জিম্বাবুয়ের আইসিসি’র সদস্য পদ স্থগিত

ঢাকা, ২২ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

জিম্বাবুয়ের আইসিসি’র সদস্য পদ স্থগিত

পরিবর্তন ডেস্ক ২:২৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৯, ২০১৯

জিম্বাবুয়ের আইসিসি’র সদস্য পদ স্থগিত

জিম্বাবুয়ের উপর শাস্তি নেমে আসবে, এটা অনুমিতই। কিন্তু, যেমনটা ধারণা করা হচ্ছিল, জিম্বাবুয়ের উপর নেমে এল তার চেয়ে কঠিন শাস্তি।

দেশের ক্রিকেট বোর্ড ভেঙে দিয়ে বিধিবর্হিভূতভাবে মধ্যবর্তী কমিটি করে দেয়ার অপরাধে জিম্বাবুয়ের সদস্য পদ স্থগিত করে দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

গত এক সপ্তাহে লন্ডনে একাধিক বৈঠকের পরই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। ক্রিকেট বোর্ড পরিচালনায় সরকারের হস্তক্ষেপ থাকা যাবে না— এটাই আইসিসির বিধান। কিন্তু, আইসিসি’র এই বিধানকে সেই ২০০৪ সাল থেকেই বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে আসছে জিম্বাবুয়ে সরকার।

তারপরও এতদিন দেশের ক্রিকেট পরিচালনার দায়িত্বে একটা ক্রিকেট বোর্ড ছিল। কিন্তু, গত জুনে দেশের সেই ক্রিকেট বোর্ডটাও ভেঙে দিয়ে মধ্যবর্তী কমিটি করে সরকার, যা আইসিসি’র গঠনতন্ত্রের ২.৪ অনুচ্ছেদের সি ও ডি ধারার সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

এ নিয়ে গত এক মাসে জিম্বাবুয়ের কর্তাদের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করে সতর্কও করেছে আইসিসি। কিন্তু, জিম্বাবুয়ের সরকার তাতে কর্ণপাত করেননি। আইসিসি’র পরিচালনা বোর্ড তাই বাধ্য হয়েই জিম্বাবুয়ের সদস্য পদ স্থগিত করল। যার অর্থ, এই স্থগিত নিষেধাজ্ঞা বদলবৎ থাকা পর্যন্ত জিম্বাবুয়ে আইসিসি’র কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবে না! মানে টেস্ট খেলুড়ে দেশটি আপাতত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারবে না।

এক বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি’র চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহর বলেন, ‘আমরা অবশ্যই ক্রীড়াঙ্গনকে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের বাইরে রাখব। জিম্বাবুয়ে যেটা করেছে, তা আইসিসি’র গঠনতন্ত্রের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। আমরা কিছুতেই এটা চলতে দিতে পারি না।’

এই সিদ্ধান্তের ফলে আগামী আগস্টে নারী ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে এবং অক্টোবরে অনুষ্ঠিতব্য ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টির বাছাইপর্বে জিম্বাবুয়ের অংশগ্রহণটা অনিশ্চিত হয়ে পড়ল। কারণ, এই সদস্য পদ স্থগিতের বিষয়ে পুনরায় সিদ্ধান্ত নেয়া হবে আগামী অক্টোবরের আইসিসি’র বোর্ড সভায়।

কেআর

 

ক্রিকেট: আরও পড়ুন

আরও