স্ত্রী তালাক দেয়ায় ৩ মণ দুধে গোসল-ভুরিভোজ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

স্ত্রী তালাক দেয়ায় ৩ মণ দুধে গোসল-ভুরিভোজ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ১০:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০১৯

স্ত্রী তালাক দেয়ায় ৩ মণ দুধে গোসল-ভুরিভোজ

টাঙ্গাইলে স্ত্রী রীণার (১৬) তালাকের নোটিশ পেয়ে খুশিতে তিন মণ দুধ দিয়ে গোসল করছেন স্বামী আলম (১৮)। শুধু তাই নয়, আনন্দে দুই শতাধিক পড়শিকে বাড়িতে নিমন্ত্রণ করে ভূরিভোজও করায় আলম।

সোমবার জেলার মধুপুর জাঙ্গালিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মধুপুর বনাঞ্চলের জাঙ্গালিয়া যোগাযোগ ও শিক্ষায় পশ্চাৎপদ জনপদ। সমসংখ্যক গারো আর বাঙালি মিলে বসবাস। চতুর্দিকে শালবন।

দুই দশক আগেও গ্রামের অধিকাংশ মানুষের প্রধান পেশা ছিল বনের গাছ চুরি। বর্তমান সরকারের আমলে কিছুটা রাস্তা পাঁকা হয়েছে। বিদ্যুৎও গেছে। তবে নারী শিক্ষার করুণ হাল। বাল্যবিয়ে হরদম।

এ গ্রামের মৃত নয়ন মিয়ার ছেলে আলমের সাথে একই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের মেয়ে রীণার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি টের পেয়ে মেয়েপক্ষ আলমকে বাড়িতে ডেকে গোপনে বিয়ে পড়িয়ে দেয়।

এলাকার মুরুব্বী ছামাদ বলেন, এ বিয়েকে আলমের পরিবার মেনে নিতে পারেনি যৌতুক থেকে বঞ্চিত হওয়ায়। আর গ্রামবাসী রুষ্ট হয় প্রচলিত নিয়মে বিয়ের নিমন্ত্রণ থেকে বঞ্চিত হওয়ায়। বিয়ের পর উভয় পক্ষেই অশান্তি শুরু হয়। বেশ কয়েকবার সালিশও বসে। তবে সুরাহা হয়নি। এনিয়ে গ্রামে দু’পক্ষে দেখা দেয় উত্তেজনা।

শান্তি স্থাপনে শেষ পর্যন্ত স্ত্রী রীণা পরিবারের সম্মতিতে গত রোববার আইনসঙ্গতভাবে আলমের কাছে তালাকনামা পাঠিয়ে দেন। এতে স্বামী আলমসহ অনেকেই খুশি হন। দীর্ঘদিনের ঝুঁলে থাকা বিরোধের নিস্পত্তি ঘটায় পাশের বাজার থেকে তিন মণ মহিষের দুধ কিনে আনা হয়। সেই দুধে আলমকে গোসল করানো হয়।

এছাড়াও সোমবার দুপুরে গ্রামের দুই শতাধিক মানুষকে আলমের বাড়িতে ভুরিভোজ করানো হয়।

আলম বলেন, রীণার গোপনে আরেকটি বিয়ে হয়েছিল। যেটি তার পরিবার গোপন রেখেছিলি। তালাকের মাধ্যমে গ্রামে শান্তি ফিরে আসায় পড়শিরা মিলে আনন্দে এমনটি করেছি।

অপরদিকে রীণার দাদা মুক্তার হোসেন বলেন, আলম নেশাগ্রস্ত ছেলে। প্রায়ই রীণাকে নির্যাতন করতো। এ জন্য বৈধ নিয়মে রীণাকে ছাড়িয়ে নেয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, একসময় কোনো শুভ খবরে দুধ ঢেলে, আপনজনকে আশীর্বাদ করা ছিল পাহাড়ি গারো সমাজের প্রচলিত নিয়ম। ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠি কোচরা নতুন বধূকে বরণে দুধে স্নান করাতেন। বিচ্ছেদ হওয়া স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক পুনঃএকত্রীকরণ হলে দুধ ঢেলে আশীর্বাদের রেওয়াজ এখনো রয়েছে। যাতে সারাজীবন টিকে থাকে সেই সম্পর্ক।

কিন্তু তালাকের নোটিশ পেয়ে উচ্ছসিত স্বামী খুশিতে দুধে গোসল করেন। এমন ঘটনা সত্যিই বিরল। এ ধরনের নেগেটিভ খুশিতে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে।

এইচআর

 

ঢাকা: আরও পড়ুন

আরও