আর্চার আগুন থেকে বৃষ্টিও বাঁচাতে পারল না অস্ট্রেলিয়াকে

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

আর্চার আগুন থেকে বৃষ্টিও বাঁচাতে পারল না অস্ট্রেলিয়াকে

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:০১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৩, ২০১৯

আর্চার আগুন থেকে বৃষ্টিও বাঁচাতে পারল না অস্ট্রেলিয়াকে

হেডিংলি টেস্টের প্রথম দিনটিতে দাপট ছিল কার? উত্তরে বলতে হবে দুটি নাম। বৃষ্টি আর জাফরা আর্চার। প্রথম দিনে খেলা হয়েছে মাত্র ৫২.১ ওভার। দিনের বাকি ৩৭.৫ ওভারই খেয়ে ফেলেছে বৃষ্টি আর আলোক স্বল্পতা।

এই হিসাব বলছে প্রথম দিনে বৃষ্টির দাপটই ছিল বেশি। কিন্তু স্কোরকার্ড বলবে বৃষ্টির চেয়েও বেশি তাণ্ডব চালিয়েছেন জাফরা আর্চার। একদিকে বৃষ্টির ফোটা ভিজিয়েছে পিচ-মাঠ। অন্যদিকে সেই ভেজা পিচেই বল হাতে আগুন ঝরিয়েছেন আর্চার।

ক্যারিবীয়-ইংলিশ বোলারের বলের আগুনের তাণ্ডব এত বেশি ছিল যে, বৃষ্টিও সেই উগন থেকে অস্ট্রেলিয়াকে বাঁচাতে পারেনি। বৃষ্টিভেজা দিনেও আর্চার আগুনে পুড়ে ছাই হয়েছে অজিরা। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ১৭৯ রানেই অলআউট হয়ে গেছে।

অজিদের প্রথম দিনেই গুঁড়িয়ে দিতে আর্চার একাই নিয়েছেন ৬ উইকেট। সেটিও ১৭.১ ওভারে মাত্র ৪৫ রান দিয়ে। লর্ডসে অভিষেক টেস্টের দুই ইনিংস মিলিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন ক্যারিবীয় বশোদ্ভূত ইংলিশ পেসার। হেডিংলিতে প্রথম ইনিংসেই পেয়ে গেলেন ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ৫ উইকেটের দেখা। ২৫ ছুঁইছুঁই আর্চার যে ওয়ানডের মতো টেস্টেও দ্রুতই ইংলিশ বোলিং আক্রমণের প্রধান অস্ত্র হতে যাচ্ছেন, সেই আভাসই মিলছে।

বৃষ্টিভেজা পিচে দিনের দ্বিতীয় এবং নিজের প্রথম ওভার থেকেই আগুন ঝরাতে শুরু করেন আর্চার। তার একেকটি ডেলিভারি যেন অগ্নিগোলা হয়ে ধেয়ে যায় অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের দিকে। কোকড়া চুলের বোলার উইকেট সাফল্যও পেয়ে যান নিজের দ্বিতীয় ওভারেই।

দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে ফিরিয়ে দেন মার্কাস হ্যারিসকে (৮)। তার ডেলিভারিটি সাপের ফনা তুলে হ্যারিসের ব্যাটের কানায় লেগে জমা পড়ে উইকেটরক্ষক জনি বেয়ারস্টোর গ্লাভসে। এই শুরু। এর পর একে একে অস্ট্রেলিয়ার আরও ৫ ব্যাটসম্যানকে সাজঘরের বাসিন্দা বানিয়েছেন আর্চার। যে তালিকায় রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অন্য ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার, ম্যাথু ওয়েড, জেমস প্যাটিনসন, প্যাট কামিন্স ও নাথান লায়ন।

হ্যারিসকে আউট করে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপে ভাঙন শুরু করেছিলেন তিনি। নাথান লায়নকে ফিরিয়ে দেওয়ার মধ্য দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের শেষও করেছেন তিনিই। মাঝে স্টুয়ার্ট ব্রড ২টি এবং ক্রিস ওকস ও বেন স্টোকস একটি করে উইকেট নিয়েছেন।

আর্চার তাণ্ডবের মধ্যেও অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার দুইজন ব্যাটসম্যান অনেকটা ধৈর্যের পরীক্ষা দিয়েছেন। ডেভিড ওয়ার্নার ও মারনাস লাবুসাঙ্গে মিলে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে চেষ্টা করেছিলেন দলকে নিরাপদ ঠিকানায় পৌঁছে দেওয়ার। ২৫ রানে ২ উইকেট হারানোর পর দুইজনে মিলে তৃতীয় উইকেটে গড়েন ১১১ রানের জুটি।

তবে ওয়ার্নার-লাবুসাঙ্গের এই প্রতিরোধ দেয়ালও ভাঙেন আর্চারই। ৬১ রান করা ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে ভাঙেন তাদের জুটি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৪ রান করা লাবুসাঙ্গেকে বিদায় করেন বেন স্টোকস। এই দুইজনের বাইরে অস্ট্রেলিয়ার বাকি ৯ ব্যাটসম্যানের মধ্যে দুই অঙ্ক ছুঁতে পেরেছেন মাত্র একজন। সেই টিম পাইনেও করেছেন মাত্র ১১ রান। বাকি ৮ ব্যাটসম্যানই টেলিভিশন ডিজিটের শিকার। তার মধ্যে ৩ জন মেরেছেন ডাক।

প্রথম টেস্টে জিতে ৫ ম্যাচের অ্যাশেস সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেছে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া। হেডিংলি টেস্টটা তাই স্বাগতিক ইংলিশদের জন্য সমতায় ফেরার মিশন। ইংলিশরা তা পারবে কিনা বলবে সময়। তবে প্রথম দিনে বল হাতে আগুনের স্ফূলিঙ্গ ঝরিয়ে জাফরা আর্চার সেই সম্ভাবনার সলতেটা জ্বেলে দিলেন দারুণভাবেই।

কেআর 

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও