টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে গণধর্ষণ মামলার আরেক আসামি গ্রেফতার

ঢাকা, শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে গণধর্ষণ মামলার আরেক আসামি গ্রেফতার

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ২:০৪ অপরাহ্ণ, মে ১৬, ২০১৯

টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে গণধর্ষণ মামলার আরেক আসামি গ্রেফতার

টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে গণধর্ষণ মামলার আরেক আসামি  উজ্জল মিয়া (২৫) কে গ্রেফতার করেছে টাঙ্গাইল থানা পুলিশ।

বুধবার রাতে শহরের দেওলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত উজ্জল মিয়া টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বাঘিল ইউনিয়নের ফৈলারঘোনা গ্রামের ফরজ আলীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার সকালে টাঙ্গাইল সদর ফাঁড়ির ইনচার্জ মোশারফ হোসেন সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ তথ্য জানান।

মোশারফ হোসেন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে শহরের দেওলা এলাকা থেকে চাঞ্চল্যকর গনধর্ষণ মামলার আরেক আসামি উজ্জল মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি এ ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিলেন। এ মামলার ৮ নম্বর আসামি ছিলেন তিনি। উজ্জল গণধর্ষণের সহযোগিতা করেন। 

পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়।

উল্লেখ্য, গত ১২ এপ্রিল রাতে ওই নারী তার স্বামীকে নিয়ে কালিহাতী বাবার বাড়ি থেকে মির্জাপুর কর্মস্থলে ফিরছিলেন। কালিহাতী থেকে অটোরিকশায় করে রাত ১০টার দিকে টাঙ্গাইল নতুন বাস টার্মিনালে তারা এসে নামেন। তাদের উদ্দেশ্য ছিল নতুন বাস টার্মিনাল থেকে বাসে করে মির্জাপুর যাওয়ার।

বাস টার্মিনালে অটোরিকশা থেকে নামার পর তিন বখাটে ওই নারীর স্বামীকে ডেকে দূরে নিয়ে যায়। দূরে নিয়ে তাকে বেদম মারপিট করে মোবাইল ফোন এবং নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে বিষয়টি স্ত্রী দেখতে পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে তাকে জোর করে সিএনজি পাম্পের পেছনের লেকের পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে নিয়ে বলে কথা না শুনলে তোর স্বামীকে আমরা মেরে ফেলবো।

এরপর দুই বখাটে স্বামীকে আটকে স্ত্রীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রথমে ধর্ষণ করে ইউসুব। পরে রবিউল ইসলাম রবিন। এরা দুইজন ধর্ষণ করে মফিজ নামে এক ধর্ষকের হাতে তুলে দেয়। মফিজ ও আরো দুই তিনজন ওই নারীকে কোদালিয়া এলাকায় নিয়ে রাতভর ধর্ষণ করে।

ওই নারীর স্বামী মারধরের শিকার হয়ে রাত ১২টার দিকে ধর্ষক ইউসুফ ও রবিনের কাছ থেকে কৌশলে পালিয়ে যায়। নতুন বাসটার্মিনাল এলাকার এক অটোরিকশা চালকের সাহায্যে সে টাঙ্গাইল পুলিশের কাছে ধর্ষণের ঘটনা খুলে বলেন। পরে পুলিশের চারটি দল বিভক্ত হয়ে রাতভর শহরের বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণকারীদের ধরতে অভিযান চালায়। অভিযান চালিয়ে ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ঘটনায় মোট আটজনকে আসামি করে টাঙ্গাইল সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এএএন/এএসটি

 

ঢাকা: আরও পড়ুন

আরও