বাংলাদেশের শিরোপা কেড়ে নিল আম্পায়ারের অঙুলি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | ২ কার্তিক ১৪২৬

অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ

বাংলাদেশের শিরোপা কেড়ে নিল আম্পায়ারের অঙুলি

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:৩৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

বাংলাদেশের শিরোপা কেড়ে নিল আম্পায়ারের অঙুলি

ক্রিকেটে নিজেদের যাত্রার শুরু থেকেই আম্পায়ারদের ভুল সিদ্ধান্তের বলি হয়ে আসছে বাংলাদেশ। আম্পয়ারদের ভুল অঙুলি প্রদর্শন অনেক বারই কেড়ে নিয়েছে বাংলাদেশের জয়। এবার শুধু জয় নয়, আম্পায়ারের অঙুলি বাংলাদেশের কাছ থেকে কেড়ে নিল শিরোপাই।

আজ শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে বাংলাদেশকে হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের শিরোপা জিতেছে ভারত। আসলে ভারত শিরোপা জিতেনি! বাংলাদেশের কাছ থেকে কেড়ে নিয়ে ভারতকে শিরোপাটা উপহার দিয়েছে আম্পায়ারের একটি নির্লজ্ব ভুল সিদ্ধান্ত।

প্রথমে ব্যাটিং করা ভারতকে মাত্র ১০৬ রানে গুটিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বোলাররা। ৫০ ওভার বা ৩০০ বলে এই রান টপকাতে না পারাটা ব্যাটসম্যানদের চরম ব্যর্থতারই প্রমাণ। বাংলাদেশের যুবা দলের ব্যাটসস্যানদের নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার সুযোগও নেই!

কিন্তু প্রতিষ্ঠিত ব্যাটসম্যানদের চরম ব্যর্থতার পরও কলম্বোর লো-স্কোরিং ম্যাচটাতে নাটকীয়ভাবে জিততে যাচ্ছিল বাংলাদেশই। কিন্তু আম্পায়ার জিততে দিলেন না। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে একটা ভুল সিদ্ধান্ত দিয়ে আম্পায়ার কেড়ে নিয়েছেন বাংলাদেশের জয়।

১০৭ রানের লক্ষ্যে এক পর্যায়ে ৭৮ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। সেখান থেকে লেজের দিকের দুই ব্যাটসম্যান তানজিন হাসান সাকিব ও রাকিবুল ইসলাম দলকে টেনে নিয়ে যান জয়ের দ্বারপ্রান্তে। দুজনে মিলে ২৭ রানের জুটি গড়ে দলকে ৭৮ থেকে নিয়ে যান ১০১ রানে। মানে জয় থেকে বাংলাদেশ তখন মাত্র ৬ রান দূরে।

শিরোপাটাকে তখন বাংলাদেশের হাতের মুঠোয়ই মনে হচ্ছিল। কারণ, তখনও ওভার বাকি ১৭.৪টি। তানজিন এবং রাকিবুল, দুজনে ব্যাট্ও করছিলেন বেশ স্বাচ্ছন্দে। ঠিক তখনই ভুলটা করলেন আম্পায়ার। ভারতের বাঁ-হাতি স্পিনার আথর্ভ আনকোলেকারের আবেদনে সারা দিয়ে তানজিনকে এলবিডব্লিও ঘোষণা করেন আম্পায়ার।

কিন্তু টেলিভিশন রিপ্লেতে পরিস্কার, প্যাডে লাগার আগে বল তানজিনের ব্যাটে লেগেছিল। টেলিভিশনে বল ব্যাটে লাগার শব্দও শোনা গেছে। কিন্তু টেলিভিশনে শোনা গেলেও সেই শব্দ আম্পায়ার শোনেননি। আনকোলেকার আবেদন করার সঙ্গে সঙ্গেই আম্পায়ার পকেটে ঢুকিয়ে রাখা আঙুল উঁচিয়ে ধরেন আকাশের দিকে। ঘোষণা করেন তানজিনের ইনিংস-মৃত্য। তাতে ঘোষিত হয়ে যায় বাংলাদেশের জয় স্বপ্নের মৃত্যুও।

কারণ, ৩৫ বলে ১২ রান করা তানজিন ফিরে যাওয়ার ৩ বল পর ওই আনকোলেকারের বলেই আউট হয়ে যান শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নামা শাহিন আলম। ফলে ১০১ রানেই থামে বাংলাদেশের যুবাদের ইনিংস। হারতে হারতে ভারত জিতে যায় ৫ রানে। পেয়ে যায় শিরোপার স্বাদ।

কবে যে আম্পায়ারদের এমন নির্লজ্ব ভুলের অভিশাপ থেকে মুক্তি পাবে বাংলাদেশ!

কেআর

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও