দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিল শ্রীলঙ্কা

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিল শ্রীলঙ্কা

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:২৮ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ০৮, ২০১৯

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিল শ্রীলঙ্কা

জোড়াতালির শ্রীলঙ্কাকে পেয়ে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটা ২-০তে জিতে নিয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু টি-টোয়েন্টি সিরিজে বইছে ঠিক তার উল্টো স্রোত। প্রথম টি-টোয়েন্টির মতো কাল রাতে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও স্বাগতিক পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়েছে নড়বড়ে শ্রীলঙ্কা। কাল জিতেছে ৩৫ রানে।

প্রথমে ব্যাট করে সফরকারী শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেটে করেছিল ১৮২ রান। ১৮৩ রানের লক্ষ্যে পাকিস্তান এক ওভার বাকি থাকতেই ১৪৭ রানে অলআউট। টানা দুই জয়ে ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজটা এরই মধ্যে ২-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে সফরকারী লঙ্কানরা। নেওয়া হয়েছে ওয়ানডে সিরিজ হারের চরম প্রতিশোধও।

লঙ্কানদের কালকের জয়ের নায়ক তিনজন। ভানুকা রাজাপাকসা, নুয়ান প্রদীপ ও ভিনিন্দু হাসারাঙ্গা। দলকে নির্ভরযোগ্য পুঁজি এনে দিতে প্রথম জন ব্যাট হাতে খেলেছেন ৭৭ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। দলের ১৮২ রানের পুঁজিটাকে জয়ে রূপ দিতে পরের দুইজন তোপ দেগেছেন বল হাতে। পেস-বাউন্সের ঝড় তুলে নুয়ান প্রদীপ নিয়েছেন ৪ উইকেট। হাসারাঙ্গা স্পিনের মায়াজালে পাকিস্তানের ৩ ব্যাটসম্যানকে।

প্রথম ম্যাচে ১৬৫ রান করেও ৬৪ রানের বিশাল জয় পেয়েছিল সফরকারীরা। সিরজ বাঁচিয়ে রাখতে কাল লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের দ্বিতীয় ম্যাচটিতে পাকিস্তানকে জিততেই হতো। কিন্তু সরফরাজ আহমেদের দল কালও চরমভাবেই ব্যর্থ।

নিরাপত্তার অজুহাতে শ্রীলঙ্কার ১০ জন ক্রিকেটার এই পাকিস্তান সফর থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন। ফল, শ্রীলঙ্কা পাকিস্তান সফরে এসেছে অনভিজ্ঞ তরুণ খেলোয়াড়দের নিয়ে। জোড়াতালির মাধ্যমে গড়া শ্রীলঙ্কার এই দুর্বলতার সুযোগটা ওয়ানডে সিরিজে ভালোভঅবেই কাজে লাগিয়েছিল স্বাগতিক পাকিস্তান। সরফরাজরা হয়তো আশা করেছিলেন, টি-টোয়েন্টিতেও জোড়াতালির লঙ্কানদের খড়কুটোর মতো উড়িয়ে দেবেন। কিন্তু বাস্তবে ঘটছে ঠিক উল্টোটা।

প্রতিপক্ষকে ভাসাতে চেয়ে ভেসে যাচ্ছে নিজেরাই। দ্বিতীয় ম্যাচটিতেও টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং নেন লঙ্কান অধিনায়ক দাসুন শানাকা। কিন্তু শুরুটা তাদের ভালো হয়নি। বরং ৪১ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় শ্রীলঙ্কা। এরপরই দলের হাল ধরেন ভানুকা রাজাপাকসা। একপ্রান্ত আগলে রেখে খেলেছেন ৭৭ রানের ইনিংস। মাত্র ৪৮ বলের ইনিংসটি সাজাতে তিনি হাঁকিয়েছেন ৬টি ছক্কা ও ৪টি চার।

এছাড়া জেহান জয়াসুরিয়া ৩৪ ও অধিনায়ক শানাকা অপরাজিত ২৭ রান করেন। পাকিস্তানি বোলারদের মধ্যে ইমাদ ওয়াসিম, ওয়াহাব রিয়াজ ও শাদাব খান ১টি করে উইকেট নেন। আউট হওয়া শ্রীলঙ্কার বাকি ৩ ব্যাটসম্যানই রানআউট।

লক্ষ্য তাড়ায় পাকিস্তানের শুরুটা ছিল আরও ভয়াবহ। ঠিক প্রথম ম্যাচের মতোই মুহূর্মুহু উইকেট হারিয়ে পরিণত হয় ধ্বংসস্তূপে। ৫২ রানেই হারিয়ে ফেলে ৫ উইকেট। এরপরও পাকিস্তান ১৪৭ রান পর্যন্ত যেতে পেরেছে বোলার ইমাদ ওয়াসিম খাঁটি ব্যাটসম্যান বনে যাওয়ায়। তার ৪৭ রানের ইনিংসের সুবাদেই দেড়শর কাছে যেতে পেরেছে পাকিস্তান।

তিনি ছাড়া বাকিদের মধ্যে আসিফ আলি ২৯, অধিনায়ক সরফরাজ ২৬ ও আহমেদ শেহজাদ ১৩ রান করেছেন। শ্রীলঙ্কান বোলারদের মধ্যে প্রদীপ-হাসারাঙ্গার দাপট ছাড়াও স্পিনার ইসুরু উদানা নিয়েছেন ২টি উইকেট। তবে কোন বোলার নন, ৭৭ রানের ইনিংসের সুবাদে ম্যাচ সেরার পুরস্কারটা পেয়েছেন ব্যাট হাতের কারিগর ভানুকা রাজাপাকসাই।

২-০তে সিরিজ জিতে নেওয়ার পর লঙ্কানদের সামনে এখন প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করার সুযোগ। আগামীকাল বুধবার সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে জিতলে কাজটা সেরেও ফেলতে পারবে তারা।

কেআর

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও