এখন থেকে ক্রিকেটেও বদলি খেলোয়াড়!

ঢাকা, ২০ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

এখন থেকে ক্রিকেটেও বদলি খেলোয়াড়!

পরিবর্তন ডেস্ক ২:৫৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৯, ২০১৯

এখন থেকে ক্রিকেটেও বদলি খেলোয়াড়!

ফুটবলসহ অনেক খেলাতেই বদলি খেলোয়াড় নামানো হয়। এখন থেকে বদলি খেলোয়াড় নামাতে দেখা যাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও।

লন্ডনে আইসিসি’র বার্ষিক সম্মেলনে বৃহস্পতিবার বদলি খেলোয়াড় নামানোর আইনটি পাস হয়েছে।

তবে ফুটবলের মতো ইচ্ছা করলেই খারাপ খেলতে থাকা একজন তুলে নিয়ে অন্যজনকে নামিয়ে দেয়া যাবে না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বদলি নামানো যাবে শুধু মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের।

মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের বদলি নামানোর বিষয়টি আইসিসি’র ভাবনায় আসে বেশ কয়েক বছর আগেই। গত দুই বছর ধরে সদস্য দেশগুলোর ঘরোয়া ক্রিকেটে আইনটির মহড়াও দেয়া হয়েছে।

ঘরোয়া ক্রিকেটের গণ্ডি পেরিয়ে এবার আইনটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পূর্বঘোষণা মতোই আইনটির যাত্রা শুরু হতে যাচ্ছে আসন্ন অ্যাশেস সিরিজ থেকে।

আগামী ১ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে অ্যাশেস সিরিজ। এই সিরিজ দিয়েই আবার শুরু হতে যাচ্ছে ২০১৯-২০২১ মেয়াদী বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। এই অ্যাশেসেই মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের বদলি নামাতে পারবে ইংল্যান্ড কিংবা অস্ট্রেলিয়া।

প্রথমে শুধু টেস্টেই বদলি খেলোয়াড় নামানোর বিধানটি কার্যকর করার কথা ভাবা হয়েছিল। কিন্তু, সেই ভাবনা থেকে সরে এসে আইসিসি পুরুষ এবং নারী ক্রিকেটের সব সংস্করণেই আইনটি কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মানে পুরুষ এবং নারীদের টেস্ট, ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি— তিন সংস্করণের ক্রিকেটেই বদলি নামানো যাবে।

ক্রিকেট খেলতে গিয়ে মাথায় আঘাত পেয়েছেন অনেক ক্রিকেটাররাই। এবারের বিশ্বকাপেও দক্ষিণ আফ্রিকার হাশিম আমলা এবং অস্ট্রেলিয়ার উসমান খাজা মাথায় আঘাত পান। মাথায় প্রচণ্ড আঘাতে অনেকে মৃত্যুবরণও করেছেন।

তবে ২০১৪ সালের নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ক্রিকেটার ফিলিপ হিউজের মৃত্যু ক্রিকেট দুনিয়ায় সাড়া ফেলেছিল ব্যাপকভাবে। অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া টুর্নামেন্ট শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচে ব্যাটিং করার সময় মাঘায় আঘাত পেয়ে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

এরপর থেকেই মূলত মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের বদলি নামানোর ভাবনাটা মাথায় আসে। শুরু হয় ব্যাপক আলোচনাও। সেই আলোচনার ফসল হিসেবেই ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটেই প্রথম বদলি খেলোয়াড় নামানোর নিয়মটি চালু করা হয়। এরপর থেকে আইসিসি’র অন্য সদস্য দেশগুলোর ঘরোয়া ক্রিকেটেও তা কার্যকর করা হয়।

লন্ডনের বার্ষিক সম্মেলনে আরও একটি বিষয়ে নতুন আইন করা হয়েছে। সেটি হচ্ছে স্লো ওভার রেট নিয়ে। স্লো ওভার রেটের জন্য এতদিনও শাস্তির বিধান ছিল। তবে সেই শাস্তিটা ছিল সংশ্লিষ্ট দলের শুধু অধিনায়ককে নিষিদ্ধ এবং জরিমানা করা হতো। কিন্তু, এখন থেকে শুরু অধিনায়ক একা শাস্তি ভোগ করবেন না। মারাত্মক স্লো ওভার রেট এবং তার পুনরাবৃত্তি ঘটলে, সংশ্লিষ্ট দলের সব খেলোয়াড়কেই তার দায় নিতে হবে। সবাইকে গুণতে হবে জরিমানার টাকা।

কেআর

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও