ভারতকে ধসিয়ে ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

ঢাকা, ১৪ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

ভারতকে ধসিয়ে ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০১৯

ভারতকে ধসিয়ে ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

লিগ পর্বে টেবিলের শীর্ষে থেকে সেমি ফাইনালে পা দিয়েছিল ভারত। অন্যদিকে শীর্ষ চারের চতুর্থ দলটি ছিল নিউজিল্যান্ড। বৃষ্টির বাধায় মুখোমুখি হতে পারেনি দুই দল। সেমিতেও বৃষ্টির হানায় রিজার্ভ ডেতে গড়িয়েছে ম্যাচ।

ওল্ড ট্রাফোর্ডে দ্বিতীয় দিনের গড়ানো ম্যাচে ভারতকে ১৮ রানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট কেটেছে নিউজিল্যান্ড।

প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৩৯ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে ৪৯.৩ ওভারে ২২১ রান করে অল আউট হয়ে যায় ভারত।

ভারতীয় ইনিংসের প্রথম ১০ ওভারেই ম্যাচের ভাগ্য অনেকটা নির্ধারিত হয়ে যায়। এসময় ২৭ রান তুলতেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। সাজঘরে ফিরে গেছেন রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, লোকেশ রাহুল ও দিনেশ কার্তিক।

এরপর ঋশভ পান্ত ও হার্দিক পান্ডিয়া কিছুটা চেষ্টা করেন প্রতিরোধের। কিন্তু দলীয় শতরানের মধ্যে বিদায় নেন এই দুইজনও।

দলীয় ৯২ রানে ৬ উইকেট হারানোর পর অন্যমাত্রা পায় ম্যাচ। দারুণ এক জুটি গড়ে নিউজিল্যান্ডের বুকে ভয় ধরিয়ে দেন মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা। দারুণ আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ভারতকে স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন জাদেজা। অন্যপ্রান্তে ধোনিও ঠাণ্ডা মাথায় ধরে রেখেছিলেন হাল।

কিন্তু ব্যক্তিগত ৭৭ রানে জাদেজা আউট হয়ে গেলে হোঁচট খায় ভারত। এরপর মার্টিন গাপটিলের দুর্দান্ত এক থ্রোয়ে ধোনি রান আউটের শিকার হলে হার নিশ্চিত হয়ে যায় ভারতের।

জাদেজা-ধোনি জুটিতে আসে ১১৬ রান, ১০৪ বলে। জাদেজার ৫৯ বলের ইনিংসটিতে ছিল ৪টি করে ছক্কা ও চারের মার। অন্যদিকে দলের হাল ধরলেও ধোনির ইনিংসটা একটু মন্থরই ছিল। ৫০ রান করেছেন তিনি ৭২ বল খেলে।

এই দুইজন ছাড়া দুই অংকের ঘরে পৌঁছানো অন্য দুই ব্যাটসম্যান পান্ত ও পান্ডিয়া। দুইজনই ৩২ রান করে করেছেন।

ভারতের বিখ্যাত ব্যাটিং লাইন আপ ধসিয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন ম্যাট হেনরি। ১০ ওভার করে ৩৭ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন তিনি। ট্রেন্ট বোল্ট ও মিচেল সান্টনার নিয়েছেন ২টি করে উইকেট।

এদিন ভারতের প্রথম তিন ব্যাটসম্যান রোহিত, কোহলি ও রাহুল ১ রান করে আউট হন। ৪৮ বছরের ওয়ানডে ইতিহাসে এর আগে কোনো ম্যাচেই টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান ১ রান করে আউট হননি।

পিএ

 

 

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯: আরও পড়ুন

আরও