ভারতই একদিন পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে চাইবে!

ঢাকা, বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৫

ভারতই একদিন পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে চাইবে!

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৩৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯

ভারতই একদিন পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে চাইবে!

ভারতের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে এক সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেছিল পাকিস্তান। ওই সমঝোতা অনুযায়ী ২০১৪ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে অন্তত সাতটি দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলার কথা ছিল। কিন্তু পরে সেখান থেকে পিছিয়ে যায় ভারত। ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে সর্বশেষ দ্বিপক্ষীয় ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিল ভারত-পাকিস্তান। আর সবশেষ টেস্ট খেলেছিল ২০০৭ সালে।

এদিকে ভারতের সাথে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে কম চেষ্টা করেনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। বারবার ভারতীয় বোর্ডে কাছে গিয়েছে অনুরোধ নিয়ে। কিন্তু বিশ্বের প্রভাবশালী ক্রিকেট বোর্ডটি পাত্তাই দেয়নি পাকিস্তানকে। শেষমেশ আইসিসিরও দ্বারস্থ হয়েছিল পিসিবি। কিন্তু আইসিসি জানিয়ে দিয়েছে, সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী ভারত পাকিস্তানের বিপক্ষে আইনত খেলতে বাধ্য নয়।

অবশেষে সব দরজায় ব্যর্থ হয়ে বিষয়টি নিয়ে ভিন্নভাবে ভাবছে পাকিস্তান। আর অনুরোধ নয়, পিসিবি এমন এক পরিস্থিতি তৈরি করবে যাতে ভারতই উল্টো পাকিস্তানের সাথে খেলার জন্য আগ্রহী হয়ে ওঠে। অন্তত এমটাই পরিকল্পনা করছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়াসিম খান।

ভারতকে আর খেলার আহ্বান করবেন না জানিয়ে পিসিবির নতুন এই ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমরা ওদের অনুরোধ করেই যাচ্ছি, কিন্তু এখন এমন একটা পরিস্থিতি তৈরি করতে হবে, যেন উল্টো ওরাই আমাদের অনুরোধ জানায় খেলার জন্য। আমাদের এটাই করতে হবে। হ্যাঁ, ওদের বিপক্ষে খেলছি না, এটা তো হতাশার। কিন্তু জীবন থেমে থাকে না। আমাদেরও সামনে এগিয়ে যেতে হবে। ভারতের জন্য আজীবন অপেক্ষা করতে পারি না। আমাদের লক্ষ্য এখন পাকিস্তানের ক্রিকেটের উন্নয়ন এবং আমাদের দল ও খেলোয়াড়দের আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সাফল্য।’

তবে খুব শিঘ্রই যে ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হচ্ছে না সেটাও উঠে এসেছে ওয়াসিম খানের কথায়, ‘এটা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। খুব শিঘ্রই এর সমাধান দেখছি না। সামনে ভারতের নির্বাচন। ফলে সহসাই দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হচ্ছে না। তবে আমরা চেষ্টা করছি। পিসিবির সভাপতি এহসান মানি ভারতকে আলোচনার টেবিলে ফেরাতে সবটুকু দিয়ে চেষ্টা করছেন, যেন স্থবিরতা কেটে যায়। তবে আমাদের সবার আগে দেশের সম্মানের কথা ভাবতে হবে।’

পিএ