নির্যাতনে মৃত্য হয় নাজমার। মৃত্যুর এক মাস পার হলেও তার মরদেহ দেশে নিতে পারছে না পরিবারের সদস্যরা।

অন্যদিকে নাজমা বেগমের লাশটি দেশে আনতে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা রাহেলা রহমত উল্লাহ।

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ইসলামনগর গ্রামের নাজমা বেগমের নিথর মরদেহটি বর্তমানে সৌদি আরবের আমির হাসপাতালের হিমঘরে পড়ে রয়েছে।

এইচআর

 

প্রবাস: আরও পড়ুন

আরও