জিম্বাবুয়েও ভয়ের বার্তাই দিয়ে রাখল

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

জিম্বাবুয়েও ভয়ের বার্তাই দিয়ে রাখল

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৬:০১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯

জিম্বাবুয়েও ভয়ের বার্তাই দিয়ে রাখল

একমাত্র টেস্টে নাস্তানুবাদ করে ২২৪ রানের বিশাল জয় তুলে নিয়েছে আফগানিস্তান। টেস্টের পারফরম্যান্স স্পষ্টই বলে দিচ্ছে, ত্রিদেশিয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে বড় হুমকিই হবে আফগানিস্তান। ভয়ের হুমকির বার্তা দিয়ে রাখল টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় দল জিম্বাবুয়েও। আজ ফতুল্লায় একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশকে হারানোর মধ্যদিয়েই ভয়ের বার্তাটা দিয়ে রাখল জিম্বাবুয়ে।

ফতুল্লায় একমাত্র প্রস্ততি ম্যাচটা যে পাত্তাই পায়নি তারকাখচিত বিসিবি একাদশ। হ্যাঁ তারকাখচিতই। মুশফিকুর রহীম, সাব্বির রহমান ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন-জাতীয় দলের এই তিন তারকারই মাঠে নেমেছিলেন প্রস্তুতি ম্যাচে। কিন্তু তিনজনের কেউই টি-টোয়েন্টি রূপ দেখাতে পারেননি। তাদের সঙ্গে অন্যরাও ব্যর্থ। ফল, সফরকারী জিম্বাবুয়ে অনায়াসেই তুলে নিয়েছে ৭ উইকেটের জয়।

প্রথমে ব্যাট করে বিসিবি একাদশ ৭ উইকেট হারিয়ে তুলেছিল ১৪২ রান। এই রান জিম্বাবুয়ে টপকে গেছে ৭ উইকেট আর ১৬ বল হাতে রেখেই। ২.৪ ওভার থাকতেই ৭ উইকেটের জয়। এই তথ্যই বলছে, মুশফিক-সাব্বির-সাইফউদ্দিনদের বিসিবি একাদশ পাত্তা পায়নি।

টস জিতে বিসিবি একাদশের অধিনায়ক সাইফ হাসান ব্যাটিংয়ে নামে প্রথমে। বিসিবি একাদশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩০ রান করেছেন সাব্বির। কিন্তু এই রান করতে তিনি খেলেছেন ৩১ বল। যা কিছুতেই টি-টোয়েন্টির জন্য আদর্শ পরিসংখ্যান নয়। একই চিত্র অন্যদেরও। মুশফিক ২৬ বলে করেছেন ২৬। মোহাম্মদ নাইম ১৪ বলে ২৩, অধিনায়ক সাইফ হাসান ১৯ বলে ২১, সাইফউদ্দিন ৭ বলে করেছেন ৭ রান।

১৪৩ রানের লক্ষ্যে জিম্বাবুয়ে শুরুটাই করে ঝড়ো গতিতে। ৪.৫ ওভারের উদ্বোধনী জুটিতেই তুলে নেয় ৪২ রান। এরপর অবশ্য দ্রুতই ৩ উইকেট তুলে নিয়ে অন্য রকম একটা আভাস দিয়েছিলেন আফিফ হোসেন। বিনা উইকেটে ৪২ থেকে জিম্বাবুয়েকে দ্রুতই তিনি পরিণত করেন ৩ উইকেটে ৬৬ রানের দলে।

কিন্তু অন্য বোলাররা তাকে যোগ্য সঙ্গ দিতে না পারায় জিম্বাবুয়ে আর উইকেটই হারায়নি। ওই ৩ উইকেটেই ১৭.২ ওভারে পৌঁছে গেছে লক্ষ্যে (১৪৪/৩)। দলকে জেতানোর পথে ওপেনার ব্রেন্ডন টেলর ৪৪ বলে করেছেন অপরাজিত ৫৭ রান। এই ইনিংসটি সাজিয়েছেন ২টি চার ও ৩টি ছক্কা। টেলরের চেয়েও বড় ঝড়টা তুলেছিলেন টিমিসেন মারুমা। ১ ছক্কা ও ৫ চারে তিনি মাত্র ২৮ বলেই করেছেন অপরাজিত ৪৬ রান।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট এবং জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচের এই পারফরম্যান্স ভয়ের কারণই।

কেআর

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও