সড়ক উদ্বোধন নিয়ে জাফর-নিক্সন সমর্থকদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫

সড়ক উদ্বোধন নিয়ে জাফর-নিক্সন সমর্থকদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ

ফরিদপুর প্রতিনিধি ৩:২১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৭, ২০১৮

সড়ক উদ্বোধন নিয়ে জাফর-নিক্সন সমর্থকদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ

একটি আঞ্চলিক সড়কের উদ্বোধন নিয়ে দ্বন্দ্বে ফরিদপুরের ভাঙ্গায় স্থানীয় এমপি মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহর সমর্থকরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে। এতে গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার নাসিরাবাদ ইউনিয়নের আব্দুল্লাহ বাজারে এ সংঘর্ষ হয়। গুরুতর আহত কাঞ্চন মেম্বার, সুলতান দফাদার ও কালু মাতুব্বরকে ভাঙ্গা, সদরপুর ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে উপজেলার নাসিরাবাদ ইউনিয়নের আব্দুল্লাহ বাজার-ভদ্রকান্দা সড়কটি উদ্বোধন করার কথা ছিল। ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন নিজে এটি উদ্বোধন করবেন বলে আগেই ঘোষণা দেয়া হয়।

কিন্তু, কাজী জাফরউল্লাহর সমর্থকরা সেখানে জমায়েত হয়ে সড়ক উদ্বোধনে বাধা দেয়। খবর পেয়ে নিক্সন চৌধুরীর সমর্থকরাও সেখানে গেলে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে উভয় নেতার সমর্থকেরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হন।

খবর পেয়ে ভাঙ্গা থানা পুলিশ ও ফরিদপুর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ নেয়। পরে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

পরে নিক্সন চৌধুরী অভিযোগ করেন, ‘ফরিদপুর-৪ আসনের মানুষ আমাকে ভোট দিয়ে এমপি বানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আমি সাধ্যমত চেষ্টা করছি। কিন্তু, কাজী জাফর সব সময় আমার ও আমার লোকদের সমস্যা করে আসছেন। সভা-সমাবেশ করতে দেন না। উন্নয়নমূলক কাজে বাধা দেন।’

তিনি বলেন, ‘মঙ্গলবারও তিনি একই কাজ করেছেন। মানুষের ভোট না পেয়ে তিনি জনগণের ওপর ক্ষুব্ধ। এজন্য উন্নয়নমূলক কাজে বাধা দিচ্ছেন। আজ সড়ক উদ্বোধনে বাধা দিতে গেলে জনতা তা প্রতিহত করেন।’

তবে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ বলেন, ‘সড়কটির উন্নয়ন কাজ এনেছেন আমার স্ত্রী সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি এমপি নিলুফার জাফরউল্লাহ। এলাকাবাসী তাকে দিয়েই এটির উদ্বোধন চান। কিন্তু, নিক্সন চৌধুরী জোর করে এটি করতে চাওয়ায় এলাকাবাসী তার সমর্থকদের বাধা দিয়েছে।’

ভাঙ্গা থানার ওসি (তদন্ত) মিরাজ হোসেন পরিবর্তন ডটকমকে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ নেয়। এ সময় ফাঁকা গুলি ও লাঠিচার্জ করতে হয়েছে।

টিআইএইচ/এসএফ/আইএম