কীর্তনখোলা-২ লঞ্চের ধাক্কায় ডুবল বাল্কহেড, নিখোঁজ ৩

ঢাকা, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

কীর্তনখোলা-২ লঞ্চের ধাক্কায় ডুবল বাল্কহেড, নিখোঁজ ৩

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি ২:৪০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৯

কীর্তনখোলা-২ লঞ্চের ধাক্কায় ডুবল বাল্কহেড, নিখোঁজ ৩

মুন্সীগঞ্জের সীমানাধীন মেঘনা নদীর গজারিয়া অংশে যাত্রীবাহী লঞ্চের ধাক্কায় এমভি নাদিয়া নামে একটি বাল্কহেড ডুবে গেছে। এ ঘটনায় বাল্কহেডটির তিন শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন। এ ঘটনায় নিজাম নামে বাল্কহেডের এক শ্রমিক ও এক কোস্ট গার্ড সদস্যকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও উদ্ধার হওয়া শ্রমিকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাতে মেঘনা নদীতে বালু বোঝাই বাল্কহেড চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকায় গতকাল রাতে অভিযান পরিচালনা করে ৫টি বাল্কহেড আটক করে গজারিয়া কোস্ট গার্ড। সকালে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে তাদের শাস্তি দেবার কথা ছিল। সেজন্য বাল্কহেড পাঁচটি গজারিয়া কোস্টগার্ড স্টেশন সংলগ্ন মেঘনা নদীতে নোঙ্গর করা ছিল।


এদিকে রোববার ভোর ৫:১০ মিনিটে বরিশাল থেকে সদরঘাটগামী এমভি কীর্তনখোলা-২ লঞ্চটি নোঙ্গর করে রাখা বাল্কহেডের পেছনে আঘাত করলে এমভি নাদিয়া বাল্কহেডটি ডুবে যায়। এসময় বাল্কহেডে থাকা ইমাদুল (৩৮), আসলাম (২৪) ও অজ্ঞাত পুরুষ (৫৫) সহ তিন শ্রমিক নিখোঁজ হন। আর নিজাম (৩০) নামে অপর এক শ্রমিক ও গজারিয়া কোস্ট গার্ডের এক সদস্য নদীতে ঝাঁপ দিলে তাদেরকে উদ্ধার করা হয়।

পাগলা কোষ্ট গার্ডের পেটি অফিসার লুৎফর রহমান জানিয়েছেন, সদরঘাট থেকে লঞ্চটির চালক শহীদুল ইসলাম ও লঞ্চের কয়েকজন কর্মচারীসহ লঞ্চটিকে আটক করা হয়েছে। এদিকে উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে কোষ্টগার্ড ফায়ার সার্ভিস ও নৌপুলিশের সদস্যরা।

এমএ/এএসটি

 

ঢাকা: আরও পড়ুন

আরও