এই শিরোপা জয়ে নতুন সূর্য দেখছেন সালমা

ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ | ৪ ভাদ্র ১৪২৫

এই শিরোপা জয়ে নতুন সূর্য দেখছেন সালমা

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:০০ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০১৮

print
এই শিরোপা জয়ে নতুন সূর্য দেখছেন সালমা

ঠিক ২১ বছর আগে মালয়েশিয়াতেই নতুন সূর্য উঠেছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটে। সেবার আইসিসি ট্রফিতে কেনিয়াকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ। সেই টুর্নামেন্টেই ১৯৯৯ বিশ্বকাপের টিকিটও কাটে বাংলাদেশ। যে অর্জনগুলো টেস্ট মর্যাদা লাভের ভিত্তি তৈরি করে দেয় বাংলাদেশকে। ২১ বছর পর বাংলাদেশের ক্রিকেট এখন অনন্য উচ্চতায় দাঁড়িয়ে।

১৯৯৭ সালে আকরাম খান, আমিনুল ইসলাম বুলবুল, খালেদ মাসুদ পাইলটরা যেমন খুশির জোয়ারে ভাসিয়েছিলেন দেশকে, ২০১৮ সালে তেমনই উপলক্ষ নিয়ে এসেছেন সালমা খাতুন, রুমানা আহমেদ, জাহানারা আলমরা। মেয়েদের এশিয়া কাপে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। আগের ছয়বারের সবকটিতেই শিরোপা জিতেছিল ভারত। বাংলাদেশের কাছে এবার একক আধিপত্য হারিয়েছে দেশটি। বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সালমা খাতুন এমন ঐতিহাসিক জয়ের পর জানিয়েছেন পরের সিরিজ কিংবা টুর্নামেন্টে এ অর্জনের ধারাবাহিকতা ধরে রাখার প্রত্যয়। অর্থাৎ নতুন শুরুর স্বপ্ন তার চোখে।

বাংলাদেশ মালয়েশিয়ার টুর্নামেন্টের লিগপর্বটা শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাজে হার দিয়ে। তার আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বাজে অভিজ্ঞতা সঙ্গী ছিল মেয়েদের। ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি দুই ফরম্যাটেই হোয়াইটওয়াশ হয় সালমা-রুমানাদের দল। কিন্তু সেই দলটাই দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গল্প লিখল কিনরারা একাডেমি ওভালে। রোববার। ২০১৪ সালের পর টি-টুয়েন্টিতে জয় পায় তারা পাকিস্তানকে হারিয়ে। এই আসরের দ্বিতীয় ম্যাচে। টানা চার জয়ে ফাইনালে। এরপর ফাইনাল মিলে টানা পাঁচ জয়ে চ্যাম্পিয়ন।

বাংলাদেশের জন্য নারী-পুরুষ ক্রিকেট দল মিলিয়ে প্রথম কোনো টুর্নামেন্টের শিরোপা এটি। আর সেই হৌরবময় অর্জনে নেতৃত্ব দেওয়া অধিনায়ক সালমা খাতুন বলেছেন, ‘আসলে টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচটা আমাদের খারাপ ছিল। এরপর আমরা খুব ভালো কামব্যাক করেছি। প্রত্যেকটা ম্যাচ জিতেছি। আশা করছি পরের যে টুর্নামেন্ট আছে আমরা সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখবো।’

১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ আইসিসি ট্রফির শিরোপা জয়ের পর দর্শকের ঢল নেমেছিল মাঠে। এদিনও সেই একই চিত্র। জাহানারা আলম দুই রান নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে গ্যালারি থেকে মাঠে নেমে উল্লাসে মাতে দর্শকরা। পুরো খেলা জুড়ে প্রচুর দর্শক উৎসাহ জুগিয়েছেন টাইগ্রেসদের। প্রচুর প্রবাসী বাংলাদেশির উপস্থিতি ছিল মাঠে।

সালমা তাই সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাতে ভুললেন না এমন উৎসবের মাঝেও, ‘অবশ্যই সাপোর্টার আসলে ভালো লাগে। আর আমাদের বাংলাদেশের সাপোর্টার অনেক ছিল। ধন্যবাদ সকল সাপোর্টারকে।’

টিএআর/ক্যাট

 
.


আলোচিত সংবাদ