অস্ট্রেলিয়ার বিদায়, ২৭ বছর পর ফাইনালে ইংল্যান্ড

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

অস্ট্রেলিয়ার বিদায়, ২৭ বছর পর ফাইনালে ইংল্যান্ড

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:২১ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০১৯

অস্ট্রেলিয়ার বিদায়, ২৭ বছর পর ফাইনালে ইংল্যান্ড

গ্রুপপর্বে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাত্তাই পায়নি ইংল্যান্ড। ওই ম্যাচে অজিদের করা ২৮৫ রান তাড়া করতে নেমে মিচেল স্টার্কের ছোবলে ২২১ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল ইংলিশরা।

স্বাগতিকদের হয়ে একাই লড়েছিলেন সেদিন বেন স্টোকস। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমি ফাইনালে আবার দেখা হল দুই দলের। আজ আর স্টোকসকে নামতেই হয়নি ব্যাটিংয়ে। তার আগেই জয় তুলে নিয়েছে তার সতীর্থরা। অস্ট্রেলিয়াকে ৮ উইকেটে হারিয়ে দীর্ঘ ২৭ বছর পর বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড।

সর্বশেষ ১৯৯২ সালের আসরে ফাইনালে উঠেছিল তারা। সেবার মেলবোর্নে ইমরান খানের পাকিস্তানের কাছে হেরে রানার্স আপ হয়েছিল গ্রাহাম গুচের ইংল্যান্ড। লর্ডসে রোববার ইয়ন মরগানদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড।

বৃহস্পতিবার এজবাস্টনে প্রথমে ব্যাট করে ৪৯ ওভারে ২২৩ রান করে গুটিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। জবাবে ৩২.১ ওভারে ২ উইকেটে ২২৬ রান করে জয় তুলে নিয়েছে ইংল্যান্ড।

এদিন সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অর্ধেক কাজটা সেরে যান জনি বেয়ারস্টো ও জেসন রয়। এই দুইজনের ওপেনিং জুটিতেই ১২৪ রান পায় ইংল্যান্ড। ব্যক্তিগত ৩৪ রানে বেয়ারস্টো এলবিডাব্লুর ফাঁদে পড়লে ভাঙে এই জুটি।

অন্য ওপেনার রয় অবশ্য সেঞ্চুরির কাছাকাছি গিয়ে দুর্ভাগ্যের শিকার হন। প্যাট কামিন্সের বল মারতে গেলে সেটি গিয়ে জমা হয় অ্যালেক্স ক্যারির গ্লাভসে। আউটের আবেদন উঠলে তাতে সায় দিয়ে তর্জনী উঁচিয়ে দেন আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা।

রয় নিশ্চিত ছিলেন তিনি আউট নন। কিন্তু তার আগেই বেয়ারস্টো রিভিউ নষ্ট করে ফেলেছিলেন। ফলে হতাশা নিয়ে মাঠ ছড়তে হয় রয়কে। পরে টিভি রিপ্লেতেও স্পষ্ট দেখা যায় বল রয়ের ব্যাট বা গ্লাভসে লাগেনি। ৫টি ছক্কা ও ৯টি চারে রাঙিয়ে ৬৫ বলে ৮৫ রান করেছিলেন রয়। ইংল্যান্ডের রান তখন ১৪৭।

এরপর জয়ের বাকি কাজটা সারেন ইংল্যান্ডের দুই অধিনায়ক। মানে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টির সংস্করণের অধিনায়ক মরগান ও টেস্ট ফরম্যাটের অধিনায়ক জো রুট।

তাদের অবিচ্ছিন্ন ৭৯* রানের জুটিতে নিশ্চিত হয়ে যায় ইংল্যান্ডের জয়। আর বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। মরগান ৪৫* রানে ও রুট ৪৯* রানে অপরাজিত ছিলেন।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ১টি করে উইকেট নিয়েছেন স্টার্ক ও কামিন্স।

পিএ

 

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯: আরও পড়ুন

আরও