গাঙুলি-ভিভ রিচার্ডসদের পেছনে ফেললেন সাকিব

ঢাকা, ১৪ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

গাঙুলি-ভিভ রিচার্ডসদের পেছনে ফেললেন সাকিব

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:১১ অপরাহ্ণ, জুন ২৪, ২০১৯

গাঙুলি-ভিভ রিচার্ডসদের পেছনে ফেললেন সাকিব

সাউদাম্পটনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে মোট তিনটি মাইলফলক ডাকছিল তাকে। ব্যাট করতে নেমে তার দুটি কীর্তি গড়ে ফেলেছেন সাকিব আল হাসান। এই বিশ্বকাপে পঞ্চম পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলে সাকিব আউট হয়েছেন ৬১ রান করে।

এই রানের পথেই অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নাকে টপকে এবারের বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক বনে গেছেন সাকিব। ৬ ম্যাচে ৮৯.৪০ গড়ে ৪৪৭ রান করেছেন ওয়ার্নার। সাকিবও আজ ৬ নম্বর ম্যাচই খেলছেন। ৬ ম্যাচের ৬ ইনিংসে তিনি করেছেন ৪৭৬! গড়ও অবিশ্বাস্য, ৯৫.২০! বাংলাদেশের একজন বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক, ভাবতেই কেমন গর্ব গর্ব লাগে।

সাকিবের দ্বিতীয় কীর্তিটাও গর্বিত করেছে দেশকে। এই ৫১ রান করার পথে তিনি প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বকাপে ১০০০ রানের মাইলফলক পেরিয়ে গেছেন। সব মিলে বিশ্বের ১৯তম ক্রিকেটার হিসেবে এই কীর্তি গড়লেন তিনি। মানে তার আগে ইতিহাসে মোট বিশ্বের ১৮ জন ক্রিকেটার বিশ্বকাপে হাজার রানের মাইলফলক ছুঁয়েছেন।

এ নিয়ে চতুর্থ বিশ্বকাপে খেলছেন সাকিব। ৪ বিশ্বকাপে মোট ২৭ ম্যাচে ১০১৬ রান এখন সাকিবের। ১৯তম ব্যাটসম্যান হিসেবে কীর্তিটা গড়লেও সাকিব এরই মধ্যে তালিকার ১৬ নম্বরে উঠে গেছেন। পেছনে ফেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ওপেনার মার্ক ওয়াহ (১০০৪), ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী (১০০৬) ও সর্বকালের সেরা অল রাউন্ডার হিসেবে বিবেচিত স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসকে (১০১৩)। যাকে দুনিয়া ভিভ রিচার্ডস নামেই বেশি চেনে।

এই বিশ্বকাপে অন্তত আরও দুটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন সাকিব। যে ছন্দে আছেন, পরের দুই ম্যাচেও ফর্মটা ধরে রেখে ব্যাট করতে পারলে সাকিব পেছনে ফেলে দিতে পারবেন শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার অরবিন্দ ডি সিলভা (১০৬৪), দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক তারকা হার্সেল গিবস (১০৬৭), নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন ফ্লেমিং (১০৭৫), পাকিস্তানের সাবেক তারকা জাভেদ মিয়াঁদাদ (১০৮৩), অস্ট্রেলিয়ার সাবেক উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান অ্যাডাম গিলক্রিস্ট (১০৮৫), শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক মাহেলা জয়াবর্ধনে (১১০০), শ্রীলঙ্কারই আরেক সবাকে তারকা তিলকরত্নে দিলশানদের (১১১২) মতো কিংবদন্তিদের।

এমনকি ক্রিস গেইল (১১৩৮), দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিসদের (১১৪৮) পেছনে ফেলার সম্ভাবনাও আছে।

বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ডটা শচীন টেন্ডুলকারের দখলে। রেকর্ড ৬টি বিশ্বকাপে খেলে মোট ৪৫ ম্যাচ খেলে ভারতের মাস্টার ব্লাস্টার করেছেন ২২৭৮ রান। তার এই রেকর্ড কেউ কখনো ভাঙতে পারবেন কিনা, তা নিয়ে যথেষ্টই সংশয় আছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭৪৩ রান করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক রিকি পন্টিং।

আজ আফগানিস্তানের বিপক্ষে আরও একটি মাইলফলকের হাতছানি সাকিবের সামনে। সেটি আরও বড় অর্জন। ইতিহাসের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপে ১০০০ রান ও ৩০ উইকেটের মাইলফলক ছোঁয়ার হাতছানি। ১০০০ রান করার প্রথম শর্তটা এরই মধ্যে পূরণ হয়েছে। এখন দরকার ৩০ উইকেটের মাইলফলকে পৌঁছানো। সেজন্য বল হাতে সাকিবকে নিতে হবে ২টি উইকেট। তা পারলে সাকিব নিশ্চিতভাবেই সর্বকালের সেরা অল-রাউন্ডারের আলোচনাটা আরও জোরালো করতে পারবেন।

সাকিব পারবেন, অনন্য এই কীর্তিটা গড়তে?

কেআর

 

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯: আরও পড়ুন

আরও