হাথুরুসিংহে নেই বলেই টাইগারদের ড্রেসিংরুম চাপমুক্ত!

ঢাকা, শনিবার, ২১ জুলাই ২০১৮ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৫

ত্রিদেশীয় সিরিজ

হাথুরুসিংহে নেই বলেই টাইগারদের ড্রেসিংরুম চাপমুক্ত!

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৬:৪৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

print
হাথুরুসিংহে নেই বলেই টাইগারদের ড্রেসিংরুম চাপমুক্ত!

ভারতের বিপক্ষে একরকম জোর করিয়েই মোস্তাফিজুর রহমানকে খেলালেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। মাহমুদউল্লাহকে বাদ দেওয়ায় অনেকটা যুদ্ধ করেই শ্রীলঙ্কা সিরিজ ও চ্যাম্পিয়ন ট্রফির দলে নিয়েছিলেন। মুশফিকুর রহীমকে প্রায় প্রতি নিয়তই সীমিত ওভারের ক্রিকেট থেকে বাদ দিতে চাওয়া তখনকার কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের সাথেও লড়েছেন। এসব মাশরাফি পারেন তার মাশরাফির একরোখা চরিত্রের কারণে। এতো গেল কিছু যুদ্ধ জয়ের গল্প। হেরেছেন এমন অনেক উদাহরণও ভুরি ভুরি। মাঠে প্রায়ই কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হতো নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে। তবে বাংলাদেশ দল থেকে হাথুরসিংহে এখন অতীত। আর তাই ড্রেসিংরুম এখন নির্ভার বলেই মনে করেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

মাঠের পাশে দাঁড়িয়ে খেলোয়াড়দের নানা উপদেশ দিয়ে চলেছেন। ক্রিকেটের জন্য ব্যাপারটা বিস্ময়কর হলেও ফুটবল খেলায় এটা খুব পরিচিত দৃশ্য। কিন্তু হাথুরুসিংহের আমলে বাংলাদেশের ক্রিকেটেও মাঝে মধ্যে এমন দৃশ্য দেখা গিয়েছে। বাধ্য করেছেন মাশরাফিকে। বার বার চেয়েও ওয়ানডে দলে পাননি মুমিনুল হককে। টেস্ট ট্যাগ লাগিয়ে বাদ দিয়েছেন তাকে। আর এতে মানসিক চাপেই ভুগেছেন অধিনায়ক। ভুগেছেন খেলোয়াড়রাও। তাই একক প্রাধান্য বিস্তার করা কোচ চলে যাওয়ায় ড্রেসিংরুমকে নির্ভার বলেই ফেললেন মাশরাফি।

‘মানসিক চাপ সব সময় থাকে। এটা স্বাভাবিক। অধিনায়ক হিসেবে এটা থাকবে। এখনও সেটা আছে। নিজস্ব চিন্তা ভাবনা থাকবে যে ভিতরে কিভাবে ব্যবহার করবো। আমার ওই জিনিসগুলো এখনও আছে। তবে ড্রেসিং রুম অনেকটাই নির্ভার। যে প্রেসারটা সব সময় ড্রেসিংরুমে থাকে সেই চাপটা এখন অনুভব করছি না। ড্রেসিংরুমে আমি যখন আমার খেলোয়াড়কে নির্ভার দেখি কিংবা দেখবো তখন অধিনায়ক হিসেবেও আমার নির্ভার থাকতে সুবিধা হয়। অনেকটা নির্ভার মনে হচ্ছে।’ – কোচ হিসেবে হাথুরুসিংহে না থাকায় নির্ভার কিনা জানতে চাইলে এমনটাই বললেন মাশরাফি।

তবে এমন নির্ভার থাকলে মাঝে মধ্যে সমস্যায়ও পড়তে হয় দলকে। তা খুব ভালো করেই জানেন মাশরাফি। তাই দলকে নিয়ন্ত্রণে থাকতেই উপদেশ দিলেন অধিনায়ক, ‘এটা চাই না যে দল অনেক বেশি নির্ভার থাকুক। বেশি নির্ভার থাকলে…মাঠে নেমে কঠিন পরিস্থিতিতে হয় কি…অনেক সময় স্নায়ুচাপ থেকে সেরা পারফরম্যান্স বের হয়ে আসে। আমি আশা করব আমার মূল জায়গাটা যেন ঠিক থাকে। তারপর অন্য কিছু।’

এদিকে অতিরিক্ত নির্ভার থেকে দল না চাপে পড়ে যায় এ দুশ্চিন্তা থাকছেই। চাপ সামাল দেওয়ার মতো ক্ষমতা টাইগারদের রয়েছে বলেই জানালেন মাশরাফি। এছাড়া ঘরের মাঠে প্রত্যাশার চাপও রয়েছে। তবে সবধরনের চাপ উতরে যাবেন বলেই আশা করছেন অধিনায়ক, ‘দেশের হয়ে খেলতে নামলে আপনি যার বিপক্ষেই খেলেন না কেন চাপ থাকবেই। আমার কাছে মনে হয় এটা থাকাটাও গুরুত্বপূর্ণ। সেরা পারফরম্যান্সটা চাপে থেকে বের হয়। এবং আমার মনে হয় এখন যেই প্রেসার আছে তার থেকে বেশি চাপ নিয়ে আমাদের ড্রেসিংরুমের অধিকাংশ খেলোয়াড় আগে খেলেছে। এবং কালকে থেকে যেটা আসবে সেটা নিয়ন্ত্রণ করার মতো যথেষ্ট সামর্থ্য আমাদের আছে।

আরটি/ক্যাট

 
.



আলোচিত সংবাদ