সেই ওভারথ্রো নিয়ে পর্যালোচনা করবে এমসিসি

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সেই ওভারথ্রো নিয়ে পর্যালোচনা করবে এমসিসি

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:৫০ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৪, ২০১৯

সেই ওভারথ্রো নিয়ে পর্যালোচনা করবে এমসিসি

এবারের বিশ্বকাপের ফাইনালের ওভারথ্রো-কাণ্ড নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসের চির আক্ষেপ হয়ে থাকবে। ওই কাণ্ডে আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তেই শিরোপার লড়াই থেকে অনেকটা ছিটকে পড়ে কিউইরা। ম্যাচ ঘুরে যায় ইংল্যান্ডের দিকে।

পরে রোমাঞ্চকর সুপার ওভারে জিতে প্রথমবারের মতো শিরোপা ঘরে তোলে ইংলিশরা। আর টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেও শিরোপার স্পর্শ পায়নি কেন উইলিয়ামসনের দল।

ফাইনালে হেরে অবশ্য ওই কাণ্ড নিয়ে চুপই ছিলেন কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসন। কিন্তু বিশ্ব জুড়ে বিষয়টি নিয়ে ওঠে বিতর্ক। সেই বিতর্কও ধীরে ধীরে স্তিমিত হয়ে পড়ছে। এর মধ্যে ক্রিকেটের নীতি নির্ধারণ সংস্থা মেরিলিবোর্ন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি) জানিয়েছে, সেই বিতর্কিত ওভারথ্রো নিয়ে সেপ্টেম্বরে পর্যালোচনা করবে তারা।

ঘটনাটি ফাইনালের শেষ ওভারের। সেসময় শেষ ৩ বলে জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ৯ রান। ট্রেন্ট বোল্টের করা চতুর্থ বলটি ডিপ মিড উইকেটে ঠেলে দিয়ে দুই রান নেওয়ার চেষ্টা করেন বেন স্টোকস।

এ সময় মার্টিন গাপটিলের থ্রো স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারি পার হয়ে যায়। ফলে আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা মোট ছয় রানের কল দেন— বাউন্ডারি+দুই রান দৌড়ে।

এটা নিয়েই সৃষ্টি হয় বিতর্ক। অন ফিল্ড আম্পায়ার ওভারথ্রো হিসাবে ৬ রান দিলেও সাবেক আইসিসি এলিট প্যানেলে থাকা আম্পায়ার পরে দাবী করেছেন গাপটিল বল ছোঁড়ার সময় ক্রিজে দুই ব্যাটসম্যান একে অপরকে ক্রস করেননি। ফলে ৬ রান নয় ইংল্যান্ডের প্রাপ্য ছিল ৫ রান।

এমন পরিস্থিতিতে আইসিসি ধর্মসেনার পক্ষেই দাঁড়িয়েছিল। ক্রিকেটের নিয়ন্তা সংস্থাটি জানিয়েছিল, আম্পায়ার নিয়ম মেনেই সিদ্ধান্ত দিয়েছেন।

এবার বিষটি নিয়ে মুখ খুলেছে এমসিসি। সোমবার এমসিসির বিশ্ব ক্রিকেট কাউন্সিলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে ওভারথ্রো নিয়ে বিতর্কের দিকে নজর রেখে ওভারথ্রো-এর ১৯.৮ ধারা নিয়ে আলোচনা করা হবে। এই বিষয়ে যা আইন আছে তা স্পষ্ট হলেও ফাইনালের বিতর্কিত ওভারথ্রো নিয়ে সেপ্টেম্বরেই সাব কমিটি পর্যালোচনায় বসবে।’

পিএ

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও