এসএসসি পরীক্ষা ২০১৮ : ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

এসএসসি পরীক্ষা ২০১৮ : ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:৪০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৮

এসএসসি পরীক্ষা ২০১৮ : ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং

পাঠ্য বই গুরুত্ব দাও

ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং পরীক্ষা আগামীকাল মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হবে। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ । তাই এই বিষয়টিতে ভালো নম্বর পেতে হলে পরিকল্পিত উপায়ে অনুশীলন করতে হবে।

আজ তোমাদের জন্য পরামর্শ দিয়েছেন সাতারকুল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র শিক্ষক সাইদুর রহমান।

প্রশ্ন : ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিষয়ের পরীক্ষার পদ্ধতি সম্পর্কে কিছু বলুন?

উত্তর : ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। পরীক্ষায় নম্বর থাকবে সৃজনশীল (৭০ নম্বর) এবং বহু নির্বাচনী (৩০ নম্বর)।

প্রশ্ন : সৃজনশীল অংশ ভালো করতে আপনার পরামর্শ কী?

উত্তর : সৃজনশীল প্রশ্ন ১১ টি থেকে ৭ টি প্রশ্নের উত্তর করতে হয়। ফিন্যান্স বিভাগ হতে ৬ টি এবং ব্যাঙ্কিং বিভাগ থেকে ৫টি প্রশ্ন থাকবে যার মধ্যে ফিন্যান্স বিভাগ হতে ৩টি এবং ব্যাঙ্কিং বিভাগ থেকে ৩টি বাধ্যতামূলক উত্তর করতে হবে এবং বাকী ১ টি যেকোনো বিভাগ থেকে করা যাবে।

ফিন্যান্স বিভাগ হতে ২য়, ৩য়, ৪র্থ, ৬ষ্ঠ এবং ৭ম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ,এই ক্ষেত্রে ১ম ও ২য় অধ্যায় থেকে মিলিত প্রশ্ন হতে পারে। ২য় অধ্যায় থেকে তহবিলের উৎস, ব্যবহার, উৎস নির্বাচনে বিবেচ্য বিষয়সমূহে ভালো ধারণা নিবে।

৩য় অধ্যায় বর্তমান মূল্য (চক্রবৃদ্ধি),ভবিষ্যৎ মূল্য (বাট্টাকরন প্রক্রিয়া), প্রকৃত সুদের হার, বার্ষিক বৃত্তি, এবং অর্থের সময়ের মূল্যর গুরুত্ব সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। সেক্ষেত্রে পাঠ্য বইয়ের উদাহরণ গুলো ভালো করে অনুশীলন করবে ।

ব্যাকিং বিভাগ থেকে ১০ম, ১১তম, ১২তম অধ্যায় খুবই গুরুত্বপূর্ণ টেস্ট পেপারের প্রশ্ন বিশ্লেষণে দেখা যায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে একটি প্রশ্ন থাকেই।

প্রশ্ন : বহু নির্বাচনী অংশ ভালো করতে শিক্ষার্থীরা কী করবে?

উত্তর : বহু নির্বাচনী অংশে ৩০টি প্রশ্ন থাকবে । প্রতিটি প্রশ্নে নম্বর হচ্ছে ০১। অর্থাৎ ৩০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। সময় থাকবে ৩০ মিনিট। 

ফিন্যান্স বিভাগ থেকে ১ম,২য়,৩য় ৪র্থ, ৬ষ্ঠ,এবং ৭ম অধ্যায় বহু নির্বাচনী প্রশ্নের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অপরদিকে ৯ম,১০ম,১৩ম অধ্যায় ব্যাঙ্কিং বিভাগ থেকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কাজেই এই অধ্যায় গুলো সম্পর্কে ভালো ধারণা নিবে।

প্রশ্ন : গাণিতিক প্রশ্ন সম্পর্কে কিছু বলুন?

উত্তর : বেশি নম্বর পেতে গাণিতিক অধ্যায় গুলোর প্রতি খেয়াল রাখতে হবে।

পরীক্ষা গাণিতিক প্রশ্নের উত্তর দিলে বেশি নম্বর পাবে। এজন্য ৩য়, ৪র্থ,৫ম, ৬ষ্ঠ অধ্যায়-এর গাণিতিক সূত্রগুলো খুবই ভালো কওে আয়ত্ত্ব করতে হবে।

অর্থের সময় মূল্য থেকে বর্তমান মূল্য (চক্রবৃদ্ধি) এবং ভবিষ্যৎ মূল্য (বাট্টাকরণ প্রক্রিয়া) অঙ্কগুলো সম্পর্কে সূক্ষ্ম জ্ঞান থাকতে হবে।

মুলধন ব্যয় অধ্যায় থেকে ঋণের মূলধন ব্যয়, সাধারণ শেয়ার মূলধন ব্যয় এর সূত্র এবং অংকগুলো ভালো ভাবে অনুশীলন করতে হবে।

প্রশ্ন : আরও কিছু পরামর্শ থাকলে বলুন?

উত্তর : খুব ভালো প্রস্তুতি পরীক্ষায় আত্মবিশ্বাস বাড়ায়। তাই ভালো প্রস্তুতি নিবে। সময়ের দিক বিবেচনা করে প্রতিটি প্রশ্ন যথাযথভাবে উত্তর দেয়ার চেষ্টা করতে হবে। লক্ষ রাখতে হবে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার।

অনুধাবন অংশটির উত্তর ২টি, প্রায়োগিক ৩টি, উচ্চতর দক্ষতা ৪টি প্যারার মধ্যে উত্তর লেখার চেষ্টা করতে হবে।

উত্তরপত্র যতটুকু সম্ভব পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখাটা জরুরি ,পরিশেষে রিভিশনের জন্য ৫থেকে ১০ মিনিট সময় বরাদ্দ রাখা উচিত। পরিশেষে বলব প্রত্যাশা আর পরিশ্রম যখন এক হবে তখন প্রাপ্তিটা অনেক মধুর হবে।

এএসটি