সরফরাজদের পাত থেকে মুরগি তুলে নিলেন মিসবাহ

ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সরফরাজদের পাত থেকে মুরগি তুলে নিলেন মিসবাহ

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:১১ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

সরফরাজদের পাত থেকে মুরগি তুলে নিলেন মিসবাহ

বিশ্বকাপের পর আমূল পরিবর্তনে এনেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। চাকরি হারিয়েছেন হেড কোচ মিকি আর্থারসহ কোচিং স্টাফ। ঢেলে সাজানো হয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটের পদ্ধতিও। নতুন কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে দেশটির সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ উল হককে।

অবশ্য এত পরিবর্তনের পরও টিকে গেছেন সরফরাজ আহমেদ। বিশ্বকাপ চলাকালীন সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হয়েছেন দলটির অধিনায়ক সরফরাজ। তখন ভাবা হয়েছিল, অধিনায়কত্ব বুঝি হারাতে যাচ্ছেন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ী এই অধিনায়ক। কিন্তু নির্বাচকরা শেষ পর্যন্ত সরফরাজেই আস্থা রেখেছেন।

অবশ্য এই আস্তা শুধু মাত্র আসন্ন শ্রীলঙ্কা সিরিজ পর্যন্ত। পিসিবির নতুন ভাবনা অনুযায়ী প্রতি সিরিজেই নতুন করে অধিনায়ক নির্বাচন করা হবে।

এদিকে কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েই নতুন কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করেছেন মিসবাহ। তার মধ্যে একটি হচ্ছে সরফরাজদের খাদ্য তালিকায় পরিবর্তন।

এমনিতেই ভোজন রসিক হিসেবে বেশ পরিচিত সরফরাজরা। বিশ্বকাপের আগে জানা গিয়েছিল, কাচ্চি-বিরানি বেশ পছন্দ তাদের। এ নিরয়ে বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন ওয়াসিম আকরাম পর্যন্ত। বিশ্বকাপ চলাকালীন পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের ফিটনেস নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল।

ফলে সব দিক বিবেচনায়, মিসবাহ সরফরাজদের খাদ্য তালিকায় সবধরনের মুরগিজাতীয় খাবারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন। পাকিস্তানি দৈনিক জাং জানিয়েছে, খেলোয়াড়দের স্কিল ও ফিটনেস নিশ্চিত করতে চলতি কায়েদে আজমের ম্যাচে এবং জাতীয় একাডেমিতে থাকা খেলোয়াড়দের পাতে মুরগিজাতীয় যেকোনো খাবার পুরোপুরি নিষিদ্ধ করেছেন তিনি।

এই সিদ্ধান্তের পর লাহোরে জাতীয় একাডেমি ও কায়েদে আজম ট্রফিতে খেলোয়াড়দের খাদ্য তালিকায় তৈলাক্ত খাবার কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার বদলে মসুর ডাল, চাল, বারবিকিউ, পাস্তাজাতীয় খাবার দেয়া হচ্ছে খেলোয়াড়দের। এছাড়া থাকছে প্রচুর ফলমূল।

পিএ

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও