আলো কাড়লেন শুভাশিস

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

আলো কাড়লেন শুভাশিস

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৯:৪৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৮

আলো কাড়লেন শুভাশিস

৫ উইকেট নেওয়ার পর শুভাশিস রায়

জাতীয় ক্রিকেট লিগের চতুর্থ রাউন্ডের দ্বিতীয় দিনে আলো কেড়েছেন শুভাশিস রায়। ৫ উইকেট নিয়েছেন রংপুরের এই বোলার। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে দলে ফেরার বার্তাও কি থাকলো তাতে?

এদিন শুভাশিসের ৫ উইকেট পাওয়ার দিনে ব্যাট হাতে আলো কেড়েছেন চট্টগ্রামের ইয়াসির আলি, রাজশাহী বিভাগের ফরহাদ হোসেন এবং ঢাকা মেট্রোর মার্শাল আইয়ুব ও শামসুর রহমান। চারজনই পেয়েছেন ফিফটি।

রংপুর বিভাগ-বরিশাল বিভাগ (প্রথম স্তর)
ভেন্যু- রংপুর ক্রিকেট গ্রাউন্ড

প্রথম ইনিংসে ১৪৭ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল রংপুর বিভাগ। বরিশাল বিভাগও তাদের প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে গেছে ঠিক ১৪৭ রানে। আগের দিনের ২ উইকেট ৩৫ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করেছিল বরিশাল। শুভাশিসের বোলিং তোপে দেড়শ রানও করতে পারেনি দলটি। ৫ উইকেট নিয়েছেন জাতীয় দলের বাইরে থাকা পেসার শুভাশিস। এছাড়া রবিউল ও তানবীর হায়দার নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। বরিশালের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪০ রান করেন রাফসান আল মাহমুদ।

এদিকে রংপুর বিভাগ তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দিন শেষে ৩ উইকেট ৭৭ রান তুলেছে।

খুলনা বিভাগ-রাজশাহী বিভাগ (প্রথম স্তর)
ভেন্যু- শেখ আবু নাসের স্টেডিয়াম, খুলনা

আগে ব্যাট করে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩০৯ রান তুলেছে খুলনা বিভাগ। আগের দিনের ৭ উইকেটে ২৮১ রানে দিন শুরু করেছিল দলটি। এদিন আর ২৮ রান যোগ করতে পারে তারা। রাজশাহী বিভাগ তাদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেটে ২০২ রান করে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে।

রাজশাহীর পক্ষে এদিন ফিফটি করেছেন ফরহাদ হোসেন। ৫৬ রান করেন তিনি। ৪৭ রান করেছেন জুনায়েদ সিদ্দিকী। ৪৩ রানের ইনিংস খেলেন মিজানুর রহমান। খুলনার হয়ে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন আল-আমিন হোসেন ও সৌম্য সরকার।

ঢাকা বিভাগ-চট্টগ্রাম বিভাগ (দ্বিতীয় স্তর)

ভেন্যু- শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, কক্সবাজার

নাঈম হাসানের ৮ উইকেট শিকারের দিনে সোমবার প্রথম দিন ২৮৮ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল ঢাকা বিভাগ। মঙ্গলবার দিনের শুরুতে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং শুরু করে চট্টগ্রাম বিভাগ। দিন শেষে ঢাকা বিভাগ প্রথম ইনিংসে লিড পাওয়ার আশায় মাঠ ছেড়েছে। ৮ উইকেটে ২২৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে চট্টগ্রাম বিভাগ। এখনে ঢাকার চেয়ে ৬৫ রানে পিছিয়ে চট্টগ্রাম। হাতে মাত্র ২ উইকেট।

এদিন চট্টগ্রামের হয়ে ৬০ রান করেন অধিনায়ক ইয়াসির আলি। ৪০ রান করেন মাহিদুল ইসলাম। ৪৬ রান করেন ইফতেখার সাজ্জাদ। ঢাকা বিভাগের হয়ে মোশাররফ হোসেন রুবেল ২ উইকেট নেন। শাহাদাত হোসেন, সালাউদ্দিন শাকিল, শুভাগত হোম, তাইবুর রহমান ও সাইফ হাসান নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।

সিলেট বিভাগ-ঢাকা মেট্রো (দ্বিতীয় স্তর)
ভেন্যু- শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়াম, রাজশাহী

তিনশ রান ছোঁয়ার শঙ্কা নিয়ে আগের দিন খেলা শেষ করেছিল সিলেট বিভাগ। ৯ উইকেটে ২৯২ রান করে সোমবার প্রথম দিনের খেলা শেষ করেছিল দলটি। মঙ্গলবার অলআউট হওয়ার আগে অবশ্য ৩১২ করে দলটি।

বিপরীতে ঢাকা মেট্রো ৮ উইকেটে ২৬৭ রান করে দিন শেষ করে। ঢাকার অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব ৭৪ রানের ইনিংস খেলেছেন। ৬৩ রান করেছেন শামসুর রহমান। অর্থাৎ তৃতীয় দিন লিডের আশায় মাঠে নামবে সিলেটের বোলাররা। এদিন সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন খালেদ আহমেদ।

টিএআর