ঈদের ছুটিতে টাঙ্গাইলে বিনোদন কেন্দ্রে দর্শনার্থীদের ভিড়

ঢাকা, ১৮ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

ঈদের ছুটিতে টাঙ্গাইলে বিনোদন কেন্দ্রে দর্শনার্থীদের ভিড়

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৪, ২০১৯

ঈদের ছুটিতে টাঙ্গাইলে বিনোদন কেন্দ্রে দর্শনার্থীদের ভিড়

পবিত্র ঈদুল আযহার ছুটিতে টাঙ্গাইলের বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে দর্শনার্থীরা ভিড় করছেন। পদচারণায় জমজমাট হয়ে উঠেছে বিনোদন কেন্দ্রগুলো। এসব স্থানে নারী-পুরুষ শিশুসহ দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে। ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতি এক অন্য রকম আনন্দের মাত্রা যোগ করেছে।

জানা যায়, টাঙ্গাইল শহরের এসপি পার্ক, ডিসি লেক, ঘারিন্দা রেলস্টেশন, সোলপার্কে দর্শনার্থীদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে। এছাড়া মধুপুর বনাঞ্চল, ধনবাড়ী নবাব বাড়ি, গোপালপুরে নির্মাণাধীন ২০১ গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদ, হেমনগর জমিদার বাড়ি, ভূঞাপুর যমুনা নদী তীরবর্তী এলাকা, বঙ্গবন্ধু সেতু, কালিহাতীর চারান বিল, বাসাইল উপজেলার বাসুলিয়া, ঘাটাইলের চৌধুরী বাড়ী, অনিক পার্ক, সখীপুর বনাঞ্চল, মির্জাপুর মহেড়া জমিদার বাড়ি, দেলদুয়ার জমিদার বাড়ি, আতিয়া জামে মসজিদ, নাগরপুর জমিদার বাড়ি, ধলেশ্বরী ব্রিজ, পাকুটিয়া জমিদার বাড়িসহ বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে দর্শনার্থীরা ভিড় করছেন।

এসব এলাকার অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ, ছবি তোলা ও আড্ডায় সময় কাটাচ্ছেন বিনোদন পিপাসু দর্শনার্থীরা। স্পটগুলোর অনেক জায়গায় যোগাযোগ ব্যবস্থা তেমন ভালো না হলেও ব্যক্তিগতভাবে কিংবা পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের নিয়ে দর্শনার্থীরা এসব স্থানে ছুটে আসছেন। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত তাদের পদচারণায় মুখর থাকে এই স্থানগুলোতে।

দর্শনার্থীরা জানান, প্রতিটি স্পটে বিভিন্ন বয়সের নারী, পুরুষ ও শিশুদের সরব উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে। দুপুরের পর থেকেই দর্শনার্থীদের ভিড় জমে ওঠছে। রঙ-বেরঙের পোশাক আর নানা সাজে সজ্জিত দর্শনার্থীরা। শিশু-কিশোররা নাগরদোলায় দোল খেলে ঈদ আনন্দ উপভোগ করছে। ঐতিহাসিক স্থান ও প্রাচীন স্থাপনা দেখতেও দলে দলে নারী-পুরুষ-শিশুকে হাজির হতে দেখা যায় ওই সব স্থানে।

এছাড়া অনেকেই ভিড় করতে দেখা যায় সন্তোষে মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানীর মাজারে ও মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেও।

একটু সুযোগ পেয়েই মানুষ ছোটে এসব এলাকায় কিছুটা সময়ের জন্য প্রকৃতির সান্নিধ্য উপভোগ করতে। অর্থবান মানুষরা তাদের পরিবারে সদস্যদের নিয়ে যান। সেখানে নিজেদের প্রাইভেটকার বা মাইক্রোবাস যোগে, বাকিরা দল বেঁধে বাস-মিনিবাস ভাড়া করে বা অটোরিকশা যোগে। নারী-পুরুষ-শিশু মিলে সেখানে তারা নৌকায় ঘুরে বেড়ানোসহ আনন্দে মেতে উঠেন।

অনেক তরুণকে দল বেঁধে ছোট ট্রাক বা পিকআপে উঠে নেচে গিয়ে বাড়াতে দেখে যায়। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলে এ অবস্থা।

যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এএএন/এইচকে

 

ঢাকা: আরও পড়ুন

আরও