রফতানি আয়ের লক্ষ্য অর্জনে সহজলভ্য ঋণ চায় এফবিসিসিআই

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

রফতানি আয়ের লক্ষ্য অর্জনে সহজলভ্য ঋণ চায় এফবিসিসিআই

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৭:২৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৮, ২০১৯

রফতানি আয়ের লক্ষ্য অর্জনে সহজলভ্য ঋণ চায় এফবিসিসিআই

২০১৯-২০২০ অর্থবছরে রফতানি আয় ৫৪ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহজলভ্য ঋণপ্রবাহ, ঋণের সুদের হার হ্রাস, নীতি সহায়তা এবং বন্দরের দক্ষতা ও সেবার মান বাড়ানোর আহবান জানিয়েছে শীর্ষ বণিক সমিতি এফবিসিসিআই।

বৃহস্পতিবার এফবিসিসিআই থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, সরকার ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ৫৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার নির্ধারণ করেছে, যা গত বছরের অর্জনের উপর ভিত্তি করে ১৫.২০ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে। বর্তমান বৈশ্বিক বাজার পরিস্থিতি, সরকারের বাণিজ্য সহায়ক নীতি, রফতানিকারকদের সরবরাহ দক্ষতা ও ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী শিল্প কারখানার নিরাপত্তা পরিবেশ নিশ্চিত করার পরিপ্রেক্ষিতে এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কাঙ্খিত রফতানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের স্বার্থে উৎপাদন ব্যয় কমানো ও প্রতিযোগিতা সক্ষমতা বাড়াতে রফতানি উন্নয়ন তহবিল (ইডিএফ) ও অন্যান্য ব্যাংক সুদের হার হ্রাস, বেসরকারি খাতে সহজলভ্য ঋণপ্রবাহ, ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজের ক্ষেত্রে সকল ধরনের নীতি সহায়তা, চট্টগ্রাম বন্দরসহ সকল বন্দরের সক্ষমতা ও সেবার মান আরও বৃদ্ধি, সর্বপরি রফতানি নীতিতে উল্লেখিত সুযোগ-সুবিধাসমূহ নিশ্চিত করতে হবে।

এফবিসিসিআই বলছে, বৈদেশিক বাণিজ্যকে সহায়তার লক্ষ্যে সরকার ইতোমধ্যে বাণিজ্যসহায়ক (ট্রেড ফ্যাসিলিটেশন) কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। ইজ অব ডুয়িং বিজনেস ও রফতানি উন্নয়নের স্বার্থে এ কার্যক্রম আরও জোরদার করা প্রয়োজন। এ বছর নতুন ১৩টি পণ্য রফতানি আয়ের বিপরীতে নগদ সহায়তা দেয়ার সিদ্ধান্ত কাঙ্খিত রফতানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের ক্ষেত্রে বিশেষ সহায়ক হবে।

পূর্ববর্তী অর্থবছরের তুলনায় ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে দেশের সার্বিক রফতানি (পণ্য ও সেবা) আয় বৃদ্ধি পেয়েছে ১৪.৩০ শতাংশ এবং শুধু সেবা খাতে রফতানি আয় বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৬.০৬ শতাংশ, যা আশাব্যঞ্জক। রফতানি প্রবৃদ্ধির এ ধারা অব্যাহত থাকলে এবং নীতিগত সহায়তা নিশ্চিত করা হলে আগামী ২০২১ সালের মধ্যে রফতানি আয় ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করার কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হব বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

এফএ/আইএম

 

করপোরেট সংবাদ: আরও পড়ুন

আরও