৫ বছর নিষিদ্ধ শাহাদাত

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

৫ বছর নিষিদ্ধ শাহাদাত

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৫৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০১৯

৫ বছর নিষিদ্ধ শাহাদাত

অপরাধ গুরুতর। খেলা চলাকালীন সতীর্থর ওপর চড়াও হন শাহাদাত হোসেন রাজীব। জাতীয় দলের সাবেক এই পেসার জাতীয় লিগে সতীর্থ আরাফাত সানিকে চড়-থাপ্পড় ও লাথি মারেন।

বিষয়টি বিসিবিতে রিপোর্ট করেন ম্যাচ রেফারি। ফলে বড় শাস্তিই অপেক্ষা করছিল শাহাদাতের কপালে। হলও তাই। তাকে ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে বিসিবি।

এই পাঁচ বছরের মধ্যে ৩ বছর পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা ও ২ বছর স্থগিত নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন শাহাদাত। এর অর্থ তিন বছর নিষেধাজ্ঞার পর খেলায় ফিরতে পারবেন শাহাদাত। তবে এর মধ্যে আচরণ বিধি লঙ্ঘন করলেন বাকি দুই বছরও শাস্তি পেতে হবে তাকে।

অবশ্য এই শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন শাহাদত। সেক্ষেত্রে আগামী ২৬ নভেম্বরের মধ্যে তাকে আপলি করতে হবে।

এর আগেও শাস্তি পেয়েছিলেন শাহাদাত। বছর তিনে আগে গৃহকর্মীকে পিটিয়ে জেল খেটেছিলেন তিনি। নিষিদ্ধ ছিলেন এক বছর। কিন্তু তাতে মোটেও শিক্ষা হয়নি সর্বশেষ ২০১৫ সালে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেওয়া এই ক্রিকেটারের।

জাতীয় লিগে শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে ঢাকা বিভাগ বনাম খুলনা বিভাগের খেলা চলাকালীন এ কাণ্ড ঘটনা রাজীব। ফিল্ডিংয়ের সময় সতীর্থ খেলোয়াড় আরাফাতকে বল ঘষে দেওয়ার জন্য বলেন রাজীব। কিন্তু আরাফাত তা করতে অস্বীকার করলে তার ওপর ক্ষিপ্ত হন রাজীব। মাঠেই আরাফাতকে চড়-থাপ্পড় এমনকি লাথি মারেন রাজীব।

পিএ

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও