বায়ু দূষণ: দিল্লির মাঠেই বমি করেছিলেন দুই বাংলাদেশি ক্রিকেটার

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

বায়ু দূষণ: দিল্লির মাঠেই বমি করেছিলেন দুই বাংলাদেশি ক্রিকেটার

পরিবর্তন ডেস্ক ১:০৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৬, ২০১৯

বায়ু দূষণ: দিল্লির মাঠেই বমি করেছিলেন দুই বাংলাদেশি ক্রিকেটার

দিল্লি জয় করে বাংলাদেশ দল এখন গুজরাটে। সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন মাঠে চলছে রাজকোট জয়ের প্রস্তুতি। কিন্তু আলোচনা থেকে এখনও দিল্লির রেশ কাটেনি।

সাকিব আল হাসান নেই; নেই তামিম ইকবালও। খর্ব-শক্তির একটি দল নিয়ে ভারত গিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু শুরুর ম্যাচেই সাফল্য। মুশফিকুর রহীমের অসামান্য এক ইনিংসে ভর দিয়ে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টিতে ভারতের বিপক্ষে জয় তুলে নিয়েছে টাইগাররা।

অথচ এই ম্যাচে প্রতিপক্ষের মতো বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল দিল্লির ভয়াবহ বায়ু দূষণ। দূষণ মাত্রা এতটাই সীমা ছাড়িয়েছিল যে, জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছিল ভারতের রাজধানী। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছির শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহর দিল্লি। ম্যাচের আগের দিন সেখান কোথাও কোথাও এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) উঠেছিল ৯৮৮তে। বায়ু দূষণের মাত্রা ৩০০ উঠলেই সেটাকে ‘খারাপ’ বলে বিবেচনা করা হয়। ৪০১-৫০০ ‘ভয়াবহ’, আর ৫০০-এর বেশি হলেই জরুরি অবস্থা।

এমন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ দল রীতিমতো গ্যাস চেম্বারে পড়ে গিয়েছিল। যদিও শুরু থেকেই আবহাওয়ার সাথে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছেন ক্রিকেটাররা। তবু ম্যাচ চলাকালে অসুস্থ হয়ে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, বায়ু দূষণে অসুস্থ হয়ে ম্যাচ চলাকালে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার। অবস্থা এমন হয়েছিল যে মাঠেই বমি করে ফেলেছিলেন তারা। তাদের একজন সৌম্য সরকার। অন্যজনের নাম অবশ্য জানাতে পারেনি তারা।

এদিকে রাজকোটে নেই বায়ু দূষণের যন্ত্রণা। শহরটি বেশ পরিচ্ছন্ন। কিন্তু সেখানে চোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘মাহা’। আবহাওয়ার যে রিপোর্ট, তাতে ম্যাচের দিন, অর্থাৎ বৃহস্পতিবার গুজরাটের ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে ঘূর্ণিঝড়টি।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে প্রচুর বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে সেখানে। ফলে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিটি পড়তে পারে বৃষ্টির বাধায়। যদিও সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, বৃষ্টির বিষয়টি মাথায় রেখে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন তারা।

পিএ

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও