তীর থেকে ২২০ কিলোমিটার গভীর সমুদ্রে কুকুর উদ্ধার

ঢাকা, সোমবার, ২০ মে ২০১৯ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

তীর থেকে ২২০ কিলোমিটার গভীর সমুদ্রে কুকুর উদ্ধার

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:১৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৬, ২০১৯

তীর থেকে ২২০ কিলোমিটার গভীর সমুদ্রে কুকুর উদ্ধার

থাইল্যান্ডের উপকূল থেকে সমুদ্রের ২২০ কিলোমিটার দূরে চলে গিয়েও বেঁচে গেল একটি কুকুর। তেল উত্তোলনে নিয়োজিত এক কর্মী কুকুরটিকে পালনের দায়িত্ব নেয়ায় পুনর্জীবন পেয়েছে প্রাণীটি।

মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, উদ্ধারকারী ওই কর্মী গাঢ় বাদামি রঙের কুকুরটির নাম রাখে বুনর্ড। থাই ভাষায় এর অর্থ হচ্ছে ‘কর্ম থেকে বেঁচে যাওয়া প্রাণী’।

গত শুক্রবার তেল উত্তোলনকর্মীরা থাইল্যান্ডের উপসাগরে ঢেউয়ের ফাঁকে কুকুরটির মাথা ভাসতে দেখে এটিকে উদ্ধার করেন।

কুকুরটি সেখানে কিভাবে গেল বা কতক্ষণ সমুদ্রে ভাসছিল সে সম্পর্কে কিছু জানা সম্ভব হয়নি। তবে স্থানীয় মিডিয়া ধারণা করছে এটি সম্ভবত কোনো মাছধরা নৌকা থেকে পড়ে গিয়ে ওই তেল উত্তোলন স্থাপনার দিকে সাঁতরে যায়।

বুনর্ডের চিকিৎসায় সঙ্খলা প্রদেশের একজন পশু চিকিৎসকের কাছে দেয়া হচ্ছে বলে এএফপিকে একটি পশু সেবা সংস্থা জানায়।

এদিকে, শেভ্রনের কর্মচারী ভিটিসাক পেয়ালা তার ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘ও (কুকুরটি) প্ল্যাটফর্মে ওঠার পর থেকে একবারও কাঁদেনি বা ঘেউ ঘেউ করেনি।

একটি মেসেজে ভিসিটাক মঙ্গলবার এএফপিকে জানান, এ মাসের শেষে দাঙ্গায় ফিরে এলে তিনি কুকুরটিকে পালতে শুরু করবেন। অদ্ভূতভাবে রক্ষা পাওয়া কুকুরটি ইতোমধ্যেই বেশ বিখ্যাত।

তেল উত্তলোলনের জায়গাটিতে দুই রাত থাকার পর সোমবার সকালে আরেকটি জাহাজে করে এটিকে তীরে ফিরিয়ে আনা হয়।

পশু অধিকার সংস্থা ওয়াচডগ থাইল্যান্ডের পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, বুনর্ডকে স্বাগত জানাতে বন্দরের অনেক শ্রমিক হলুদ ফুল আর কুকুরের গলায় বাঁধার বেল্ট নিয়ে সমবেত হয় সমুদ্র তীরে।

এমআর/এইচআর