‘বিশ্বকাপ আমরাই জিতব’

ঢাকা, ১৪ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

‘বিশ্বকাপ আমরাই জিতব’

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:২৭ অপরাহ্ণ, মে ২৬, ২০১৯

‘বিশ্বকাপ আমরাই জিতব’

এবারের বিশ্বকাপ জিতবে কে? প্রাক-টুর্নামেন্ট আলোচনায় এই প্রশ্নের উত্তরে ক্রিকেটবোদ্ধারা সম্ভাবনার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে রাখছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও ভারতকে। বলছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার নামও। কিন্তু ওয়াহাব রিয়াজের কাছে এই প্রশ্নের উত্তর একটাই, আগামী ১৪ জুলাই লর্ডসে শিরোপা উৎসব করবে পাকিস্তান! কোনো রকম রাখ-ডাক না করেই বললেন, ‘শিরোপা আমরাই জিতব।

সাফল্যপ্রাপ্তির পূর্ব শর্ত আত্মবিশ্বাস। কিন্তু এই মুহূর্তে নিজেদের নিয়ে ওয়াহাবের এই আত্মবিশ্বাসকে একটু বাড়াবাড়িই মনে হচ্ছে। সরফরাজ আহমেদের এই দলটির সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স খুবই হতাশাজনক। সর্বশেষ ১০ ওয়ানডের ৯টিতেই হেরেছে তারা। এমনকি পাকিস্তান হেরেছে শুক্রবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচেও।

মার্চে সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিজেদের ‘হোম’ সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৫-০তে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে। বিশ্বকাপের চূড়ান্ত প্রস্তুতিপর্বে ইংল্যান্ডে এসেও সেই সর্বনাশা ভরাডুবি। ৫ ম্যাচ সিরিজের ৪টিতেই হেরেছে। অন্য ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হওয়ায় বেঁচে গেছে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা থেকে!

এরপর পুঁচকে আফগানিস্তানের কাছে ৩ উইকেটের হার স্পষ্টই যেন বলে দিচ্ছে, এই পাকিস্তানকে নিয়ে বড় স্বপ্ন না দেখাই ভালো! কিন্তু ওয়াহাব দিব্যদৃষ্টিতে দেখতে পাচ্ছেন শিরোপা জিতবেন তারাই! পাকিস্তান আনপ্রেডিক্টটেবল। তাদের নিয়ে আগে থেকে কিছুই বলার উপায় নেই। খাদের কিনারা থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে শিরোপা জেতার সামর্থ যেমন আছে, তেমনি নিশ্চিত জেতা ম্যাচে হাস্যকরভাবে হেরে যেতেও পাকিস্তানের জুরি মেলাভার!

সুতরাং পাকিস্তানকে নিয়ে আগাম কোনো ধারণা না করাই ভালো! কিন্তু প্রশ্ন হলো, দলের এমন হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পরও ওয়াহাব কিসের ভিত্তিতে নিজেদের বিজয়ী হিসেবে দেখছেন? শেষ মুহূর্তে বিশ্বকাপ দলে ঢোকা ওয়াহাবকে স্বপ্ন দেখাচ্ছে ইংল্যান্ডে বসবাসকারী পাকিস্তানি দর্শক এবং ইংল্যান্ডের মাটিতে পাকিস্তানিদের সাফল্য।

ইংল্যান্ডে অনেক পাকিস্তানির বাস। সুতরাং ইংল্যান্ডে পাকিস্তানের ম্যাচ মানেই গ্যালারিভর্তি পাকিস্তানি দর্শক। মনে হয়, পাকিস্তান যেন নিজেদের ঘরের মাঠেই খেলছে। ওয়াহাব মনে করছেন দর্শক-সমর্থন তাদের অনেক দূর এগিয়ে দেবে। ইংল্যান্ডের মাটিতে ক্রিকেটের বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের অতীত সাফল্যও বিশেষ অনুপ্রাণিত করছে ৩৪ ছুঁইছুঁই ওয়াহাবকে।

ইংল্যান্ডের মাটিতে দুদুটি বৈশ্বিক আসরের শিরোপা জিতেছে পাকিস্তান। ২০০৯ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০১৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম শিরোপা জয়ের অনুভূতিটা তো পাকিস্তানিদের টাটকাই। সেবারও শিরোপা সম্ভাবনার দৌড়ে সরফরাজের পাকিস্তানকে কেউ গোনায় ধরেনি। কিন্তু সবাইকে বিস্মিত করে লর্ডসে শিরোপা উৎসব করেন সরফরাজরাই।

দর্শক এবং ইংল্যান্ডের মাটিতে অতীত এই সাফল্যই স্বপ্নবিলাসী করে তুলেছে ওয়াহাবকে, ‘ইংল্যান্ডে আমরা প্রচুর দর্শক সমর্থন পাবো। আমরা এখানে খেলতে খুবই পছন্দ করি। কারণ, এটা আমাদের কাছে দ্বিতীয় ঘর। এখানে ২০০৯ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০০৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়টা আমাদের অনেক এগিয়ে রাখবে।’

কেআর

 

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯: আরও পড়ুন

আরও