টাঙ্গাইলে শিল্প প্লট দখল করে অবৈধ হাট-বাজার

ঢাকা, শনিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৯ | ২৪ কার্তিক ১৪২৬

টাঙ্গাইলে শিল্প প্লট দখল করে অবৈধ হাট-বাজার

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ৭:০৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

টাঙ্গাইলে শিল্প প্লট দখল করে অবৈধ হাট-বাজার

টাঙ্গাইলের বিসিক শিল্প নগরীর দুটি শিল্প প্লট দখল করে অবৈধ হাট  ও বাজার গড়ে উঠেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শিল্প মালিকরা জানিয়েছে অবৈধ বাজারের সীমানা প্রাচীর না থাকায় পুরো শিল্প এলাকার নিরাপত্তা ব্যাহত হচ্ছে। বিসিক কর্তৃপক্ষ হাট বাজার উচ্ছেদের দাবি জানালেও ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা চাচ্ছেন সেখানে বাজার রাখতে।

বিসিক সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৫ সালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার তারুটিয়া এলাকায় সাড়ে ২৩ একর জমি অধিগ্রহন করে বিসিক শিল্প নগরী স্থাপন করা হয়। ১৯৮৬ সালের ৫ জুন এ শিল্প নগরী উদ্বোধন করা হয়। ১৩২টি শিল্প প্লট নিয়ে গড়ে উঠা এ শিল্প নগরীতে ৬৫টি শিল্প কারখানা চালু রয়েছে। কিন্তু এই শিল্প নগরীর পূর্ব দিকে তারুটিয়া এলাকায় দুটি প্লট দখল করে স্থানীয়রা বাজার বসিয়েছে। সেখানে প্রতিদিন কাঁচা বাজার এবং প্রতি রোববার সাপ্তাহিক হাট বসে। এ বাজার বা হাট বসানোর কোন অনুমোদন। হাট বাজার বসা এই প্লটটি ১৯৯৯ সালে মাসুদ এন্টারপ্রাইজ নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু ২০ বছরেও ওই প্লটের অবৈধ দখল উচ্ছেদ করতে পারেনি বিসিক কর্তৃপক্ষ।

সরেজমিন বিসিক শিল্প নগরী এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, পূর্ব-উত্তর পাশে বিসিকের জায়গায় গড়ে উঠা বাজারে চলছে বেচাকেনা। প্রায় একশ স্থায়ী দোকান এবং আরো শতাধিক অস্থায়ী দোকানে স্থানীয় লোকজন বেচাকেনা করছে। বাজারের কারনে শিল্প নগরীর এই এলাকায় কোন সীমানা প্রাচীর না থাকায় সেখান দিয়ে অবাধে লোকজন প্রবেশ করছে শিল্প এলাকায়।

বাজারে আসা তারুটিয়া এলাকার আব্দুল আজিজ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, বাজারটি এলাকার মানুষের জন্য খুবই প্রয়োজন। এটা না থাকলে তাদের খুব সমস্যায় পড়তে হবে।

তারুটিয়া বাজার কমিটির সভাপতি মোবারক হোসেন বলেন, ‘বিসিক শিল্প নগরী হওয়ার অনেক আগে থেকেই এ বাজার বসছে। বাজারটি উচ্ছেদের জন্য বিসিক কর্তৃপক্ষ অনেকবার উদ্যোগ নিয়েছে। এটি উচ্ছেদ হলে অনেক মানুষ বেকার হবে। এলাকার মানুষের কেনাকাটা করার অসুবিধা হবে। তাই বাজারটি উচ্ছেদ না করার জন্য এলাকাবাসী দাবি জানিয়েছেন।’

বিসিক শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি আবুল মনসুর বলেন, ‘অবৈধ বাজারটির কারণে বিসিক শিল্প নগরীর কোন নিরাপত্তা নেই বললেই চলে। বাজারের ওই দিক দিয়ে অবাধে মানুষ শিল্প এলাকায় প্রবেশ করে। এতে শিল্প মালিকদের চুরি-ডাকাতি হওয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকতে হয়। তাই এ বাজারটি দ্রুত উচ্ছেদ করে সেখানে নিরাপত্তা প্রাচীর নির্মান করা প্রয়োজন।’

করটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খালেকুজ্জামান চৌধুরী বলেন, জনস্বার্থে বাজারটি এখানে থাকা প্রয়োজন। আশেপাশে কোন বাজার নেই। এটি না থাকলে এ এলাকার মানুষের কেনাকাটা করতে পাঁচ কিলোমিটার দূরে টাঙ্গাইল শহর অথবা করটিয়ায় যেতে হবে। ব্যস্ত মহাসড়ক পারি দিয়ে সেখানে গিয়ে বাজার করা অনেক ঝুঁকিপূর্ণ হবে। বাজারটি স্থায়ীভাবে রাখার জন্য জেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিসিকের শিল্প নগরী কর্মকর্তা তওহিদুল হক বলেন, ‘অবৈধ এই বাজার উচ্ছেদের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় তুলে ধরা হয়েছে। জেলা প্রশাসনকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। জেলা প্রশাসন ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘বাজারটি অবৈধ। তাই এটি আইনগতভাবে সরানো হবে। বিকল্প কোন জায়গা থাকলে সেখানে বাজার বসানো যায় কিনা সে বিষয়টি দেখা হবে।’

এমকে/এএলএন

 

ঢাকা: আরও পড়ুন

আরও