হেডিংলিতে উল্টো ইংলিশরাই ভস্ম

ঢাকা, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

হেডিংলিতে উল্টো ইংলিশরাই ভস্ম

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৪০ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০১৯

হেডিংলিতে উল্টো ইংলিশরাই ভস্ম

হেডিংলি টেস্টের প্রথম দিনে বৃষ্টির মধ্যেও আগুন ঝরিয়েছিলেন জাফরা আর্চার। সেই আগুনে পুড়ে অস্ট্রেলিয়া অলআউট হয় মাত্র ১৭৯ রানে। তখন কে আন্দাজ করতে পেরেছিল আর্চারের অগ্নিরূপ দেখে হ্যাজলউড, কামিন্স, প্যাটিনসনরা আরো বেশি অগ্নিশর্মা হয়ে উঠার পণ করে বসে আছেন। কেউ কল্পনা করতে না পারলেও কাল হেডিংলিতে হয়েছে সেটিই। আচারে অনুপ্রাণিত হয়ে জস হ্যাজলউড, প্যাট কামিন্স, জেমস প্যাটিনসনরা এমন অগ্নিশর্মা হয়ে দেখা দেন যে, ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা তার জবাব খুঁজে পায়নি।

অস্ট্রেলিয়ার তিন পেসারের সম্মিলিত অগ্নিকুণ্ডে পড়ে বরং ভস্ম হয়েছে ইংলিশরা। আক্ষরিক অর্থেই ভস্ম হয়েছে জো রুটের দল। প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার ১৭৯ রানের জবাবে ইংল্যান্ড অলআউট হয়েছে মাত্র ৬৭ রানে। ফল, প্রথম দিন শেষে যে অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাকফুটে মনে হচ্ছিল, দ্বিতীয় দিন শেষে সেই অস্ট্রেলিয়ার হাতেই হেডিংলি টেস্টের লাগাম।

টেস্টের গতি-প্রকৃতি যেমন, তাতে একটু ঝুঁকি নিয়ে এটাও বলা যায়, দ্বিতীয় দিন শেষেই জয় দেখতে পাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় দিন শেষেই যে অস্ট্রেলিয়ার হাতে ২৮৪ রানের বিশাল লিড।

ইংলিশরা ৬৭ রানে গুটিয়ে যাওয়ায় মাত্র ১৭৯ রান করেও প্রথম ইনিংসে ১১৩ রানের বিশাল লিড পায় সফরকারী অস্ট্রেলিয়া। এই লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে দ্বিতীয় দিন শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ১৭১ রান। এ পথ হাঁটতে অবশ্য অস্ট্রেলিয়ানরাও ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলেছে।

তবে এরই মধ্যে অসিদের হাতে ২৮৪ রানের লিড। হাতে আরও ৪টি উইকেট আছে। সেই ৪ উইকেটে যদি আর ১৬ রানও যোগ করতে পারে, তাহলেও অসিদের লিডটা দাঁড়াবে ৩০০। হেডিংলিতে যেভাবে পেসাররা আগুনের স্ফূলিঙ্গ ঝরাচ্ছেন, তাতে চতুর্থ ইনিংসে ৩০০ তাড়া করে জেতাটা স্বাগতিক ইংলিশদের জন্য বলতে গেলে অসম্ভবই হয়ে দাঁড়াবে।

১১ ব্যাটসম্যানের সম্মিলিত রানের সঙ্গে অতিরিক্ত খাতের রান মিলিয়ে সংগ্রহ মোটে ৬৭। এতেই স্পষ্ট, অসি পেসারদের তোপের মুখে ইংল্যান্ডের কোনো ব্যাটসম্যানই কোমর সোজা করে দাঁড়াতে পারেননি। ১১ জনের মধ্যে দুই অঙ্ক ছুঁতে পেরেছেন মাত্র একজন! জো ডেন্টি করেছেন ১২ রান। বাকি ১০ জনই আউট হয়েছেন এক অঙ্কের ঘরে।

অস্ট্রেলিয়ার তিন পেসার সম্মিলিতভাবেই ইংলিশদের জন্য চিতাটা জ্বালিয়েছিলেন। তবে তাতে নেতৃত্ব দিয়েছেন হ্যাজলউড। তিনি ১২.৫ ওভারে মাত্র ৩০ রান খরচায় তুলে নিয়েছেন ৫ উইকেট। ৯ ওভারে ২৩ রান দিয়ে কামিন্স নিয়েছেন ৩ উইকেট। ৫ ওভারে ৯ রান দিয়ে প্যাটিনসন ২টি।

ইংলিশদের অল্প রানে গুটিয়ে দেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও অস্ট্রেলিয়ার শুরুটা ভালো হয়নি। দ্বিতীয় ওভারেই স্টুয়ার্ট ব্রডের শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন ডেভিড ওয়ার্নার। চোটের কারণে অস্ট্রেলিয়ার সেরা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ এই টেস্টটা খেলছেন না। অসিরা স্মিথের অভাবটা বেশ ভালোভাবেই বুঝতে পারছে ঠিক, তবে তাতে ইংলিশদের মতো মুখ থুবড়ে পড়েনি। মার্কাস লাবুসাঙ্গের নেতৃত্বে বরং দ্বিতীয় ইনিংসেও লড়াইটা করে যাচ্ছে ভালোভাবেই। যে লড়াইয়ের ফসল হিসেবে এরই মধ্যে জয় দেখতে পাচ্ছে।

ওয়ার্নারের পথ ধরে মার্কাস হ্যারিস (১৯), উসমান খাজা (২৩), ট্রাভিস হেড (২৫), ম্যাথু ওয়েড (৩০) ও টিম পাইনেরা (০) ফিরে গেলেও অসিদের সামনে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন প্রথম ইনিংসের নায়ক লাবুসাঙ্গে।

প্রথম ইনিংসে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৪ রানের ইনিংস খেলা লাবুসাঙ্গে দ্বিতীয় ইনিংসেও তুলে নিয়েছেন হাফসেঞ্চুরি। দিন শেষে অপরাজিত আছেন ৫৩ রানে। তার সঙ্গী জেমন প্যাটিনসন এখনো রানের খাতা খুলেননি। দ্বিতীয় ইনিংসে ইংলিশ বোলারদের মধ্যে ব্রড ও বেন স্টোকস ২টি করে উইকেট নিয়েছেন। এ ছাড়া ক্রিস ওকস ও লিচ নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।

কেআর

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও