শরীয়তপুর-২ আসনে বিএনপির পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

ঢাকা, রবিবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৯ | ৬ মাঘ ১৪২৫

শরীয়তপুর-২ আসনে বিএনপির পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ৮:০৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৮

শরীয়তপুর-২ আসনে বিএনপির পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

শরীয়তপুর-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকরা বিএনপি প্রার্থী শফিকুর রহমান কিরনের টানানো শতাধিক ধানের শীষের পোস্টার ছিড়ে ফেলেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার দুপুরে শরীয়তপুর-২ আসনের সখিপুর থানার দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়নের আফামোল্যার বাজারে ও একই থানার বালার বাজারে প্রায় ৪শতাধিক পোস্টার ছিড়ে ফেলা হয়।

আওয়ামী লীগ সমর্থকরা নির্বাচনী প্রচারণা থেকে বিরত থাকতে হুমকি-ধামকি প্রদান করে বলেও জানান ধানের শীষ সমর্থকরা।

ধানের শীষের পোস্টার টানানোর সময় আওয়ামী লীগের সমর্থকরা হামলা চালিয়ে সখিপুরের চরসেন্সাস ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতিসহ ৭জনকে বেদম মারপিট করে। তাদেরকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

সখিপুরের দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সহ-সভাপতি জাকির হোসেন ফকির জানান, শুক্রবার রাতে শরীয়তপুর-২ আসনের দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়নের আফামোল্যার বাজারে বিএনপির প্রার্থী শফিকুর রহমান কিরণের ধানের শীষের পোস্টারগুলো টানানো হয়। শনিবার দুপুরে দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সমর্থকরা আফামোল্যার বাজারের শতাধিক পোস্টার ছিড়ে ফেলে।

এদিকে একই দিন দুপুরে নির্বাচনী এলাকার বালার বাজারে পোস্টার টানানোর সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা সখিপুরের চরসেন্সাস ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি সোহেল মোল্যা, সাধারণ সম্পাদক মুহিন মুন্সি ও একই ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি সেন্টু দেওয়ান, ছাত্রদল কর্মী সোহাগ, আলতাফ, নাদিম ও সাদেককে বেদম মরপিট করে। পরে আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এরপর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বালার বাজারে টানানো ৪ শতাধিক পোস্টার ছিড়ে ফেলে।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাদেরকে পাওয়া যায়নি।

সখিপুরের দক্ষিন তারাবুনিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সহ-সভাপতি জাকির হোসেন ফকির বলেন, দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মানিক শেখ ও যুবলীগ নেতা কামরুলের নেতৃত্বে ধানের শীষের শতাধিক টানানো পোস্টার ছিড়ে ফেলা হয়েছে।

সখিপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ এনামুল হক বলেন, বালার বাজারে দুই পক্ষের মধ্যে তর্কবির্তকের সংবাদ পেয়ে পুলিশ পাঠিয়েছি। সেখানে পুলিশ গিয়ে পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার কোনো আলামত পায়নি।

বিআর/এএসটি