ছোট ভোটে পরীক্ষামূলক ইভিএম-সিসি ক্যামেরা ব্যবহারে ইসি

ঢাকা, সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৫

ছোট ভোটে পরীক্ষামূলক ইভিএম-সিসি ক্যামেরা ব্যবহারে ইসি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৯:২২ অপরাহ্ণ, মার্চ ১০, ২০১৮

print
ছোট ভোটে পরীক্ষামূলক ইভিএম-সিসি ক্যামেরা ব্যবহারে ইসি

স্থানীয় সরকারের শতাধিক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি), পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনের সাধারণ ওয়ার্ডে আগামী ২৯ মার্চ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আর এ নির্বাচনে কোটালীপাড়া পৌরসভাসহ অন্য পৌরসভার ওয়ার্ডে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

একইসঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ৩৬ নম্বর ওয়ার্ড এবং খুলনা সিটির ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সিসি টিভি ব্যবহারেরও সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে, কতগুলো কেন্দ্রে সিসি টিভি ব্যবহার করা হবে সেগুলো এখনো ঠিক করা হয়নি। ইসি সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সূত্র জানায়, এজন্য সংশ্লিষ্টদের এ সংক্রান্ত তথ্য দিতে একটি চিঠিও দিয়েছে কমিশনের আইসিটি অপারেশন্স অধিশাখা। এছাড়া সংসদ নির্বাচনের আগে বিতর্ক এড়াতে স্থানীয় সরকারের সব নির্বাচন সুষ্ঠু-শান্তিপূর্ণ করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছে কমিশন। কারণ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে কোনো রকম সমালোচনায় পড়তে চায় না ইসি।

সূত্র আরো জানায়, নানা জটিলতায় দীর্ঘদিন আটকে থাকা শতাধিক ইউপি ও পৌরসভারর মতো ছোট ভোটে পরীক্ষামূলকভাবে ইভিএম এবং দুই সিটির দুই ওয়ার্ডে পরীক্ষামূলকভাবে সিসি টিভি ব্যবহার করা হবে। তবে পৌরসভার কোন ওয়ার্ডের কোন কেন্দ্রে ইভিএম এবং সিটি দুটির কোন কোন কেন্দ্রে সিসি টিভি ব্যবহার করা হবে, সেগুলো এখনো ঠিক করেনি ইসি। মাঠ পর্যায়ের সুপারিশ অনুযায়ী সেগুলো ঠিক করা হবে।

ইসি কর্মকর্তরা জানান, ইসি সংসদের আগে এসব নির্বাচনের বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও ইসির কর্মকর্তাদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে। যাতে এসব ছোট ছোট নির্বাচনের মাধ্যমে ভোটারদের মাঝে সংসদ নির্বাচনের বিষয়ে কোনো রকম নেতিবাচক ধারণা না জন্মায় বা আস্থার সংকট তৈরি না হয়।

আগামী ২৯ মার্চ ৩৪টি ইউপিতে সাধারণ, ৫৩টি ইউপিতে উপনির্বাচন, চারটি পৌরসভায় সাধারণ (যদিও কোটালীপাড়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মো. কামাল হোসেন শেখ ছাড়া আর কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেয়নি), একটি পৌরসভায় মেয়র পদে ও চারটিতে সাধারণ কাউন্সিলর পদে উপ-নির্বাচন, চট্টগ্রাম ও খুলনা সিটি করপোরেশনের ২টি ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচন ও ২টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ইসির ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, এ নির্বাচনের মনোনয়ন দাখিলের শেষ সময় ছিল ১ মার্চ, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ছিল ৪ ও ৫ মার্চ, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১২ মার্চ, প্রতীক বরাদ্দ ১৩ মার্চ এবং ভোটগ্রহণ করা হবে ২৯ মার্চ।

এইচকে/এসবি

 
.



আলোচিত সংবাদ