টাঙ্গাইলে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

ঢাকা, সোমবার, ২০ মে ২০১৯ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

টাঙ্গাইলে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ৭:০৪ অপরাহ্ণ, মে ১৫, ২০১৯

টাঙ্গাইলে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে আলোচিত পাইস্কা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণ, ভন্ডপীর কর্তৃক চিকিৎসার নামে নববধূ ধর্ষণ, ধনবাড়ী পৌর সভার বর্ণিচন্দবাড়ী গ্রামে ৪ বছরের শিশু ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতন ঘটনার প্রতিবাদ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার ধনবাড়ী বাসস্ট্যান্ড চত্বরে এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ধনবাড়ী উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইন চেয়ারম্যান খন্দকার জেব-উন-নাহার লিনা, বেসরকারী সংস্থা নিজেরা করি‘র বিভাগীয় সমন্বয়ক ফজলুল হক, ঢাকা বিভাগীয় সংগঠক আফরোজা বেগম, প্রেসক্লাব সম্পাদক আনছার আলী, উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মীর আশরাফ হোসেন, মধুপুর উপজেলা সচেতন নাগরিক কমিটির সহ-সভাপতি এসএম শহিদ, ভূমিহীন নেতা আব্দুস ছামাদ, সরাফত হোসেন, উপজেলা মানবাধিকার বাস্তাবায়ন সংস্থার সভাপতি আব্দুল্লাহ আবু এহসান, ভূমিহীন সমিতির নারী নেত্রী জমিলা বেগমসহ ধর্ষণের শিকার ২ নারীর বাবা-মা প্রমুখ।

পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত ৬ মে  ভোরে ধনবাড়ী উপজেলার পাইস্কা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর স্কুলছাত্রী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাড়ীর বাইরে যায়। তখন পার্শ্ববর্তী দড়িচন্দবাড়ী চরপাড়া গ্রামের আয়নাল হকের ছেলে মুদি দোকানদার সোহেল রানা তাকে ঝাপটে ধরে গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে নিজ মুদি দোকান ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। 

এছাড়া উপজেলার পৌরসভাধীন হবিপুর গ্রামে সম্প্রতি জনৈক নব-বধূ (২০) কে পাশের বাড়ীর ভন্ডপীর আব্দুল মজিদ ভূইঁয়া (৫০) চিকিৎসার নামে একাধিকবার ধর্ষণ করে ও গত ২৬ এপ্রিল শুক্রবার জামালপুর সদরের রশিদপুর শেখপাড়া গ্রামের সুরুজ আলীর ছেলে মাদকাসক্ত ওয়াসিম (২২) ধনবাড়ী পৌর সভার বর্ণিচন্দবাড়ী গ্রামের ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ওই শিশুর মা বাদী হয়ে ধনবাড়ী থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

অপরদিকে গত ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার রাতে ধনবাড়ী সরকারী নওয়াব ইনস্টিটিউশনের ৯ম শ্রেণীর  শিক্ষার্থীকে ধনবাড়ী পৌর শহরের আম বাগান এলাকার মাহফুজুর রহমান সিয়াম (১৯), মেইন রোড এলাকার ইমরান আলী (২০) এবং ঈদগা রোড এলাকার মিন্টু মিয়া (২৫) এই তিন বখাটে মিলে অপহরণ করে নিয়ে পার্শ্ববর্তী নির্মাণ ইট ভাটার নিকটে একটি সেলো মেশিন ঘরে পর্যায়ক্রমে যৌন নির্যাতন চালায়। যৌন নির্যাতনের পুরো ঘটনার ভিডিও ধারন করে পরিবারের কাছে মোটা টাকা দাবি করে। এ ঘটনায় নির্যাতিত ওই শিক্ষার্থীর বড় ভাই ধনবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করে।

এএএন/এইচকে